বৃহস্পতিবার, ২০ জুন ২০২৪

সেকশন

 

ডাকাতিকালে মূল্যবান জিনিসপত্র না পাওয়ায় কিশোরীকে দলবদ্ধ ধর্ষণ 

আপডেট : ২০ মে ২০২৪, ১৫:৪১

র‍্যাবের হাতে গ্রেপ্তার ব্যক্তিরা।  ছবি: আজকের পত্রিকা নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজারে ডাকাতির সময় মূল্যবান জিনিসপত্র না পাওয়ায় এক কিশোরীকে দলবদ্ধ ধর্ষণ করা হয়। এই ঘটনায় জড়িত চারজনকে গ্রেপ্তার করেছে র‍্যাব। গ্রেপ্তাররা হলেন আব্দুল্লাহ (২৪), তাঁর সহযোগী মতিন (৩৫), চাঁন মিয়া (২৮) ও আয়নাল (২৫)।

আজ সোমবার রাজধানীর কারওয়ান বাজারে র‍্যাব মিডিয়া সেন্টারে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে সংস্থাটির আইন ও গণমাধ্যম শাখার পরিচালক আরাফাত ইসলাম এ তথ্য জানান। গতকাল রোববার রাতে র‍্যাব সদর দপ্তরের গোয়েন্দা শাখা ও র‍্যাব-১১ অভিযান চালিয়ে নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজার থেকে তাঁদের গ্রেপ্তার করে।

র‍্যাবের আইন ও গণমাধ্যম শাখার পরিচালক আরাফাত ইসলাম বলেন, ‘১৫ মে রাত আড়াইটার দিকে নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজার এলাকায় ডাকাতির সময় কোনো মূল্যবান জিনিসপত্র না পেয়ে ১৭ বছরের এক কিশোরীকে ঘর থেকে তুলে নিয়ে তাঁরা ধর্ষণ করেন।’

এই ঘটনায় ভুক্তভোগী বাদী হয়ে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে আড়াইহাজার থানায় মামলা করে। তারপর র‍্যাবের পক্ষ থেকে গোয়েন্দা নজরদারি বাড়ানো হয়। এরই ধারাবাহিকতায় র‌্যাব সদর দপ্তরের গোয়েন্দা শাখা ও র‌্যাব-১১-এর একটি দল নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজার এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাঁদের গ্রেপ্তার করে। এ সময় তাঁদের কাছ থেকে ভিকটিমের মোবাইলসহ একটি দেশে তৈরি ওয়ান শুটার গান, একটি শাবল, একটি দা, দুটি রামদা ও ডাকাতির কাজে ব্যবহৃত সিএনজি উদ্ধার করা হয়েছে।

গ্রেপ্তারদের প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদের বরাত দিয়ে র‍্যাব মুখপাত্র বলেন, ‘তারা সংঘবদ্ধ একটি ডাকাত চক্র। চক্রের মূল হোতা আব্দুল্লাহ। এই চক্রে ১০-১২ জন সদস্য রয়েছেন। আব্দুল্লার নেতৃত্বে তাঁরা দুই বছর ধরে নারায়ণগঞ্জের বিভিন্ন এলাকায় ডাকাতি করে আসছিল।

সেদিনের ঘটনার বর্ণনা দিয়ে তিনি আরও বলেন, ‘রাত আড়াইটার দিকে ডাকাতির উদ্দেশ্যে ভুক্তভোগীর বাড়িতে যায় গ্রেপ্তাররা। সে সময় আব্দুল্লাহ ও মতিন ঘরের জানালা ভেঙে ঘরের ভেতরে ঢোকেন। তখন  ভুক্তভোগী ও তার মায়ের ঘুম ভেঙে গেলে তাঁরা ভয়ে চিৎকার করেন। তাঁদের অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে রাখেন। পরে ঘরের দরজা খুলে দিলে চাঁন মিয়া ও আয়নালসহ অন্য সহযোগীরা দেশীয় অস্ত্রসহ ঘরে ঢুকে ভয়ভীতি দেখিয়ে ভিকটিমের মাসহ ঘরে উপস্থিত সবার হাত,পা ও মুখ বেঁধে ফেলেন। তারপর চাহিদামতো জিনিসপত্র না পেয়ে ক্ষিপ্ত হয়ে তাঁরা ধর্ষণের মতো ঘটনা ঘটান।’

গ্রেপ্তারদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন।

মন্তব্য

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।
Show
 
    সব মন্তব্য

    ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

    এলাকার খবর

     

    রাজধানীতে পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ২

    কাপ্তাইয়ে অটোরিকশা উল্টে বনপ্রহরী নিহত

    সুনামগঞ্জে পর্যটন স্পটে ভ্রমণে নিষেধাজ্ঞা

    ভৈরবে দুই পক্ষের সংঘর্ষে একজন নিহত, আহত ১২

    পলাতক যুদ্ধাপরাধী রুহুল কুদ্দুস খাঁন গ্রেপ্তার

    তেজগাঁও ট্রাকস্ট্যান্ড হবে ১৫ বিঘা জমিতে: ডিএনসিসি মেয়র

    এবারও কি চ্যাম্পিয়ন আর্জেন্টিনা নাকি অন্য কেউ

    বিদেশি ফলে ভরছে দেশের মাঠ, ৫টির চাষ সবচেয়ে বেশি

    বাংলাদেশের সুপার এইটের ম্যাচ দেখবেন কোথায় 

    রোহিঙ্গাদের কারণে এনআইডি পেতে ৩২ উপজেলার মানুষের ভোগান্তি

    রাজধানীতে পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ২

    ম্যাচসেরা

    ইংলিশ সল্টের ঝাঁজ ভালোই টের পেল ওয়েস্ট ইন্ডিজ