বুধবার, ১৯ জুন ২০২৪

সেকশন

 

ঘুগরা পোকার ডাকাডাকির প্রচণ্ড শব্দে বিভ্রান্ত শহরের বাসিন্দারা খবর দিল পুলিশে

আপডেট : ৩০ এপ্রিল ২০২৪, ১৫:৪১

ঘুগরা পোকার ডাকাডাকির প্রচণ্ড শব্দে বিভ্রান্ত হয়ে যুক্তরাষ্ট্রের এক শহরের বাসিন্দারা যোগাযোগ করে পুলিশের সঙ্গে। ছবি: এএফপি যুক্তরাষ্ট্রের সাউথ ক্যারোলাইনার একটি কাউন্টির বাসিন্দারা টানা অস্বাভাবিক চড়া এক শব্দে রীতিমতো বিস্মিত হন। আর তাঁদের অবাক হওয়ার মাত্রাটা এতটাই বেশি ছিল যে পুলিশের শরণাপন্ন হন। তার পরই জানা গেল এই শব্দের উৎস—ছোট্ট এক প্রাণী, ঘুগরা পোকা।

লাল চোখের হাজারো কোটি ঘুগরা পোকারা কয়েক দশক এবং সম্ভবত শতাব্দীতে দেখা যায়নি এমন সংখ্যায় আবির্ভূত হতে চলেছে যুক্তরাষ্ট্রের বিভিন্ন এলাকায়। আর তাদের প্রচণ্ড চিৎকারে বিভ্রান্ত মানুষ শেরিফের অফিসে ফোন করে জিজ্ঞাসা করে কেন তারা এমন সাইরেনের মতো উচ্চ শব্দ শুনতে পাচ্ছে।

এসব তথ্য জানা যায় মার্কিন সংবাদ সংস্থা এপির এক প্রতিবেদনে।

ঘুগরা পোকার কোনো কোনো প্রজাতির মাটির নিচ থেকে উত্থান হওয়াটা বার্ষিক ঘটনা এবং অন্যগুলোর, যেগুলো পর্যায়ক্রমিক ঘুগরা পোকা নামে পরিচিত, প্রতি ১৩ বা ১৭ বছরে উত্থান হয়। 

বছরের এই সময়ে ১৩ বছরের চক্র মেনে চলা দলটি সাউথ ও নর্থ ক্যারোলাইনায় উদ্ভব হতে শুরু করেছে। তারপর মধ্য পশ্চিম অঞ্চলে আবির্ভূত হবে ১৭ বছরের চক্র মেনে চলা দলটি। মধ্য ইলিনয়ের নির্দিষ্ট কিছু জায়গায় একই সঙ্গে এ দুটি দলেরই আত্মপ্রকাশ ঘটতে পারে।

নিউবেরি কাউন্টি শেরিফের অফিস গত ২৩ এপ্রিল মঙ্গলবার ফেসবুকের এক পোস্টে সেখানকার বাসিন্দাদের জানায়, এক দশকেরও বেশি সময় পরে আবির্ভূত হওয়া পুরুষ ঘুগরা পোকারা সঙ্গীদের আকর্ষণ করতেই এমন শব্দ করছে।

নিউবেরি কাউন্টি শেরিফ লি ফস্টার বলেন, কিছু লোক এমনকি ডেপুটিদের গাড়ি থামিয়ে জিজ্ঞাসা করেছেন এই গোলমালের কারণ কী?

রাজ্যের রাজধানী কলাম্বিয়ার প্রায় ৪০ মাইল (৬৫ কিলোমিটার) উত্তর-পশ্চিমে ৩৮ হাজার বাসিন্দার শহর নিউবেরি কাউন্টি। আর এর চারপাশে প্রচণ্ড শব্দে ডাকতে ওস্তাদ ঘুগরা পোকাগুলোর আবির্ভাব ঘটেছে। বিভিন্ন স্থান থেকে তাদের ডাকে বিভ্রান্ত হচ্ছিল মানুষ, বলেন ফস্টার।

এই মাসে পূর্ব মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে ভূগর্ভ থেকে হাজারো কোটি লাল চোখের পর্যায়ক্রমিক ঘুগরা পোকা বের হতে চলেছে। 

তাদের সম্মিলিত চিৎকার জেট ইঞ্জিনের মতো উচ্চস্বরে হতে পারে। যেসব বিজ্ঞানী এদের নিয়ে গবেষণা করেন, প্রায়ই শ্রবণশক্তি রক্ষা করার জন্য কানে পশম বা চামড়ার বিশেষ আবরণ পরেন।

‘যদিও কারও কারও কাছে শব্দটি বিরক্তিকর, তারা মানুষ বা পোষা প্রাণীর জন্য কোনো বিপদ ডেকে আনে না।’ ফস্টার কাউন্টির বাসিন্দাদের উদ্দেশে বিবৃতিতে জানান, ‘দুর্ভাগ্যবশত, এটি প্রকৃতির শব্দ।’

মন্তব্য

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।
Show
 
    সব মন্তব্য

    ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

    এলাকার খবর

     

    সিলেটে বিপৎসীমার ওপরে নদীর পানি, কয়েকটি উপজেলা প্লাবিত

    ভারী বৃষ্টি হবে ৩ বিভাগে, জানাল আবহাওয়া অধিদপ্তর

    দখলদারদের পেটে ২০ হাজার পুকুর-দিঘি, হারাচ্ছে আসকারদীঘি-বলুয়ারদীঘিও

    বাংলাদেশে সাগরের পানি বৃদ্ধির হার বিশ্বের অন্যতম দ্রুততম

    উত্তর–পূর্বাঞ্চলে বাড়ছে নদ–নদীর পানি, বন্যার আশঙ্কা

    রাজধানীতে ঈদের দিন হতে পারে বৃষ্টি

    সিঙ্গাপুরে পালিয়ে আসিনি, চিকিৎসা শেষে দেশে ফিরব: ভিডিও বার্তায় আছাদুজ্জামান মিয়া

    গাইবান্ধায় পানি উন্নয়ন বোর্ডের গাড়ির ধাক্কায় বৃদ্ধার মৃত্যু

    মার্কোসের মন্ত্রিসভা থেকে দুতার্তে কন্যার পদত্যাগ, রাজনৈতিক সংকটের শঙ্কা

    ঈদের ছুটি শেষেও ঢাকা ছাড়ছে মানুষ

    চিলমারীতে ঝড়ে প্রায় শতাধিক ঘরবাড়ি বিধ্বস্ত

    পার্বত্য চুক্তি বাস্তবায়ন প্রক্রিয়া একেবারে বন্ধ হয়ে আছে: সন্তু লারমা