বৃহস্পতিবার, ২৮ অক্টোবর ২০২১

সেকশন

 

‘শিক্ষা খাত বৈষম্যের শিকার’

আপডেট : ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৪:১০

প্রতীকী ক্লাস নেন জাবি অধ্যাপক আনু মুহাম্মদ। ছবি: আজকের পত্রিকা দেশের শিক্ষা খাতে পর্যাপ্ত বরাদ্দ দেওয়া হয় না বলে অভিযোগ করেছেন জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের (জাবি) অর্থনীতি বিভাগের অধ্যাপক ড. আনু মুহাম্মদ। গতকাল বৃহস্পতিবার বিশ্ববিদ্যালয় খোলার দাবিতে অনুষ্ঠিত এক প্রতীকী ক্লাসে তিনি এ কথা বলেন।

গতকাল দুপুরে জাবির সমাজবিজ্ঞান অনুষদ ভবনের গ্যালারিতে ‘বাংলাদেশের উন্নয়নে শিক্ষা ও স্বাস্থ্য খাত’ শীর্ষক প্রতীকী ক্লাস নেন আনু মুহাম্মদ। এতে বিভিন্ন বিভাগের শিক্ষার্থীরা অংশ নেন।

প্রতীকী ক্লাসে আনু মুহাম্মদ বলেন, ‘একটি দেশের জিডিপির ছয় শতাংশ শিক্ষা খাতে বরাদ্দ থাকার কথা থাকলেও সে তুলনায় এ দেশে পর্যাপ্ত বরাদ্দ দেওয়া হয় না। পাশাপাশি নীতিগত কারণে আমাদের দেশে পাবলিক শিক্ষা ব্যবস্থা সঠিকভাবে গড়ে ওঠেনি। ফলে শিক্ষা খাতটি ক্রমাগত বাণিজ্যিকীকরণের দিকে চলে যাচ্ছে।’

জাবির এ অধ্যাপক বলেন, ‘দেশের প্রতিটি গ্রামে লাইব্রেরি হওয়া উচিত। অথচ আমাদের বই পড়ার জন্য এখানে ধাক্কাধাক্কি করতে হয়। বাংলাদেশে পুঁজিবাদ বাড়ছে। কিন্তু চিকিৎসা প্রাপ্তি নিশ্চিত হচ্ছে না। মানুষের কোনো রকম চিন্তাও এখানে নেই। কারণ তারা জানে না রাষ্ট্রের পক্ষ থেকে তাদের কী কী পাওয়া উচিত ছিল।’

প্রতীকী ক্লাস শেষে অধ্যাপক আনু মুহাম্মাদ বলেন, ‘অনেক আগেই স্কুল-কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয় খুলে দেওয়া উচিত ছিলে। পৃথিবীর বেশির ভাগ দেশেই খুলে দেওয়া হয়েছে। বাংলাদেশ কয়েকটা দেশের মধ্যে একটা, যেখানে এত দিন পর্যন্ত স্কুল-কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ ছিল।’

আনু মুহাম্মদ বলেন, ‘বিশ্ববিদ্যালয় এখন পর্যন্ত খুব ধীর গতিতে চলছে, খোলার ব্যাপারে আগেই কর্তৃপক্ষের আগ্রহী হওয়া উচিত ছিল। বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ থাকার পেছনে অনাগ্রহই প্রধান কারণ। অবিলম্বে বিশ্ববিদ্যালয় খুলে সশরীরে পাঠদান শুরু করা উচিত।’

এর আগে গত ২৬ আগস্ট একই দাবিতে দর্শন বিভাগের অধ্যাপক রায়হান রাইন একই দাবিতে প্রতীকী ক্লাস নেন। পরে ২৯ আগস্ট পরিবেশ বিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক জামাল উদ্দিন রুনু এবং ১২ সেপ্টেম্বর নৃবিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক মানস চৌধুরী প্রতীকী ক্লাস নিয়েছেন।

মন্তব্য

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।
Show
 
    সব মন্তব্য

    ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

    এলাকার খবর

    ভাঙা সেতু, ঝুঁকি নিয়ে পারাপার

    রুম্মান হত্যার বিচার দাবিতে মানববন্ধন

    যুবদলের ৪৩তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালিত

    শুল্ক কমানোর পরও চিনির বাজারে অস্থিরতা

    বিশেষ ক্যাম্পেইনের দ্বিতীয় ডোজ আজ

    পাকিস্তানে নিষিদ্ধ ইসলামি গোষ্ঠী টিএলপির সঙ্গে সংঘর্ষে ৪ পুলিশ নিহত, আহত দুই শতাধিক

    ডোপ টেস্ট রিপোর্ট যেন ভুয়া না হয়

    সেগুনবাগিচায় আবাসিক হোটেল থেকে ঢাবি ছাত্রের মরদেহ উদ্ধার

    রামেকের করোনা ইউনিটে ৫ জনের মৃত্যু