শনিবার, ২২ জুন ২০২৪

সেকশন

 

এমপি রাজত্বের কারণে জিম্মি গোটা এলাকা, ইউপি নির্বাচন প্রসঙ্গে রিজভী

আপডেট : ২৫ এপ্রিল ২০২৪, ১৭:৫৬

বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী। ফাইল ছবি দেশে জাতীয় নির্বাচনের মতো উপজেলা পরিষদেও ডামি নির্বাচন হতে যাচ্ছে বলে অভিযোগ করেছেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী। 

আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে রাজধানীর নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে সাত দিনের ধারাবাহিক কর্মসূচির প্রথম দিনে তীব্র তাপদাহে অতিষ্ঠ জনসাধারণের মাঝে বোতলজাত পানি, স্যালাইন বিতরণকালে তিনি এ অভিযোগ করেন। ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপি এই কর্মসূচির আয়োজন করে। 

রুহুল কবির রিজভী বলেন, ‘আজ সেই নির্বাচনে (উপজেলা পরিষদ) আওয়ামী লীগ নেতারাও সুযোগ পাচ্ছেন না। মন্ত্রী-এমপিদের ভাই, শালা, ভাগনে, ভায়রাদের কারণে জিম্মি স্থানীয় জনগণ। প্রতিটি সংসদীয় এলাকায় এমপি রাজ শুরু হয়েছে, তাও ডামি এমপি। আজ ডামি এমপির স্বজনদের দিয়ে সৃষ্টি করা হচ্ছে এমপি রাজ। এমপি রাজত্বের কারণে জিম্মি গোটা এলাকা।’ 

রিজভী বলেন, ‘আমাদের বিশেষজ্ঞ ও বিজ্ঞানীরা বারবার বলেছেন, কয়লা দিয়ে বিদ্যুৎ উৎপাদন করবেন না। কিন্তু গণবিরোধী প্রধানমন্ত্রী গণবিরোধী প্রজেক্ট করেছেন। বিশেষজ্ঞদের মতামত উপেক্ষা করে গলাচিপা, বাউফলে তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্র তৈরি করেছেন।’ 

দেশকে অর্থনৈতিকভাবে স্বয়ংসম্পূর্ণ করতে জিয়াউর রহমান রেশনিং ব্যবস্থা তুলে নিয়েছিলেন উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘আজ দেশের অর্থনীতিকে লুটতরাজ করে ভঙ্গুর করে ফেলেছে। মুখে স্বয়ংসম্পূর্ণের কথা বলে আবার রেশনিং ব্যবস্থা চালু করেছেন। তাও সাধারণ মানুষ এর আওতায় নয়, আওয়ামী গোষ্ঠী এই রেশনিং কার্ডও দলীয়করণ করেছে।’ 

তিনি বলেন, ‘প্রতিদিন দ্রব্যমূল্য বেড়েই চলছে। আদা, রসুন পেঁয়াজ ডলারের দামে আমদানি করতে হচ্ছে। মানুষ পেট ভরে ভাত খেতে পারছে না। আজকে সন্তান বিক্রি করে পেট চালাতে হচ্ছে।’ 

রিজভী বলেন, ‘ফরিদপুরে ছাত্রলীগের সভাপতির কাছে ২ হাজার কোটি টাকা, সমাজকল্যাণ মন্ত্রীর ভাই নাকি ১৫ হাজার কোটি টাকা অর্জন করেছেন। এই আলাদিনের চেরাগ কই থেকে এল। কানাডা, দুবাই, মালয়েশিয়ায় এত বাড়ি-ঘরের মালিক কীভাবে হলেন? এক সময় আজিমপুর কবরস্থানে যেতে হবে, সেটা তাঁরা ভুলে গেছেন।’ 

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের বক্তব্যের প্রসঙ্গ টেনে বিএনপির এই নেতা বলেন, সাংবাদিকেরা তার কাছে জানতে চেয়েছেন বিএনপির কর্মসূচির দিন কেন আপনারা পাল্টা কর্মসূচি দেন? তিনি বললেন, ‘বিএনপিকে মানসিকভাবে বাধা দেওয়ার জন্য আমরা পাল্টা কর্মসূচি দেই।’ এতেই প্রমাণ হয়, ওবায়দুল কাদেরের মানসিক সমস্যা রয়েছে। তিনি সন্ত্রাসী ভাষায় কথা বলেন। উনি চাঁদাবাজ ও গুন্ডাদের গডফাদার। 

ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপির আহ্বায়ক আব্দুস সালাম বলেন, ‘সারা দেশ আগুনে পুড়ছে, মানুষ অভুক্ত আছে। আর প্রধানমন্ত্রী বলেন, কোনো অসুবিধা নেই। মানুষ খুব ভালো আছে। জনগণের কোনো কষ্টই, তাদের গায়ে লাগে না। কারণ সাধারণ মানুষকে, তাদের চোখে পড়ে না। তিনি শুধু দেখেন মুজিব কোট। আজ ১ টাকার কাজ করা হচ্ছে ১০০ টাকায়। বাকি ৯৯ টাকা খরচ হয় মুজিব কোটের পেছনে।’ 

অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য রাখেন—বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাডভোকেট আব্দুস সালাম আজাদ, স্বেচ্ছাসেবক বিষয়ক সম্পাদক মীর সরাফত আলী সপু, ঢাকা মহানগর উত্তরের সদস্যসচিব আমিনুল হক, সহ অর্থনৈতিক বিষয়ক সম্পাদক মাহমুদুর রহমান সুমন, বিএনপির আন্তর্জাতিক বিষয়ক কমিটির সদস্য ইঞ্জিনিয়ার ইশরাক হোসেন প্রমুখ। এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন বিএনপি চেয়ারপারসনের বিশেষ সহকারী শামসুর রহমান শিমুল বিশ্বাস, তথ্য বিষয়ক সম্পাদক আজিজুল বারী হেলাল, কৃষক দলের সাধারণ সম্পাদক শহিদুল ইসলাম বাবুল, ঢাকা মহানগর দক্ষিণের যুগ্ম আহ্বায়ক মো. মোহন, হাজী মনির হোসেন ও সদস্য দপ্তরের দায়িত্বে সাইদুর রহমান মিন্টু প্রমুখ।

মন্তব্য

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।
Show
 
    সব মন্তব্য

    ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

    এলাকার খবর

     

    গভীর রাতে খালেদা জিয়াকে হাসপাতালে ভর্তি 

    বন্যার জন্য সরকারের ভুল নীতিকে দুষলেন রিজভী

    ঈদ সাধারণ মানুষের জন্য আনন্দের বার্তা আনেনি: মির্জা ফখরুল

    সেন্ট মার্টিনে যুদ্ধজাহাজ দেশের সার্বভৌমত্বের ওপর হুমকি: মির্জা ফখরুল

    সেন্ট মার্টিন ইস্যুতে বিএনপি মহাসচিবের বক্তব্য দায়িত্বজ্ঞানহীন: ওবায়দুল কাদের

    সেন্ট মার্টিন নিয়ে সরকারের নীরবতা ‘দাসসুলভ’ মনোভাব: মির্জা ফখরুল

    আটপাড়ায় বাসে অতিরিক্ত ভাড়া আদায়ের দায়ে সুপারভাইজারকে জরিমানা

    সংকট নেই, তবু বাড়ল সবজি, মাছের দাম

    চাঁপাইনবাবগঞ্জে ইজারা ছাড়াই ৬ ফেরিঘাট থেকে ‘টোল’ আদায়