বুধবার, ২৭ অক্টোবর ২০২১

সেকশন

 

চীনের শানসিতে বন্যায় প্রায় ২০ লাখ মানুষ বাস্তুচ্যুত

আপডেট : ১১ অক্টোবর ২০২১, ১৬:০৬

ভারী বৃষ্টির কারণে অনেক বাড়িতে পানি উঠেছে। ছবি: সংগৃহীত চীনের উত্তরাঞ্চলের শানসি প্রদেশে বন্যায় ১৮ লাখেরও বেশি মানুষ বাস্তুচ্যুত হয়েছে। গত সপ্তাহের প্রবল বৃষ্টিতে প্রদেশের ৭০ টিরও বেশি জেলা ও শহর জুড়ে অনেক ঘরবাড়ি ভেঙে পড়ে এবং ভূমিধসের সৃষ্টি হয়। চীনের স্থানীয় গণমাধ্যমের খবরে এই তথ্য জানানো হয়েছে। 

চীনের আবহাওয়া প্রশাসন বলছে, ভারী ও দীর্ঘস্থায়ী বৃষ্টিপাতের কারণে উদ্ধার অভিযান ব্যাহত হচ্ছে। এ ছাড়া ভারী বৃষ্টিপাতের ফলে প্রদেশের প্রাচীন স্মৃতিস্তম্ভ সংবলিত কয়েকটি বাড়িও ঝুঁকির মধ্যে রয়েছে। 

চীনের সিনহুয়া নিউজ এজেন্সিকে কর্মকর্তারা বলেছেন, ১ লাখ ২০ হাজারেরও বেশি মানুষকে নিরাপদ স্থানে সরিয়ে নেওয়া হয়েছে। এ ছাড়া প্রায় ১৭ হাজার বাড়ি বন্যার কারণে ধসে পড়েছে। 

গ্লোবাল টাইমসের বরাত দিয়ে বিবিসি বলেছে, ভূমিধসে ৪ জন পুলিশ কর্মকর্তা মারা গেছেন। তবে অন্যান্য হতাহতের খবর এখনো প্রকাশ করা হয়নি। এ ছাড়া বলা হয়েছে, চলতি বছরের শুরুর দিকে হেনান প্রদেশে হওয়া বন্যায় ৩০০ জন মারা যান। শানসির বন্যা তাঁর চেয়ে আরও বেশি খারাপ রূপ নিতে পারে। 

শানজি চীনের একটি প্রধান কয়লা উৎপাদনকারী প্রদেশ। ভারী বৃষ্টি এবং বন্যার ফলে চীন সরকার খনি থেকে কয়লা উত্তোলন এবং রাসায়নিক কারখানার কার্যক্রম বন্ধ করে দিতে বাধ্য হয়।

মন্তব্য

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।
Show
 
    সব মন্তব্য

    ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

    এলাকার খবর

    গৃহযুদ্ধ এড়াতেই সুদানের সেনা অভ্যুত্থান: জেনারেল বুরহান 

    বিশ্বে এক দিনের ব্যবধানে মৃত্যু বাড়ল ২ হাজার, শনাক্ত ৪ লাখের বেশি

    সুখবর

    ভুলে যাওয়া লটারি থেকে ২০ মিলিয়ন ডলারের মালিক

    মিয়ানমারের চলমান সহিংসতার নিন্দায় বাইডেন 

    করোনা সংকট শেষ হতে এখনো বহু বাকি: বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা 

    হুমকিতে এশিয়ার টেকসই উন্নয়ন

    বনানীতে ভবনে লাগা আগুন নিয়ন্ত্রণে

    চাটখিলে বয়লার মুরগির দাম বৃদ্ধি, বিপাকে ক্রেতারা 

    গৃহযুদ্ধ এড়াতেই সুদানের সেনা অভ্যুত্থান: জেনারেল বুরহান 

    বিশ্বে এক দিনের ব্যবধানে মৃত্যু বাড়ল ২ হাজার, শনাক্ত ৪ লাখের বেশি

    ফেরিটি হেলে গেছে, ডুবে যায়নি: নৌপরিবহন মন্ত্রণালয়

    সুখবর

    ভুলে যাওয়া লটারি থেকে ২০ মিলিয়ন ডলারের মালিক