রোববার, ১৭ অক্টোবর ২০২১

সেকশন

 

ছাত্রকে বলাৎকারের অভিযোগে কারাগারে মাদ্রাসা পরিচালক

আপডেট : ১৬ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২২:৩৪

অভিযুক্ত মাদ্রাসার পরিচালক (মুহতামিম) হাফিজ আব্দুর রহিম (৫৫)। ছবি: সংগৃহীত সিলেটেরে বিয়ানীবাজার পৌরসভার ফতেহপুর এলাকার হযরত হায়দর শাহ (রহ.) হাফিজিয়া মাদ্রাসার এক ছাত্রকে বলাৎকারের অভিযোগে ওই মাদ্রাসার পরিচালক (মুহতামিম) হাফিজ আব্দুর রহিমকে (৫৫) কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছেন আদালত।

বৃহস্পতিবার সিলেটের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আদালতে ২২ ধারায় জবানবন্দি দিয়েছেন ওই শিক্ষক। পরে বিচারক অভিযুক্ত শিক্ষককে জেলহাজতে পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছেন আদালত।

এর আগে বুধবার দুপুরে বিজিবি সদস্যরা মাদ্রাসার পরিচালককে আটকের পর ওই দিন রাতে তাঁকে বিয়ানীবাজার থানায় হস্তান্তর করেন। অভিযুক্ত হাফিজ আব্দুর রহিমের বাড়ি বিয়ানীবাজার পৌরসভার কসবা গ্রামে। তিনি বিয়ানীবাজার পৌর আওয়ামী লীগের ধর্ম বিষয়ক সম্পাদকের দায়িত্বে রয়েছেন।

ভুক্তভোগী মাদ্রাসা ছাত্রের পরিবার ও মামলার সূত্রে জানা যায়, বিয়ানীবাজার বিজিবি ৫২ ব্যাটালিয়নের এক সদস্যের ছেলে হযরত হায়দর (রহ.) হাফিজিয়া মাদ্রাসার ছাত্র (১৫)। সম্প্রতি ওই ছাত্র মাদ্রাসা যাওয়া বন্ধ করে দিয়েছেন। তার পরিবার মাদ্রাসায় না যাওয়া কারণ জানতে চাইলে সে বলাৎকারের বিষয়টি জানায়। এরপর তার বাবা বিজিবি ৫২ ব্যাটালিয়নের দায়িত্বশীলদের ঘটনাটি অবহিত করেন। বুধবার দুপুরে মাদ্রাসার পরিচালক হাফিজ আব্দুর রহিমকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য সদর দপ্তরে নিয়ে যাওয়া হয়। পরে ঘটনার সত্যতা ও ভুক্তভোগী ছাত্রের মৌখিক জবানবন্দি নেওয়ার পর রাতে তাকে বিয়ানীবাজার থানায় হস্তান্তর করা হয়। এ সময় ওই মাদ্রাসা ছাত্রের বাবা নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে বিয়ানীবাজার থানায় মামলা দায়ের করেন।

এ বিষয়ে বিয়ানীবাজার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা হিল্লোল রায় বলেন, মাদ্রাসার পরিচালককে বিজিবির পক্ষ থেকে থানায় হস্তান্তর করার পর এ ঘটনায় ভুক্তভোগীর পিতা থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন। অভিযোগের প্রেক্ষিতে রাতেই অভিযুক্ত শিক্ষককে গ্রেপ্তার দেখিয়ে বৃহস্পতিবার আদালতে পাঠানো হয়। আদালত তার জামিন নামঞ্জুর করে জেলহাজতে পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছেন। 

এ দিকে গত মঙ্গলবার দিবাগত রাতে মাদ্রাসা ছাত্র বলাৎকার ঘটনায় পরিচালক হাফিজ আব্দুর রহিমকে পৌর কিচেন মার্কেটে আটকে রাখা হয়েছে এমন সংবাদ পেয়ে ওই মাদ্রাসার ছাত্ররা উত্তেজিত হয়ে রাত ১২টার দিকে পৌরশহরে স্বতন্ত্রভাবে অবস্থান নেয়। পৌর কিচেন মার্কেটে সাবেক পৌর প্রশাসক তফজ্জুল হোসেনের ব্যক্তিগত অফিসে ছাত্ররা ঘেরাও করে হামলা চালায়। পরে পৌর মেয়র ও স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিদের হস্তক্ষেপে মাদ্রাসা ছাত্ররা পৌর কিচেন মার্কেট ত্যাগ করেন। 

মন্তব্য

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।
Show
 
    সব মন্তব্য

    ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

    এলাকার খবর

    বুড়িচংয়ে সড়ক দুর্ঘটনায় নারীসহ দুজন নিহত, আহত ১০

    ঈশ্বরদীতে যুবলীগ নেতা গুলিবিদ্ধ

    ছাত্রলীগ নেতার কুপ্রস্তাব, মেডিকেল ছাত্রীর মামলা

    ফুটবল খেলতে এসে লাশ হয়ে ফিরলেন রাব্বি

    যুক্তরাষ্ট্রে পিএইচডি করতে গিয়ে শাবিপ্রবি শিক্ষকের আত্মহত্যা

    লালন সম্মাননা স্মারক পেলেন সাত লালন গবেষক ও সাধক

    কাশ্মীরের পুঞ্চ জেলায় ভারতীয় নয় সেনা নিহত

    কেঁপে উঠল মহাকাশ স্টেশন, প্রাণে বাঁচলেন রুশ অভিনেতা-অভিনেত্রী

    বুড়িচংয়ে সড়ক দুর্ঘটনায় নারীসহ দুজন নিহত, আহত ১০

    ঈশ্বরদীতে যুবলীগ নেতা গুলিবিদ্ধ

    ভারতে গিয়ে ধর্ষণের শিকার বাংলাদেশি কিশোরী, গ্রেপ্তার ২