বৃহস্পতিবার, ২০ জুন ২০২৪

সেকশন

 

কুষ্টিয়ায় উপজেলা চেয়ারম্যান প্রার্থীকে নির্বাচন কার্যালয়েই মারধর

আপডেট : ০৭ মে ২০২৪, ০১:২৫

উপজেলা চেয়ারম্যান প্রার্থী আবু আহাদকে নির্বাচন কার্যালয় থেকে বের করে মারধর করা হয়েছে। ছবি: আজকের পত্রিকা কুষ্টিয়া সদর উপজেলায় চেয়ারম্যান প্রার্থী আবু আহাদ আল মামুনের ওপর হামলা ও অপহরণ চেষ্টার অভিযোগ পাওয়া গেছে। সোমবার (৬ মে) রাত ৮টার দিকে স্থানীয় ওয়ার্ড কাউন্সিলর ও যুবলীগ নেতা কিশোর কুমার ঘোষ জগতের নেতৃত্বে তাঁর সমর্থকেরা প্রার্থীকে মারধর ও অপহরণ করার চেষ্টা করেন। 

আবু আহাদকে কুষ্টিয়া ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। ৮ মে প্রথম ধাপে অনুষ্ঠিত কুষ্টিয়া সদর উপজেলা নির্বাচনে তিনি মোটরসাইকেল প্রতীকে চেয়ারম্যান পদে নির্বাচন করছেন। তাঁর প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বর্তমান চেয়ারম্যান আতাউর রহমান আতা। তিনি আনারস প্রতীক নিয়ে লড়ছেন। 

আবু আহাদ আলম মামুন অভিযোগ করে বলেন, রাতে কুষ্টিয়া শহরের বড় স্টেশন রোডে অবস্থিত আমার নির্বাচনী অফিসে বসেছিলাম। এ সময় কয়েকজন যুবক এসে আমাকে বাইরে আসতে বলে। আমি কারণ জিজ্ঞাসা করলে তারা আমাকে মারধর করে বাইরে টেনে নিয়ে যায়। বাইরে নিয়ে তারা আমাকে জিজ্ঞাসা করে—ভোটে কেন দাঁড়াইছিস, কে দাঁড়াইতে বলেছে। আমি কিছু বলার আগেই তারা আমার মাথা, বুকে, পিঠে আঘাত করে। আমাকে অপহরণের চেষ্টা করা হয়। ঘটনার সময় আমি জগৎ ও হাসিব খাঁর নাম শুনেছি। 

প্রার্থীর মামাতো ভাই তিতাস আজকের পত্রিকাকে বলেন, পৌর ১০ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর জগতের নেতৃত্বে ২০ থেকে ২৫ জন এই হামলা চালিয়েছে। মারধরের একপর্যায়ে তিনি জ্ঞান হারালে হামলাকারীরা চলে যায়। পরে তাঁকে জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এ ব্যাপারে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে। 

কুষ্টিয়া ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালের আবাসিক চিকিৎসা অফিসার (আরএমও) তাপস কুমার সরকার জানান, হাসপাতালে ভর্তি হওয়া ব্যক্তির শরীরের কোথাও গুরুতর আঘাতের চিহ্ন পাওয়া যায়নি। তাঁকে সাধারণ চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। 

অভিযোগের বিষয়ে জানতে কাউন্সিলর কিশোর কুমার ঘোষ জগতকে ফোন কল করলে দিলে তিনি রিসিভ করেননি। পরবর্তীতে তাঁর ব্যবসা প্রতিষ্ঠান দধি মিষ্টান্ন ভান্ডারে গিয়েও তাঁকে পাওয়া যায়নি। 

এর আগে চেয়ারম্যান প্রার্থী জনতা ফ্রন্টের চেয়ারম্যান আবু আহাদ আলম মামুন প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীর বিরুদ্ধে মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের জন্য হুমকি দেওয়ার অভিযোগ তোলেন। এ বিষয়ে ওই প্রার্থী তাঁর ফেসবুক অ্যাকাউন্ট থেকে পোস্ট দিয়ে ভয়ে আত্মগোপনে থাকার কথা জানান। 

তবে এসব অভিযোগ অস্বীকার করে যারা হামলার সঙ্গে জড়িত তারা দলের বা তাঁর কোনো কর্মী সমর্থক নয় বলে দাবি করেন বর্তমান চেয়ারম্যান আতাউর রহমান আতা। 

চেয়ারম্যান আতাউর রহমান আতা আজকের পত্রিকাকে বলেন, যিনি আমার বিপক্ষে প্রার্থী হয়েছেন তিনি কোনো শক্ত প্রার্থী নন। তাহলে আমার দলের নেতা–কর্মী বা সমর্থকেরা কেন প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করবে। যারা এই ঘটনা ঘটিয়েছে তারা আমার দলের কেউ নয়, তাদের আমি চিনিও না। 

কুষ্টিয়া মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শেখ সোহেল রানা বলেন, হামলার সঙ্গে জড়িতদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

মন্তব্য

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।
Show
 
    সব মন্তব্য

    ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

    এলাকার খবর

     

    মন্ত্রীর বাসার লিফটে আমলাকে মারধর: অভিযুক্ত আজিজুল সাময়িক বরখাস্ত

    বেনাপোল বন্দরে ৭ দিনে ভারতে গেল ৪৮ হাজার, যাত্রীর চাপে গ্লাস ভেঙে নিরাপত্তাকর্মী আহত

    শার্শায় খেলতে গিয়ে ককটেল বিস্ফোরণে ২ শিশু আহত

    বাগেরহাটে মাঠে গরু আনতে গিয়ে বজ্রপাতে ২ কৃষকের মৃত্যু

    কলেজছাত্রী ধর্ষণ: বড় মনির বিরুদ্ধে তদন্ত প্রতিবেদন ৮ জুলাই

    শ্যামনগরে তরুণের ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার

    দুদিনেও উইকেটের দেখা পাননি শান্তরা

    কোটিপতি কমলেও ক্ষুদ্র হিসাব বেড়েছে

    শুধু শান্ত নয়, অন্য দলের টপ অর্ডারও ভুগছে: হাথুরু

    সিলেটসহ পাঁচ জেলায় পানিবন্দী ১৪ লাখ মানুষ

    চামড়াশিল্প নগরীর সিইটিপি পুরো প্রস্তুত, পরিদর্শন শেষে শিল্পসচিব