রোববার, ১৭ অক্টোবর ২০২১

সেকশন

 

২৪ ঘণ্টায় মনোনয়ন বদল

আপডেট : ১২ অক্টোবর ২০২১, ১২:৪৯

মেহেরপুরের মহাজনপুর ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগের মনোনয়নে ২৪ ঘণ্টায় দুবার সিদ্ধান্ত পরিবর্তন হওয়ায় এলাকায় তোলপাড়ের সৃষ্টি হয়েছে। যে দুজন প্রার্থীকে ঘিরে ঘটনাটি ঘটেছে, তাঁরা হলেন বর্তমান চেয়ারম্যান আমাম হোসেন মিলু ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি রেজাউর রহমান নান্নু।

এদিকে দুই দিনে দুজনকে মনোনয়ন দেওয়ার সংবাদে এলাকায় দুই পক্ষের মধ্যে পাল্টাপাল্টি সংঘর্ষ, মিষ্টি বিতরণ ও আনন্দ মিছিল হয়েছে। মনোনয়ন নিয়ে দুই পক্ষের কর্মীরাই এই ঘটনার জন্য কেন্দ্রের অসতর্কতা ও অসততাকে দায়ী করেছেন।

স্থানীয় পর্যায়ের নেতারা জানান, গত শুক্রবার ছিল মেহেরপুরের মহাজনপুর ইউপি চেয়ারম্যান পদপ্রার্থীদের শুনানির দিন। প্রধানমন্ত্রীর সরকারি বাসভবন গণভবনে আওয়ামী লীগের সংসদীয় মনোনয়ন বোর্ড ও স্থানীয় সরকার জনপ্রতিনিধি মনোনয়ন বোর্ডের যৌথসভা হয়। সেখানে গিয়ে মনোনয়ন কেনা প্রতিটি প্রার্থী কেন্দ্রীয় মনোনয়ন বোর্ডের সামনে তাঁদের বক্তব্য উপস্থাপন করেন।

গত শুক্রবার রাত ৮টায় খবর আসে দলীয় মনোনয়ন পেয়েছেন রেজাউর রহমান নান্নু। এই খবর পেয়ে রাত ৯টার দিকে স্থানীয় নেতা-কর্মীরা মিষ্টিমুখ, উল্লাস মিছিল, মোটরসাইকেল শোভাযাত্রা বের করেন।

৩০ মিনিটের ব্যবধানে খবর আসে নান্নু নয়, মনোনয়ন পেয়েছেন আমাম হোসেন মিলু। মুহূর্তেই সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়ে খবরটি।

জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রীসহ দলের একাংশের নেতারা ধন্যবাদ ও অভিনন্দন জানিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট ও স্ট্যাটাস দেন। এই দেখে মিলু সমর্থকেরা ওই গ্রামে পাল্টা মিষ্টিমুখ, আনন্দ মিছিল, মোটরসাইকেল মহড়া দিয়ে শুরু করলে দুই পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এ সময় দুটি মোটরসাইকেল ভাঙচুর করা হয়। উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে পুরো ইউনিয়নে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রাতেই গ্রামে পুলিশ মোতায়েন করা হয়।

মুজিবনগর থানার ওসি আবুল হাশেম আলী জানান, পাল্টাপাল্টি কর্মসূচি শুরু হলে এই উত্তেজনার সৃষ্টি হয়। দুটি মোটরসাইকেল ভাঙচুর হয়েছে। পুলিশ তাৎক্ষণিকভাবে ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ নেয়। কোনো পক্ষ অভিযোগ না করায় পুলিশ কারও বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়নি।

এক দিন পর রোববার একই সময় দৃশ্যপট আবার বদলায়। খবর আসে আমাম হোসেন মিলু নয়, মনোনয়ন পেয়েছেন রেজাউর রহমান নান্নু। শুরু হয় একপক্ষের আবার মিষ্টি খাওয়া, উল্লাস মিছিল। অন্যপক্ষ আবার হতাশা নিয়ে ঘরে ফিরে যায়। ঘটনার আকস্মিকতায় থমকে যায়, হতাশ ও ক্ষুব্ধ হয় এলাকার সাধারণ নেতা-কর্মীরা। এবার সোশ্যাল মিডিয়াতে আসে পাল্টা সংশোধনী তালিকা।

দলটির দপ্তর সম্পাদক ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া স্বাক্ষরিত সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, শুক্রবার মনোনয়ন বোর্ডের সিদ্ধান্তে রেজাউর রহমানের মনোনয়ন চূড়ান্ত করা হয়। কিন্তু ওইদিন প্রকাশিত তালিকায় ভুল করে মুজিবনগর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও মহাজনপুর ইউনিয়ন পরিষদের বর্তমান চেয়ারম্যান আমাম হোসেন মিলুর নাম আসে। বিষয়টি নজরে আসায় সেই মনোনয়ন পরিবর্তন করে পুনরায় মেহেরপুরের মহাজনপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি মো. রেজাউর রহমানকে মনোনয়ন দেওয়া হয়েছে। এটাই চূড়ান্ত।

মেহেরপুর জেলা আওয়ামী লীগের তথ্য ও গবেষণাবিষয়ক সম্পাদক আবদুল মান্নান প্রতিক্রিয়া জানিয়ে বলেন, একটি মহলের কুপরামর্শে দলীয় প্রধানের চোখ ফাঁকি দিয়ে মনোনয়ন পাল্টানো হয়েছিল। তদন্ত করে এই ঘটনায় জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক সাজার আওতায় আনা উচিত।

মন্তব্য

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।
Show
 
    সব মন্তব্য

    ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

    এলাকার খবর

    খেতের পেঁপে খেতেই নষ্ট

    ২১ হাজারে চিকিৎসক ১

    নিজ ক্যাম্পাসে ভর্তি পরীক্ষা শুরু আজ

    ৫৭৮ দিন পর খুলল রাবির আবাসিক হল

    চট্টগ্রাম কমনওয়েলথ যুদ্ধ সমাধিতে শ্রদ্ধা জানিয়েছে ভারত

    দেড় বছর পর শ্রেণিকক্ষে ফিরল ঢাবি শিক্ষার্থীরা

    অনেক কিছু দেখছি, প্রমাণের অপেক্ষায় আছি: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

    মেসিকে ছুঁলেন ছেত্রী

    সরকারি চাকরি

    ২২ অক্টোবর একদিনেই ১৭টি চাকরির পরীক্ষা