বৃহস্পতিবার, ২১ অক্টোবর ২০২১

সেকশন

 

মুখে অ্যাসিড ঢেলে পানিতে চুবিয়ে বড় ভাইকে হত্যা করেন রিপন

আপডেট : ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২৩:৩৬

প্রতীকী ছবি ঘটনার প্রায় ৫২ দিন পর চা দোকানি স্বপন মিয়ার মৃত্যু রহস্য উদ্ঘাটন করেছে পুলিশ। ছোট ভাই রিপন মিয়ার স্ত্রীর সঙ্গে পরকীয়া এবং জায়গা জমি নিয়ে বিরোধের জেরে খুন হন স্বপন। হত্যার পরিকল্পনা করেন রিপন নিজেই। ঘটনার তারিখ রাত ১১টার দিকে বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে প্রথমে মুখে অ্যাসিড ঢেলে পরে পানিতে চুবিয়ে হত্যা করা হয়। এ হত্যাকাণ্ডে রিপনকে সহযোগিতা করেন আরও কয়েকজন। পরে রিপন নিজেই বাদী হয়ে মামলা করেন। 

আজ শনিবার দুপুরে আদালতে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দিতে এসব কথা স্বীকার করেন রিপন মিয়া। এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন হত্যা মামলার তদন্ত কর্মকর্তা পিবিআইয়ের পুলিশ পরিদর্শক মো. শাকুরুল হক খান। 

জানা যায়, গত ২৮ জুলাই উপজেলার শিমুলকান্দি ইউনিয়নের চানপুরে স্বপন মিয়া (৩৭) নামের এক চা দোকানি নিখোঁজ হন। দুদিন পর একটি খাল থেকে তাঁর মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। পরদিন এই ঘটনায় নিহতের ছোট ভাই রিপন মিয়া বাদী হয়ে তিনজনকে আসামি করে ভৈরব থানায় হত্যা মামলা করেন। 

এ ঘটনায় পুলিশ তিনজনকেই গ্রেপ্তার করে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠায়। পরে মামলাটির তদন্তভার দেওয়া হয় কিশোরগঞ্জ পিবিআইকে। দেড় মাস তদন্ত শেষে পিবিআইয়ের তদন্তে বেরিয়ে আসে স্বপনকে তাঁরই সহোদর রিপন মিয়া হত্যা করেছেন। 

গতকাল শুক্রবার বিকেলে রিপনকে তাঁর বাড়ি থেকে গ্রেপ্তার করে পিবিআই। আজ দুপুরে কিশোরগঞ্জ আদালতে জবানবন্দিতে তিনি খুনের দায় স্বীকার করেন। আদালতের বিচারক সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মো. শহীদুল হক তাঁর স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি গ্রহণ করেন। 

পিবিআই সূত্র আজকের পত্রিকাকে জানায়, রিপন তাঁর জবানবন্দিতে বলেছেন, বড় ভাই স্বপন তাঁর স্ত্রীর সঙ্গে পরকীয়ায় জড়িত ছিলেন। এ ছাড়া জায়গাজমি নিয়ে দুজনের মধ্যে অনেক দিন ধরেই বিরোধ চলছিল। এর জেরেই গত ২৬ জুলাই রাতে বড় ভাই স্বপনকে হত্যার পরিকল্পনা করেন রিপন। ঘটনার রাতে ভাইকে বাড়ি থেকে ডেকে বাড়ির পাশের একটি খালের কাছে নিয়ে যান। সেখানে নিয়ে তিনি ভাইয়ের মুখে অ্যাসিড ঢেলে দেন। এ সময় তাঁকে সহায়তা করে আরও কয়েকজন। স্বপন চিৎকার চেঁচামেচি শুরু করলে তাঁকে পানিতে ডুবিয়ে হত্যা করা হয়।

ঘটনার দুদিন পর খবর পেয়ে ভৈরব থানা-পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে মরদেহ উদ্ধার করে।

কিশোরগঞ্জ পিবিআইয়ের পুলিশ পরিদর্শক মো. সাকুরুল হক খান বলেন, মামলাটি তদন্ত করতে গিয়ে দেখি বাদী রিপন মিয়াই তাঁর বড় ভাই স্বপনকে হত্যা করেছেন। অবশেষে শুক্রবার বিকেলে কৌশলে তাঁকে বাড়ি থেকে গ্রেপ্তার করতে সক্ষম হয় পিবিআই। 

মন্তব্য

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।
Show
 
    সব মন্তব্য

    ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

    এলাকার খবর

    বিয়ের প্রলোভনে ধর্ষণ ও ভিডিও ছড়িয়ে দেওয়ার অভিযোগ

    সিদ্ধিরগঞ্জে 'ভুয়া' চিকিৎসক আটক

    মাধবপুরে ভিমরুলের কামড়ে ১০ দিন পর মৃত্যু

    গ্রেপ্তার ও বিচারের দাবি জানালেন সেই ইকবালের মা

    বিদ্যুতের খুঁটি থেকে পড়ে শ্রমিকের মৃত্যু

    মডার্না ও জনসনের বুস্টার ডোজের অনুমোদন দিল যুক্তরাষ্ট্র

    বিয়ের প্রলোভনে ধর্ষণ ও ভিডিও ছড়িয়ে দেওয়ার অভিযোগ

    সিদ্ধিরগঞ্জে 'ভুয়া' চিকিৎসক আটক

    মাধবপুরে ভিমরুলের কামড়ে ১০ দিন পর মৃত্যু

    ধর্মান্ধ রাজনীতির বলি হচ্ছে সংখ্যালঘুরা: জাফরউল্লাহ চৌধুরী

    সাম্প্রদায়িক অপশক্তির বিরুদ্ধে সামাজিক প্রতিরোধ গড়ে তুলতে হবে: শিক্ষামন্ত্রী