বুধবার, ২৭ অক্টোবর ২০২১

সেকশন

 

প্রতিশ্রুতি না রেখেই স্বার্থ হাসিলে মরিয়া তালেবান

আপডেট : ১৩ অক্টোবর ২০২১, ১৬:২১

কাবুলের নিয়ন্ত্রণ নেওয়ার মধ্য দিয়ে গত আগস্টে পশ্চিমা সমর্থিত আশরাফ গনি সরকারকে উৎখাত করে আফগানিস্তানের ক্ষমতায় আসে তালেবান। প্রায় দুই দশক পর ফের ক্ষমতা দখলের পর আফগান নাগরিকদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করা, নারীদের অধিকারকে সম্মান জানানো, বিভিন্ন ক্ষেত্রে উদার নীতি মেনে চলাসহ নানা প্রতিশ্রুতি দিয়েছিল কট্টর মৌলবাদী এই গোষ্ঠীটি। তবে ক্ষমতায় আসার প্রায় দুই মাসেও সেসব প্রতিশ্রুতি রক্ষায় দৃশ্যমান কোনো আগ্রহ দেখা যায়নি তালেবান নেতাদের। উল্টো পুরোনো নীতিতে অটল থেকেই আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি অর্জনসহ নানা স্বার্থ হাসিলে মরিয়া হয়ে উঠেছেন তাঁরা।

সম্প্রতি যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে অনুষ্ঠিত বৈঠককে ‘সম্পর্কের নতুন অধ্যায়’ বলে আখ্যা দেওয়ার পর এবার অর্থনৈতিক সংকট এড়াতে বিশ্বের বিভিন্ন দেশের সঙ্গে সুসম্পর্ক গড়ে তোলার আগ্রহ প্রকাশ করেছেন আফগানিস্তানের ভারপ্রাপ্ত পররাষ্ট্রমন্ত্রী আমির খান মুত্তাকি। তবে আফগান শিশুদের স্কুলে ফেরার অনুমতি দেওয়ার আন্তর্জাতিক দাবি সত্ত্বেও বরাবরের মতোই নারীশিক্ষার ব্যাপারে প্রতিশ্রুতির বিষয়টি এড়িয়ে গেছেন তিনি।

গত সোমবার কাতারের দোহায় এক অনুষ্ঠানে মুত্তাকি বলেন, আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের উচিত আমাদের সহযোগিতা করা। এর মাধ্যমে আমরা দেশের জনগণের নিরাপত্তাহীনতা রোধ করতে সক্ষম হব এবং একই সঙ্গে বিশ্বের সঙ্গে ইতিবাচকভাবে যুক্ত হতে পারব।’

আফগানিস্তানে ষষ্ঠ শ্রেণির ওপরের ক্লাসগুলো শুধু ছেলেদের জন্যই খুলবে বলে গত মাসে সিদ্ধান্ত দেয় তালেবান। কিন্তু এখন পর্যন্ত মেয়েদের হাইস্কুলে ফেরার অনুমতি দেওয়ার ব্যাপারে কোনো ধরনের প্রতিশ্রুতি দিতে অস্বীকৃতি জানিয়েছে তারা, যা আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের অন্যতম প্রধান দাবি।

এ বিষয়ে আফগান পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘তালেবান ক্ষমতায় এসেছে মাত্র কয়েক সপ্তাহ। এত অল্প সময়ে সংস্কারের আশা করা যায় না। তাদের (আশরাফ গনি সরকার) প্রচুর আর্থিক সম্পদ এবং শক্তিশালী আন্তর্জাতিক সমর্থন থাকা সত্ত্বেও ২০ বছরে তারা সমাজসংস্কারে সক্ষম হয়নি। আর আপনারা আমাদের দুই মাসের মধ্যে তা করতে বলছেন।’

জাতিসংঘের নিন্দা

আফগান নারী ও মেয়েশিশুদের দেওয়া প্রতিশ্রুতি ভাঙায় তালেবানের কঠোর নিন্দা জানিয়েছেন জাতিসংঘের মহাসচিব আন্তোনিও গুতেরেস। একই সঙ্গে অর্থনৈতিক বিপর্যয় এড়াতে আফগানিস্তানে অর্থপ্রবাহ বজায় রাখতে বিশ্বনেতাদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন তিনি।

গত সোমবার নিউইয়র্কে গুতেরেস সাংবাদিকদের বলেন, ‘আফগান নারী ও মেয়েশিশুদের দেওয়া তালেবানের প্রতিশ্রুতি ভঙ্গ হতে দেখে আমি উদ্বিগ্ন। নারীদের কাজে বাধা দিলে আফগানিস্তানের জন্য অর্থনৈতিক সংকট কাটিয়ে ওঠা কঠিন হবে।’

ইইউ-তালেবান

যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিনিধিদের সঙ্গে বৈঠকের পর গতকাল দোহায় ইউরোপীয় ইউনিয়নের (ইইউ) প্রতিনিধিদের সঙ্গেও বৈঠক করেছেন তালেবান প্রতিনিধিরা। আন্তর্জাতিক সমর্থন আদায়ে তালেবানের কূটনৈতিক প্রচেষ্টার অংশ হিসেবেই দেখা হচ্ছে এ বৈঠককে। মানবিক ও অর্থনৈতিক বিপর্যয় এড়াতে এদিন আফগানিস্তানের জন্য ১০০ কোটি ইউরো সহায়তা ঘোষণা করেছে ইইউ। ইতালির নেতৃত্বে আয়োজিত এক ভার্চুয়াল বৈঠকে এ ঘোষণা দেন ইউরোপীয় কমিশনের প্রেসিডেন্ট উরসুলা ভন দার লিয়েন। তবে তালেবান সরকারের মাধ্যমে নয়, আন্তর্জাতিক সংস্থাগুলোর মাধ্যমে সরাসরি এই সহায়তা প্রদান করা হবে বলে জানিয়েছেন তিনি।

মন্তব্য

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।
Show
 
    সব মন্তব্য

    ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

    এলাকার খবর

    পুলিশে চাকরির নামে প্রতারণা

    সেনবাগে নৌকার ৬ মাঝি

    খালে আবর্জনার স্তূপ ঝুঁকিতে জনস্বাস্থ্য

    চট্টগ্রাম বিভাগে দ্বিতীয় চাটখিল স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স

    ভুল চিকিৎসায় প্রাণ যাচ্ছে পশুর

    প্রথম দিনে সরগরম মাছঘাট

    বনানীতে ভবনে লাগা আগুন নিয়ন্ত্রণে

    চাটখিলে বয়লার মুরগির দাম বৃদ্ধি, বিপাকে ক্রেতারা 

    গৃহযুদ্ধ এড়াতেই সুদানের সেনা অভ্যুত্থান: জেনারেল বুরহান 

    বিশ্বে এক দিনের ব্যবধানে মৃত্যু বাড়ল ২ হাজার, শনাক্ত ৪ লাখের বেশি

    ফেরিটি হেলে গেছে, ডুবে যায়নি: নৌপরিবহন মন্ত্রণালয়

    সুখবর

    ভুলে যাওয়া লটারি থেকে ২০ মিলিয়ন ডলারের মালিক