মঙ্গলবার, ১৮ জুন ২০২৪

সেকশন

 

ফিলিস্তিন রাষ্ট্রকে স্বীকৃতি দিল ইউরোপের ৩ দেশ, এরপর কী

আপডেট : ২৮ মে ২০২৪, ১৯:২৮

ফিলিস্তিনকে স্বাধীন রাষ্ট্রের স্বীকৃতি দিয়েছে ইউরোপের তিন দেশ। ছবি: এআই দিয়ে তৈরি স্পেন, নরওয়ে ও আয়ারল্যান্ড আজ মঙ্গলবার আনুষ্ঠানিকভাবে ফিলিস্তিন রাষ্ট্রকে স্বীকৃতি দিয়েছে। বার্তা সংস্থার এপির প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ইসরায়েলের ওপর আন্তর্জাতিক চাপ বৃদ্ধির লক্ষ্যে তিনটি পশ্চিম ইউরোপীয় দেশ সমন্বিত প্রচেষ্টার অংশ হিসেবে ফিলিস্তিন রাষ্ট্রকে স্বীকৃতি দিয়েছে। 

ইসরায়েল এই কূটনৈতিক পদক্ষেপের নিন্দা জানিয়েছে। তেল আবিব বলেছে, এই স্বীকৃতি গাজায় সামরিক অভিযানের ওপর কোনো প্রভাব ফেলবে না। 

স্পেনের প্রধানমন্ত্রী পেদ্রো সানচেজ মাদ্রিদ থেকে জাতির উদ্দেশে টেলিভিশন ভাষণে বলেছেন, ‘এটি একটি ঐতিহাসিক সিদ্ধান্ত; যার একটি একক লক্ষ্য রয়েছে এবং তা হলো—ইসরায়েলি ও ফিলিস্তিনিদের মধ্যে শান্তি অর্জনে সহায়তা করা।’ 

ইসরায়েলের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ইসরায়েল কাৎজ এর তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়ায় এক্স হ্যান্ডলে স্পেনের সমালোচনা করে বলেছেন, সানচেজের সরকার ‘ইহুদিদের বিরুদ্ধে গণহত্যা এবং যুদ্ধাপরাধে উসকানিতে জড়িত’। 

স্পেনের পরপরই ফিলিস্তিনকে স্বীকৃতির ঘোষণা দিয়েছে আয়ারল্যান্ড ও নরওয়ে। অবশ্য দেশগুলো গত সপ্তাহেই যৌথভাবে ঘোষণা দিয়েছিল তারা ২৮ মে ফিলিস্তিনকে স্বীকৃতি দেবে। 

আজ ফিলিস্তিনকে স্বীকৃতির ঘোষণা দেওয়ার পর ডাবলিনে আইরিশ পার্লামেন্টের লেইনস্টার হাউসের বাইরে ফিলিস্তিনি পতাকা উত্তোলন করা হয়। 

আইরিশ প্রধানমন্ত্রী সাইমন হ্যারিস মন্ত্রিসভার বৈঠকের আগে বলেন, ‘এটি একটি গুরুত্বপূর্ণ মুহূর্ত এবং আমি মনে করি, এটি বিশ্বকে একটি বার্তা পাঠাবে যে এমন একটি বাস্তব পদক্ষেপ রয়েছে; যা একটি দেশ হিসেবে আপনি গ্রহণ করতে পারেন। এমন সিদ্ধান্ত একটি দ্বিরাষ্ট্রীয় সমাধানের আশা এবং গন্তব্যকে বাঁচিয়ে রাখতে সাহায্য করবে।’ 

নরওয়ের পররাষ্ট্রমন্ত্রী এসপেন বার্থ এইড এক বিবৃতিতে বলেছেন, ৩০ বছরেরও বেশি সময় ধরে, নরওয়ে ফিলিস্তিন রাষ্ট্রের অন্যতম শক্তিশালী সমর্থক। আজ নরওয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে ফিলিস্তিনকে রাষ্ট্র হিসেবে স্বীকৃতি দিয়েছে। এটি নরওয়ে ও ফিলিস্তিনের মধ্যকার সম্পর্কের ক্ষেত্রে একটি মাইলফলক। 

এ পর্যন্ত প্রায় ১৪০টি দেশ ফিলিস্তিন রাষ্ট্রকে স্বীকৃতি দিয়েছে। এই সংখ্যা জাতিসংঘের সদস্যদের দুই–তৃতীয়াংশেরও বেশি। তবে পশ্চিমের প্রধান শক্তিগুলো এখনো এমন কোনো পদক্ষেপ নেয়নি। যদিও সাম্প্রতিক সময়ে যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ডেভিড ক্যামেরন জানিয়েছেন, ফিলিস্তিনকে স্বীকৃতি দেওয়ার বিষয়ে চিন্তাভাবনা করছে তাঁর দেশ।

তবুও, এই তালিকায় তিনটি ইউরোপীয় যুক্ত হওয়ায় বিশ্বে ফিলিস্তিন রাষ্ট্রের স্বীকৃতি আদায়ের প্রচেষ্টায় একটি বিজয় হিসেবেই চিহ্নিত হচ্ছে। এই পদক্ষেপ ইউরোপীয় ইউনিয়নের হেভিওয়েট সদস্য ফ্রান্স ও জার্মানির ওপরও তাদের অবস্থান পুনর্বিবেচনা করতে চাপ তৈরি করবে বলে আশা করা হচ্ছে।

মন্তব্য

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।
Show
 
    সব মন্তব্য

    ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

    এলাকার খবর

     

    অভিবাসীকে গ্রিক কোস্টগার্ডের সমুদ্রে ছুড়ে ফেলার প্রমাণ পেল বিবিসি

    যুদ্ধকালীন মন্ত্রিসভা ভেঙে দিলেন নেতানিয়াহু

    রাশিয়া ইউক্রেন ত্যাগ করলে কালই শান্তি আলোচনা, বললেন জেলেনস্কি

    ইউক্রেন শান্তি সম্মেলনে যুদ্ধ বন্ধে সংলাপের আহ্বান 

    গাজাবাসীর ঈদ আনন্দ কেড়ে নিয়েছে ইসরায়েল 

    আল-আকসার ঈদের জামাতে ৪০ হাজার মুসল্লি 

    ছাগলের চামড়ার ‘নামমাত্র’ মূল্য, পড়ে আছে বাগানে

    রায়বেরেলি রেখে ওয়েনাড ছাড়ছেন রাহুল, প্রিয়াঙ্কাকে সংসদে আনার তোড়জোড়

    জুরাইনে কোরবানির গরুর মাংস বিক্রির হাট

    জাপান সফরের যাত্রাপথে প্লেন বিড়ম্বনায় নিউজিল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী

    সখীপুরে নিখোঁজের ১ দিন পর গৃহবধূর লাশ মিলল পুকুরে

    কারস্টেনকে কেন পাকিস্তানের চাকরি ছাড়তে বলছেন হরভজন