সোমবার, ১৭ জুন ২০২৪

সেকশন

 

মেয়েকে হত্যার পর কাঁথা দিয়ে লাশ লুকিয়ে রাখেন সৎমা

আপডেট : ২৩ মে ২০২৪, ০০:০৫

মিম আক্তার । ছবি: সংগৃহীত স্বামীর সঙ্গে ঝগড়ার করে স্বামীর প্রথম সংসারের শিশুকন্যাকে শ্বাসরোধে হত্যার অভিযোগ পাওয়া গেছে সৎমায়ের বিরুদ্ধে। পরে লাশ নিজ ঘরের সানসেটের ওপরে কাঁথা দিয়ে মুড়িয়ে লুকিয়ে রাখা হয়। দিনভর খোঁজাখুঁজির পর শিশুকন্যাকে না পেয়ে সৎমায়ের ঘরে লাশ দেখে পুলিশে খবর দেওয়া হয়। পরে আজ বুধবার সন্ধ্যায় শিশুর লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। এ ঘটনায় জড়িত সৎমা আয়না আক্তারকে (২৭) আটক করেছে পুলিশ। গাজীপুরের কালিয়াকৈর উপজেলার হরিণহাটি এলাকায় আজ বুধবার এ ঘটনা ঘটে। 

কালিয়াকৈর থানার উপপরিদর্শক (এসআই) জুয়েল বিশ্বাস বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। 

নিহত শিশুর নাম মিম আক্তার (৮)। সে সিরাজগঞ্জের বেলকুচি উপজেলার গাবামাসি গ্রামের সবুজ মিয়ার প্রথম সংসারের মেয়ে। সে পিতা-মাতার সঙ্গে কালিয়াকৈর উপজেলার হরিণহাটি এলাকার সোজাবর আলীর ভাড়া বাসায় থাকত। 
 
পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, সবুজ মিয়া উপজেলার হরিণহাটি এলাকার সোজাবর আলীর ৬তলা ভবনের তৃতীয় তলায় একটি কক্ষ ভাড়া করে প্রথম স্ত্রী নাজমা বেগমকে নিয়ে বসবাস করছিলেন। তিনি স্থানীয় একটি পোশাক তৈরি কারখানায় কাজ করেন। প্রায় দেড় বছর আগে সবুজ মিয়া আয়না আক্তার নামে এক মেয়েকে দ্বিতীয় বিয়ে করেন। বিয়ের পর সবুজ মিয়া দ্বিতীয় স্ত্রীকে একই ভবনের পঞ্চম তলায় আরেকটি কক্ষ ভাড়া নিয়ে সেখানে রাখেন। 

গত কয়েক দিন ধরে পারিবারিক বিষয় নিয়ে দ্বিতীয় স্ত্রীর সঙ্গে সবুজ মিয়ার ঝগড়া হয়। আজ বুধবার সকাল থেকে সবুজ মিয়ার প্রথম সংসারের মেয়ে মিম আক্তারকে খুঁজে পাওয়া যাচ্ছিল না। এলাকায় খোঁজাখুঁজি করে না পেয়ে মাইকিং শুরু করে। 

এত কিছুর মধ্যেও সকাল থেকে দ্বিতীয় স্ত্রী আয়নাকে দেখতে না পেয়ে একই ভবনের প্রতিবেশীরা আয়নার খোঁজ করেন। তারা আয়নার ঘরে গিয়ে দরজা বন্ধ করে ভেতরে আয়নাকে বসে থাকতে দেখেন। 

এতে এলাকাবাসীর সন্দেহ হলে প্রতিবেশীরা ডাকাডাকি করলে আয়না ঘরের দরজা খুলে দেন। পরে প্রতিবেশীরা তার ঘরের সানসেটের ওপরে কাঁথা দিয়ে মোড়ানো অবস্থায় শিশু মিমের লাশ দেখতে পেয়ে পুলিশে খবর দেয়। 

খবর পেয়ে কালিয়াকৈর থানা-পুলিশ নিহতের লাশ উদ্ধার করে গাজীপুর শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়েছে। এ ঘটনায় সৎমাকে আটক করা হয়েছে। 

কালিয়াকৈর থানার উপপরিদর্শক (এসআই) জুয়েল বিশ্বাস আজকের পত্রিকাকে বলেন, ‘প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে, স্বামীর সঙ্গে ঝগড়ার জের ধরে প্রথম স্ত্রীর ঘরের সন্তানকে শ্বাসরোধে হত্যা করা হয়েছে। শিশুটির গলায় আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। এ ঘটনায় আইনগত ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন।’

মন্তব্য

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।
Show
 
    সব মন্তব্য

    ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

    এলাকার খবর

     

    জুরাইনে কোরবানির গরুর মাংস বিক্রির হাট

    সখীপুরে নিখোঁজের ১ দিন পর গৃহবধূর লাশ মিলল পুকুরে

    সুন্দরবনে ১২০ বোতল কীটনাশকসহ নৌকা জব্দ

    ন্যায্যমূল্য না পেলে চামড়া ভারতে পাচারের শঙ্কা, সতর্ক অবস্থানে বিজিবি

    উত্তরে শতভাগ, দক্ষিণে ৭৫ শতাংশ কোরবানির বর্জ্য অপসারণ

    ঈদ উপলক্ষে শিক্ষার্থীদের খাসির মাংস ও পোলাও খাওয়াল জবি

    জুরাইনে কোরবানির গরুর মাংস বিক্রির হাট

    জাপান সফরের যাত্রাপথে প্লেন বিড়ম্বনায় নিউজিল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী

    সখীপুরে নিখোঁজের ১ দিন পর গৃহবধূর লাশ মিলল পুকুরে

    কারস্টেনকে কেন পাকিস্তানের চাকরি ছাড়তে বলছেন হরভজন

    সুন্দরবনে ১২০ বোতল কীটনাশকসহ নৌকা জব্দ

    ন্যায্যমূল্য না পেলে চামড়া ভারতে পাচারের শঙ্কা, সতর্ক অবস্থানে বিজিবি