শনিবার, ১৫ জুন ২০২৪

সেকশন

 

সচিবালয়ে নতুন ভবনে ঠাঁই নিয়ে আমলাদের টানাটানি

আপডেট : ২৬ মে ২০২৪, ০৯:৫৩

 সচিবালয়ে ৪৬১ কোটি টাকা ব্যয়ে একটি বহুতল ভবন বানানো হচ্ছে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় ও মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের জন্য। ২০ তলা ভবনটিতে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের জন্য সাতটি ফ্লোর রাখা হলেও সংশ্লিষ্ট মন্ত্রী, সচিব এবং এপিডি উইংয়ের স্থান সংকুলান হবে না। মন্ত্রণালয়ের জন্য কোনো সভাকক্ষও রাখা হয়নি। এ অবস্থায় মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের জন্য নির্ধারিত ৯টি ফ্লোর থেকে একটি ছেড়ে দেওয়ার দাবি জানাচ্ছে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়। বিষয়টি নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে দেনদরবার চললেও কোনো সুরাহা হয়নি।

একাধিক সূত্রে জানা যায়, গত বৃহস্পতিবার বিকেলে উচ্চপর্যায়ের এক সভায় বিষয়টি নিয়ে আলোচনা করেও সমাধান পাওয়া যায়নি। জনপ্রশাসনমন্ত্রী ফরহাদ হোসেনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় অংশ নেন মন্ত্রিপরিষদ সচিব মো. মাহবুব হোসেন, জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের জ্যেষ্ঠ সচিব মোহাম্মদ মেজবাহ্ উদ্দিন চৌধুরী, মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের সচিব (সমন্বয় ও সংস্কার) মো. মাহমুদুল হোসাইন খান, গণপূর্তসচিব মো. নবীরুল ইসলাম, গণপূর্ত অধিদপ্তরের প্রধান 
প্রকৌশলী মোহাম্মদ শামীম আখতার ও প্রধান স্থপতি মীর মনজুরুর রহমান।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে গণপূর্তসচিব মো. নবীরুল ইসলাম আজকের পত্রিকাকে বলেন, ‘এখানে জটিলতার তেমন কিছু নেই। ফ্লোর কীভাবে ব্যবহার হবে তা নিয়ে সভা হয়েছে। এ বিষয়ে আমরা আরও চিন্তাভাবনা করছি।’

জানা যায়, ‘বাংলাদেশ সচিবালয়ে ২০ তলাবিশিষ্ট নতুন অফিস ভবন নির্মাণ’ প্রকল্পটি ২০১৮ সালের ৩০ অক্টোবর একনেক সভায় অনুমোদিত হয়। ৪৬১ কোটি ৩১ লাখ ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে এ প্রকল্পের আওতায় দুটি বেসমেন্টসহ ২০ তলা সুপার স্ট্রাকচারবিশিষ্ট অফিস ভবন নির্মাণকাজ আগামী ডিসেম্বরে শেষ হওয়ার কথা। দুটি বেসমেন্টে ৬৬টি গাড়ি পার্কিং, নিচতলা ও দোতলায় রিসেপশন লবি, লাউঞ্জ ও রক্ষণাবেক্ষণের জন্য অফিস, তিন ও চারতলায় প্রধানমন্ত্রীর দপ্তর (মন্ত্রিসভা বৈঠকের জন্য) থাকছে। মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের জন্য মোট ৯টি এবং জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের জন্য ৭টি ফ্লোর রাখা হয়েছে।

প্রকল্পসংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায়, ভবনের মোট আয়তন ৩ লাখ ৭৮ হাজার ৩১৯ বর্গফুট। সেখানে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ ৯টি ফ্লোরে ১ লাখ ৭২ হাজার ৭০৪ বর্গফুট আর জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় ৭টি ফ্লোরে ১ লাখ ২ হাজার ৫৭৪ বর্গফুট জায়গা পাচ্ছে। জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের জন্য নির্ধারণ স্থানে সংশ্লিষ্ট মন্ত্রী, সচিব, এপিডি উইংয়েরই অফিস কক্ষ স্থাপন সম্ভব হচ্ছে না। মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের চারটি সভাকক্ষ থাকলেও জনপ্রশাসনের মন্ত্রণালয়ের জন্য একটি সভাকক্ষও নেই। তাই সভাকক্ষসহ মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের একটি ফ্লোর জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় দাবি করছে। গত বৃহস্পতিবারের সভায়ও বিষয়টি নিয়ে আলোচনা হয়েছে।

সভায় উপস্থিত থাকা একাধিক সূত্রে জানা যায়, জনপ্রশাসনমন্ত্রী তাঁর মন্ত্রণালয়ের জন্য আরও কিছু জায়গা প্রয়োজন বলে যুক্তি দেখান এবং মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের জন্য নির্ধারিত জায়গা থেকে কিছুটা ছেড়ে দেওয়ার প্রস্তাব করেন। কিন্তু মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের পক্ষ থেকে জানানো হয়, তাদের জন্য রাখা জায়গায় কর্মকর্তা-কর্মচারীদের বসানোর বিষয়টি নিশ্চিত করতেই তারা হিমশিম খাচ্ছে। এ ছাড়া বিভাগের অধীনে থাকা আরেকটি সংস্থাকেও এখানে জায়গা দিতে হবে। তাই জায়গা ছাড়া সম্ভব হচ্ছে না।

সূত্রমতে, সভায় ঊর্ধ্বতন এক কর্মকর্তা বলেন, যাদের জন্য এ ভবন বানানো হলো, তাদের জায়গার বিষয়টি যদি নকশা প্রণয়নের সময় বিবেচনায় নেওয়া হতো তাহলে এ জটিলতা দেখা দিত না। তাই নকশায় ত্রুটি ছিল বলে ধরে নেওয়া যায়।

মন্তব্য

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।
Show
 
    সব মন্তব্য

    ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

    এলাকার খবর

     

    ৬ সচিবের দপ্তর বদল, দুই জনের পদোন্নতি

    গুঞ্জনের অবসান ঘটিয়ে প্রধানমন্ত্রীর প্রেস সচিব নাঈমুল ইসলাম খান

    ট্রেনে ঈদযাত্রা: দিনে টিকিটের চাহিদা ২ লাখ, বিক্রি ৩৩ হাজার

    দেশজুড়ে বেনজীর আহমেদের জমিদারি

    ঈদের পর সরকারি অফিস চলবে ৯টা-৫টা

    গরুর চামড়ার দাম নির্ধারণ: ঢাকায় প্রতি পিস ১২০০, বাইরে ১০০০ টাকা

    পশুর হাটে বিদ্যুতায়িত হয়ে মারা গেল দুটি গরু, শিশুসহ আহত খামারি

    ঢাকা–চট্টগ্রাম মহাসড়কে ২১ কিলোমিটারজুড়ে যানজট 

    জাপানি ব্যান্ডের মিউজিক ভিডিও নিয়ে আপত্তি, কোক স্টুডিও থেকে প্রত্যাহার

    ঘরে বসেই কোরবানির পশু কেনা যাবে নগদে

    ঈদের আগমুহূর্তে জমজমাট ওয়ালটন ফ্রিজের বিক্রি

    বিশ্বকাপ থেকে পাকিস্তানের বিদায়, সুপার এইটে যুক্তরাষ্ট্র