মঙ্গলবার, ১৯ অক্টোবর ২০২১

সেকশন

 

পিঠাপিঠি ভাইবোনের ঝগড়াবিবাদ

আপডেট : ১৩ অক্টোবর ২০২১, ০৯:৪৪

ইজানা নিয়াফ রাইলিন ও হোসেন রাইফ ওয়াদিদ। ছবি: আজকের পত্রিকা ভাইবোনের বয়স কাছাকাছি হলে তাদের মধ্যে ভালোবাসা, অন্তরঙ্গতা যেমন বেশি হয়, ঠিক তেমনি ঝগড়া, কথা-কাটাকাটি, মারামারিও কম হয় না। পিঠাপিঠি ভাইবোনের সম্পর্কে টানাপোড়েন অনেক সময় দ্বিতীয় সন্তান জন্মের পরপরই শুরু হয়। সেটা পুরো শৈশব-কৈশোরজুড়েই চলতে থাকে। এ বিষয়টি মা-বাবার জন্য মধুর সমস্যা হয়ে দাঁড়ায়।  

ভাইবোনের দ্বন্দ্বের কারণ

  • প্রতিটি শিশুই নিজেকে একজন স্বতন্ত্র ব্যক্তি হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করতে চায়। তার এই চাওয়া পরিপূর্ণ না হলে সে তার সমবয়সী ভাইবোনের সঙ্গে সংঘাতে জড়িয়ে পড়ে।
  • একটি শিশু তার ও তার ভাইবোনের প্রতি মা-বাবার ভালোবাসা, আদরযত্ন, প্রতিক্রিয়ায় অসমতা লক্ষ করলে বিরূপ মনোভাবের সৃষ্টি হতে পারে।
  • নতুন শিশুর আগমনে প্রথম শিশুটি মনে করতে পারে বাবা-মায়ের সঙ্গে তার সম্পর্ক হুমকির মুখে পড়তে যাচ্ছে। এ নিরাপত্তাহীনতা থেকে সে ভাইবোনের সঙ্গে ঝগড়াঝাঁটি করে।
  • একটি শিশুর মানসিক বিকাশ যদি সঠিকভাবে প্রসারিত না হয়, তবে সে ইতিবাচকভাবে ভাইবোনের সঙ্গে মিশতে, খেলাধুলা করতে সক্ষম নাও হতে পারে।
  • যেসব পরিবারে বাবা-মায়ের মধ্যে বৈরী সম্পর্ক থাকে, সে পরিবারে শিশুদের ঝগড়া-বিবাদে লিপ্ত হতে দেখা যায়।

দ্বন্দ্ব মেটাবেন যেভাবে

  • প্রথমত পক্ষপাতিত্ব করা থেকে বিরত থাকুন। দুজনের প্রতি সমান ভালোবাসা প্রকাশ করুন।
  • কোনো কিছু কিনলে দুজনের মধ্যে সমানভাবে ভাগ করে দেওয়ার চেষ্টা করুন। তা না হলে একজনের মনে অন্য জনের প্রতি ক্ষোভ জমতে পারে।
  • এক সন্তানের সঙ্গে অন্য সন্তানের তুলনা করবেন না। প্রতিটি শিশুর স্বকীয়তা, প্রতিভা ও মেধার মূল্য দিন। কারও সাফল্য ছোট করে দেখবেন না।
    কাছাকাছি বয়সী ভাইবোনদের নিজেদের মধ্যে প্রতিযোগিতাপূর্ণ মনোভাব নিরুৎসাহিত করুন। বরং একে অপরকে কীভাবে সহযোগিতা করতে পারে তা দেখিয়ে দিন।
  • একজন সন্তান কীভাবে অন্য সন্তানের সঙ্গে ইতিবাচকভাবে খেলবে তা দেখিয়ে দিন। খেলনা ভাগাভাগি করা শেখান।
  • ভাইবোন ছাড়া অন্যান্য বন্ধুবান্ধবদের সঙ্গেও শিশুদের মিশতে দিন। এতে শিশু নিজেকে চিনতে ও বুঝতে পারে যা ভাইবোনের সঙ্গে সংঘাত এড়ানোর জন্য প্রয়োজন।
  • পরিবারের সবাই একসঙ্গে আনন্দময় সময় কাটান। পরিবারের সঙ্গে কাটানো মধুর স্মৃতি, নিজেদের মধ্যকার দ্বন্দ্ব মেটাতে পিঠাপিঠি ভাইবোনকে সাহায্য করবে।

শিশুদের আবেগের তীব্রতা বেশি থাকে। এ জন্য তাদের একে-অপরের প্রতি মান-অভিমানের প্রকাশও বেশি হয়। তাই ছোট থেকেই পিঠাপিঠি ভাইবোনের সম্পর্ক দেখভাল ও যত্ন নেওয়া অত্যন্ত জরুরি।

লেখক: সহকারী অধ্যাপক, মনোরোগ বিভাগ, ইউনিভার্সেল মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল

মন্তব্য

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।
Show
 
    সব মন্তব্য

    ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

    এলাকার খবর

    মান যাচাই ছাড়াই বাজারে চিকিৎসা সরঞ্জাম

    পিত্তথলিতে পাথর

    প্রো-অ্যাকটিভ হাসপাতালে চক্ষু ইউনিটের উদ্বোধন

    এ এইচ এম হাবিবুর রহমান ভূঁইয়ার দায়িত্ব গ্রহণ

    কাউখালীতে অগ্নিকাণ্ডে ৯ ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান ও ৩ বসতঘর পুড়ে ছাই 

    সহিংসতায় জড়িতদের ধরতে প্রধানমন্ত্রীর কড়া নির্দেশ 

    ইউরোপীয় পরাশক্তিদের চোখ রাঙাচ্ছে ‘পুঁচকেরা’

    কবি ফররুখ আহমদের নামে ঢাকায় রাস্তার নামকরণের দাবি

    শিবগঞ্জ সীমান্ত থেকে কোটি টাকার ইয়াবা উদ্ধার