শনিবার, ১৫ জুন ২০২৪

সেকশন

 

‘আ. লীগ নেতার পক্ষে কাজ না করায় বিএনপি নেতাকে দলীয় পদ থেকে অব্যাহতি’

আপডেট : ২১ মে ২০২৪, ১৯:২৩

সংবাদ সম্মেলনে এ বি এম কামরুজ্জামান শাকি। ছবি: সংগৃহীত উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগ নেতার পক্ষে কাজ না করায় দলীয় পদ থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন বগুড়ার শিবগঞ্জ ইউনিয়ন বিএনপির এক নেতা। আজ মঙ্গলবার সংবাদ সম্মেলন করে উপজেলা বিএনপির সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের বিরুদ্ধে এমন অভিযোগ করেছেন বিএনপি নেতা এ বি এম কামরুজ্জামান শাকি। তবে এ অভিযোগ অস্বীকার করেছেন উপজেলা বিএনপির সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক।

গতকাল সোমবার উপজেলা বিএনপির ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক আব্দুল ওহাব স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে শিবগঞ্জ সদর ইউনিয়ন বিএনপির সিনিয়র সহসভাপতি এ বি এম কামরুজ্জামান শাকিসহ ছয় নেতা-কর্মীকে দলীয় থেকে থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয়। ওই বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখ করা হয়, আসন্ন শিবগঞ্জ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে জড়িত থাকা ও সংগঠনের গঠনতন্ত্র লঙ্ঘন করায় ছয়জনকে দলীয় পদ থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে।

এ বি এম কামরুজ্জামান শাকি ছাড়া অব্যাহতিপ্রাপ্ত অন্য নেতা-কর্মীরা হলেন, মাঝিহট্ট ইউনিয়ন বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আকবর আলী তালুকদার, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মো. রানা, আটমুল ইউনিয়ন বিএনপির সহসভাপতি তৌহিদুল ইসলাম ঠান্ডা, শিবগঞ্জ ইউনিয়ন বিএনপির সদস্য আব্দুল মান্নান ও জাহিদ মণ্ডল।

এদিকে দলীয় পদ থেকে অব্যাহতির প্রতিবাদে আজ মঙ্গলবার শিবগঞ্জের মাঝপাড়া গ্রামের নিজ বাড়িতে সংবাদ সম্মেলন করেন শিবগঞ্জ ইউনিয়ন বিএনপির সহসভাপতি এ বি এম কামরুজ্জামান শাকি। এ সময় তিনি বলেন, ‘উপজেলা বিএনপির সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক চেয়েছিলেন আমি শিবগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মোস্তাফিজার রহমান মোস্তার পক্ষে ভোট করি। কিন্তু আমি তা করিনি। সে জন্যই তাঁরা আমাকে পদ থেকে অব্যাহতি দিয়েছেন। উপজেলা বিএনপি নেতারা দলকে ধ্বংস করতে চাচ্ছেন। অনেক বিএনপি নেতা আওয়ামী লীগের সভাপতি মোস্তাফিজার রহমান মোস্তার পক্ষে কাজ করছেন।’

শিবগঞ্জ উপজেলা বিএনপির ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক আব্দুল ওহাব বলেন, ‘আসন্ন উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে দল ভোট বর্জনের সিদ্ধান্ত নিয়েছে। কিন্তু বেশ কয়েকজন নেতা-কর্মী নির্বাচনী কার্যক্রমে অংশ নিয়েছেন। তাই দলীয় পদ থেকে তাঁদের অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে। আরও যদি কারও বিরুদ্ধে নির্বাচনী কার্যক্রমে অংশ নেওয়ার অভিযোগের সত্যতা পাওয়া যায়, তাহলে তাঁদের বিষয়ে দলীয় সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। আমরা কোনো প্রার্থীর পক্ষে অবস্থান নিইনি।’

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে শিবগঞ্জ উপজেলা বিএনপির সভাপতি মীর শাহে আলম আজকের পত্রিকাকে বলেন, ‘দলীয় পদ থেকে অব্যাহতি দেওয়ায় ওই নেতা এ ধরনের মন্তব্য করেছেন। আমরা সকল পর্যায়ের নেতা-কর্মীকে নির্বাচন বয়কট করার কথা স্পষ্টভাবে বলেছি। যে ছয়জনকে অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে, তাঁরা দুই প্রার্থীর প্রচারণায় অংশ নিয়েছিলেন।’

মন্তব্য

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।
Show
 
    সব মন্তব্য

    ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

    পঠিতসর্বশেষ

    এলাকার খবর

     

    ইংল্যান্ডপ্রবাসী তরুণীর ভিডিও ধারণ, যুবক গ্রেপ্তার

    পুলিশ কনস্টেবল মনিরুল হত্যা: রিমান্ড শেষে কারাগারে কাওছার 

    পাকুন্দিয়ায় ১০ মিনিটে ১১০টি চারা রোপণ করে বর্ষাকে বরণ 

    যশোরে ধর্ষণচেষ্টার মামলায় ১ জন গ্রেপ্তার

    সিলেটে ১১ ট্রাক ভারতীয় চিনি জব্দ

    রাজশাহীতে র‍্যাবের অভিযানে ২৪ জুয়াড়ি গ্রেপ্তার

    ছোট গরুর বিক্রি বেশি, দামও চড়া 

    কী ঘটেছিল তালেবানদের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ানো সেই নারীদের ভাগ্যে

    ঈদের ছুটিতে মহিলা সমিতির মঞ্চে প্রাঙ্গণেমোরের ‘অভিনেতা’

    ইংল্যান্ডপ্রবাসী তরুণীর ভিডিও ধারণ, যুবক গ্রেপ্তার

    সশস্ত্র সংগ্রামের পক্ষে অধিকাংশ ফিলিস্তিনি, বেড়েছে হামাসের সমর্থন: জরিপ 

    বিশ্বকাপের মাঝপথে বড় ধাক্কা খেল আফগানিস্তান