বৃহস্পতিবার, ২১ অক্টোবর ২০২১

সেকশন

 

কানাডায় উচ্চশিক্ষার আবেদনে অযোগ্যদের তালিকায় কুবির নাম নিয়ে বিভ্রান্তি

আপডেট : ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২০:১৫

কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়। ছবি: আজকের পত্রিকা সম্প্রতি কানাডায় উচ্চশিক্ষার আবেদনে অযোগ্য হিসেবে বাংলাদেশের ৩৩টি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের নাম প্রকাশ কর হয়েছে। ইন্টারন্যাশনাল ক্রেডেনশিয়াল ইভালুয়েশন সার্ভিসের (আইসিইএস) ওয়েবসাইটে এসব নাম দেখা যাচ্ছে। প্রকাশিত এই তালিকায় বিভিন্ন বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের পাশাপাশি রয়েছে কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের নাম। একাধিক গণমাধ্যমেও এ তালিকা এসেছে। এ নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের (কুবি) শিক্ষার্থীরা।

এ দিকে আইসিইএসের এই তালিকা নিয়ে কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ও বর্তমান শিক্ষার্থীরা কিছুটা বিভ্রান্ত।

শিক্ষার্থীরা দাবি করছেন, দা ইউনিভার্সিটি অব কুমিল্লা নামে ঢাকা উত্তরায় অবস্থিত একটি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় রয়েছে। এটি বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনে (ইউজিসি) নিবন্ধিত নয়। সেটির জায়গায় ওয়েবসাইটে কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের নাম দেওয়া হয়েছে।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সম্প্রতি নৃবিজ্ঞান বিভাগের প্রভাষক ইসরাত জাহান লিপাসহ বেশ কয়েকজন শিক্ষার্থী কানাডায় উচ্চশিক্ষা গ্রহণের জন্য গেছেন।

এ নিয়ে বর্তমানে কানাডায় অবস্থানরত কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের কম্পিউটার সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের সাবেক শিক্ষার্থী মেরি রোকাইয়া বলেন, ‘আমি তো কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে অনার্স, মাস্টার্স শেষ করে কানাডায় একটা পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে ২০১৯ সালে অ্যাডমিশন পেলাম, সঙ্গে গত বছর কানাডা স্থায়ীভাবে বসবাসের সুযোগও পেয়েছি। কই আমার ডিগ্রি নিয়ে তো কোনো ঝামেলা করল না। আর আমার ডিগ্রি তো ডব্লিওইএস থেকে মূল্যায়ন করালাম। ওরা আমার ডিগ্রিকে ইন্টারন্যাশনাল লেভেলের মাস্টার্স হিসেবেই ধরেছে।’ 

এ বিষয়ে গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের শিক্ষার্থী সোহাগ মনি বলেন, এই তালিকায় একমাত্র পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় হিসেবে আমাদের বিশ্ববিদ্যালয়ের নাম রয়েছে, যা অবশ্যই অবমাননাকর। আর এটা বিভিন্ন গণমাধ্যমে ফলাও করে প্রচার হলেও, বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের নীরব ভূমিকা আমাদের উদ্বিগ্ন করছে, প্রশাসনের উচিত এই বিষয়ে বিবৃতি দেওয়া ও ব্যবস্থা নেওয়া যাতে বিভ্রান্তি দূর হয়।

আইন বিভাগের শিক্ষার্থী মো. তরিকুল ইসলাম বলেন, নাম নিয়ে শিক্ষার্থীদের মাঝে এক বিভ্রান্তি সৃষ্টি করছে। প্রশাসনের কাছে অনুরোধ ঢাকাতে অবস্থিত বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের নাম পরিবর্তন করার ক্ষেত্রে যেন যথাযথ পদক্ষেপ নেন। এভাবে চললে কুবি এক সময় আইডেন্টিটি ক্রাইসিসে ভুগবে। 

এ ব্যাপারে ইনস্টিটিউশনাল কোয়ালিটি ইনস্যুরেন্স সেলের (আইকিউএসি) পরিচালক অধ্যাপক ড. বিশ্বজিৎ চন্দ্র দেব বলেন, বিষয়টা আমার দৃষ্টিগোচর হয়েছে। আমি রেজিস্ট্রার স্যারকে জানিয়েছি। আমরা এটা নিয়ে প্রতিবাদ জানাব। 

বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার (অতিরিক্ত দায়িত্ব) অধ্যাপক ড. মো. আবু তাহের বলেন, এ নামটা আসলে আমাদের কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের না, এটা ঢাকার একটা বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের নাম। যেহেতু নাম ভুল করেছে, তাই আমরা জানাব-নাম ঠিক করার জন্য। আর যারা এটা ওয়েবসাইটটাতে প্রকাশ করেছে, আমরা লিখিতভাবে তাদের জানাব, এ নামটা একটি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের হবে। আর আমাদের কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয় যে নাম প্রকাশিত হয়েছে সেটি সরকারি বিশ্ববিদ্যালয়। 

তিনি আরও বলেন, আমার জানা মতে ওই বিশ্ববিদ্যালয় এখন নিষিদ্ধ। এরপরও যদি এটা কার্যক্রম চালায়, তাহলে ইউজিসির শরণাপন্ন হব। 

এ ব্যাপারে জানতে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. এমরান কবির চৌধুরীকে একাধিকবার ফোন করা হলেও তিনি জবাব দেননি। 

মন্তব্য

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।
Show
 
    সব মন্তব্য

    ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

    এলাকার খবর

    গ্রেপ্তার ও বিচারের দাবি জানালেন সেই ইকবালের মা

    বিদ্যুতের খুঁটি থেকে পড়ে শ্রমিকের মৃত্যু

    গোমস্তাপুরে অজ্ঞাত ব্যক্তিদের হামলায় দুধ বিক্রেতা নিহত

    আশুগঞ্জে সৎ মায়ের বিরুদ্ধে শিশু হত্যার অভিযোগ

    সাম্প্রদায়িক অপশক্তির বিরুদ্ধে সামাজিক প্রতিরোধ গড়ে তুলতে হবে: শিক্ষামন্ত্রী

    গ্রেপ্তার ও বিচারের দাবি জানালেন সেই ইকবালের মা

    সুপার টুয়েলভসের টিকিট পেল শ্রীলঙ্কা 

    বিদ্যুতের খুঁটি থেকে পড়ে শ্রমিকের মৃত্যু

    গোমস্তাপুরে অজ্ঞাত ব্যক্তিদের হামলায় দুধ বিক্রেতা নিহত

    আশুগঞ্জে সৎ মায়ের বিরুদ্ধে শিশু হত্যার অভিযোগ