বুধবার, ২০ অক্টোবর ২০২১

সেকশন

 

ভেঙে পড়ল বিদ্যুতের ৮ খুঁটি

আপডেট : ১১ অক্টোবর ২০২১, ১৫:৩২

মির্জাপুর বাইপাস মহাসড়কে ভেঙে পড়া পল্লী বিদ্যুতের খুঁটি। ছবি:  আজকের পত্রিকা ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কের মির্জাপুর বাইপাস মহাসড়ক এলাকায় পল্লীবিদ্যুতের আটটি খুঁটি ভেঙে পড়েছে। গত শনিবার রাত ১টার দিকে বিদ্যুতের খুঁটি ভেঙে পড়ে। ওই এলাকায় পানিনিষ্কাশনে ড্রেনেজব্যবস্থা নির্মাণের জন্য খুঁটির গোড়া থেকে মাটি সরিয়ে নিলে খুঁটিগুলো ভেঙে পড়ে। এ ঘটনায় কারও আহত হওয়ার খবর পাওয়া যায়নি। তবে বন্ধ রয়েছে বিদ্যুৎ সরবরাহ। বিকল্প উপায়ে বিদ্যুৎ সরবরাহের ব্যবস্থা করা হবে বলে জানানো হয়েছে পল্লীবিদ্যুৎ সমিতির পক্ষ থেকে।

স্থানীয়রা জানান, মির্জাপুর বাইপাস এলাকায় ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়ক ছয় লেনে উন্নীতকরণের কাজ শেষ হয়েছে। মহাসড়কে কাজ করায় বংশাই রোড এলাকায় ড্রেনেজব্যবস্থা বন্ধ হয়ে যায়। ফলে একটু বৃষ্টি হলেই বংশাই রোডে হাঁটুপানি জমে যায়। জলাবদ্ধতা দূর করতে ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়ক উন্নীতকরণ প্রকল্পের অধীনে বংশাই রোডের ড্রেনেজব্যবস্থা নির্মাণকাজ শুরু হয়। গত শুক্রবার ওই এলাকা থেকে বারোখালী নদী পর্যন্ত ভেকু মেশিন দিয়ে মাটি কাটার কাজ শুরু হয়। এ সময় সড়কের পাশে সারি সারি পল্লীবিদ্যুতের খুঁটির গোড়া থেকেও মাটি সরিয়ে নেওয়া হয়। শনিবার রাত ১টার দিকে আটটি খুঁটি হঠাৎ করেই ভেঙে পড়ে। রাত থেকে ওই এলাকা বিদ্যুৎ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়ে। খবর পেয়ে পল্লীবিদ্যুৎ ও ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের লোকজন রাতেই ঘটনাস্থলে আসেন। পল্লীবিদ্যুৎ সমিতি বিদ্যুতের লাইন বন্ধ করে দেয়।

বংশাই এলাকার বাসিন্দা মাসুদ মিয়া বলেন, ‘রাত ১টার দিকে হঠাৎ বিকট শব্দ হয়ে বিদ্যুৎ বন্ধ হয়ে যায়। বাইরে এসে দেখি, অনেকগুলো বিদ্যুতের খুঁটি ভেঙে পড়েছে। গত শুক্র ও শনিবার ড্রেন নির্মাণের জন্য পল্লীবিদ্যুতের খুঁটির গোড়া থেকে মাটি কেটে নেওয়া হয়। তখন ভেকু অপারেটর কোম্পানির ফোরম্যানকে এভাবে মাটি না কাটার জন্য বলা হয়। কিন্তু তিনি আমাদের কোনো কথা শোনেননি; বরং আমাদের বকাঝকা করেন।’

বাওয়ার কুমারজানী গ্রামের শাফিকুল ইসলাম বলেন, ‘যেভাবে খুঁটির গোড়া থেকে মাটি সরিয়ে নেওয়া হয়েছে, তাতে খুঁটিগুলো ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে পড়ে। কিন্তু ইঞ্জিনিয়ার বা ফোরম্যান বিষয়টা কেন বুঝলেন না তা আমাদের মাথায় আসছে না। কোম্পানির ইঞ্জিনিয়ার ও ফোরম্যান অদক্ষ বলে এ দুর্ঘটনা ঘটেছে।’

টাঙ্গাইল পল্লীবিদ্যুৎ সমিতির ডেপুটি জেনারেল ম্যানেজার (কারিগরি) আবু সাইম বলেন, ‘মহাসড়কের পাশে ড্রেনেজব্যবস্থা নির্মাণের জন্য মাটি কাটা হয়েছে। ফলে খুঁটি ভেঙে পড়েছে। আমরা দ্রুত বিকল্পভাবে বিদ্যুৎ-সংযোগ দেওয়ার ব্যবস্থা করব।’

এ ব্যাপারে ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান আবদুল মোনায়েম কোম্পানির কর্মকর্তাদের সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও কাউকে পাওয়া যায়নি। ভেঙে পড়া খুঁটি সরিয়ে নিতে কোম্পানির বড় একটি হাইড্রোলিক ক্রেন ওই এলাকায় এসে পৌঁছেছে।

মন্তব্য

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।
Show
 
    সব মন্তব্য

    ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

    এলাকার খবর

    ১৩ চেয়ারম্যান প্রার্থীর মনোনয়নপত্র জমা

    বিলপাড়ার সুস্বাদু চমচম

    ভেড়ামারায় গৃহবধূর ধর্ষণ মামলায় ‘মামা শ্বশুর’ গ্রেপ্তার

    বিয়ের দাবিতে প্রেমিকের বাড়িতে প্রেমিকার অনশন

    নিখোঁজ নয় পরিকল্পিত আত্মগোপনের নাটক করেছিলেন ভাঙ্গারি ব্যবসায়ী

    কলিন পাওয়েল বিশ্বাসঘাতক: ট্রাম্প

    টেক্সাসে উড্ডয়নের পরই উড়োজাহাজ বিধ্বস্ত

    নৌকার এমপি হয়ে লাভবান হয়েছেন: শাহজাহানকে জেলা আ. লীগ সভাপতি