শনিবার, ১৮ মে ২০২৪

সেকশন

 

জেলা পর্যায়ে হৃদ্‌রোগের চিকিৎসা আরও বাড়াতে হবে: এসসিএআই সম্মেলনে বক্তারা

আপডেট : ১৯ এপ্রিল ২০২৪, ১১:২৫

এসসিএআইয়ের সায়েন্টিফিক সম্মেলনের উদ্বোধনী পর্বে বক্তব্য দিচ্ছেন হৃদ্‌রোগ রোগ বিশেষজ্ঞ অধ্যাপক এম জি আজম। ছবি: সংগৃহীত সোসাইটি ফর কার্ডিওভাসকুলার এনজিওগ্রাফি অ্যান্ড ইন্টারভেনশনসের (এসসিএআই) আয়োজনে এক সায়েন্টিফিক সম্মেলনের উদ্বোধনী দিনে চিকিৎসকেরা বলেছেন, ‘জেলা পর্যায়ে ইন্টারভেনশনাল কার্ডিওলজি চিকিৎসার পরিসর আরও বাড়াতে হবে। যাতে সাধারণ মানুষ এই চিকিৎসার সুফল পেতে পারেন এবং তাঁদের জীবনকাল বৃদ্ধি পায়।’ 

চিকিৎসকেরা আরও বলেন, ‘দেশে হৃদ্‌রোগের জটিল চিকিৎসার সক্ষমতা আগের তুলনায় অনেক বেড়েছে। কিন্তু ১৭-১৮ কোটি মানুষের এই দেশে যে মাত্রায় চিকিৎসা সুযোগ বাড়ার কথা ছিল তা হয়নি। ফলে প্রান্তিক জনগোষ্ঠীর জন্য এই চিকিৎসা মোটেও সহজলভ্য নয়।’ 

এসসিএআইয়ের আয়োজনে চতুর্থবারের মতো ‘এসসিআই কোর্স অন কমপ্লেক্স পিসিআই’ শীর্ষক সায়েন্টিফিক সম্মেলনের আয়োজন করেছে। গতকাল বৃহস্পতিবার রাজধানীর হোটেল প্যানপ্যাসিফিক সোনারগাঁওয়ে এর উদ্বোধন করা হয়েছে। দুদিন ব্যাপী (১৮-১৯ এপ্রিল) এই সম্মেলন চলবে। এতে দেশ ও বিদেশের হৃদ্‌রোগ বিশেষজ্ঞ যোগ দিয়েছেন। 

দুদিনব্যাপী আয়োজিত সম্মেলনে কার্ডিওভাসকুলার বিষয়ে বিভিন্ন সায়েন্টিফিক সেশনে দেশ ও বিদেশের বিশেষজ্ঞ, খ্যাতনামা ও তরুণ চিকিৎসকেরা অংশ নেন। গতকাল সকালে আয়োজনের উদ্বোধন করেন এসসিএআইয়ের আন্তর্জাতিক কর্মসূচি প্রধান রমেশ দুগাবাতি, এসসিএআইয়ের কোর্স ডিরেক্টর, হৃদ্‌রোগ রোগ বিশেষজ্ঞ অধ্যাপক এম. জি আজম। 

উদ্বোধনী দিনের বিভিন্ন অধিবেশনে হৃদ্‌রোগের বিভিন্ন জটিলতা, ঝুঁকি, প্রতিকার, অপারেশন নিয়ে বিশেষজ্ঞ মতামত দেন ইউকে থেকে আসা ইন্টারভেনশনাল কার্ডিওলজিস্ট প্রফেসর মামাস এ মামাস, ইউএসএ থেকে আসা চৌধুরী এইচ আহসান, ভারত থেকে আসা শুভানন রায়, অস্ট্রেলিয়া থেকে আসা হৃদ্‌রোগ বিশেষজ্ঞ রুসটেম দাউতভ, অধ্যাপক একেএম মাকসুমুল হক, অধ্যাপক বরেন চক্রবর্তী, অধ্যাপক ফজিলাতুনন্নেছা মালিকসহ প্রমুখ। দেশ ও বিদেশের প্রায় ৫ শতাধিক বিশেষজ্ঞ ও তরুণ ইন্টারভেনশনাল কার্ডিওলজিস্ট এই সায়েন্টিফিক সেমিনারে অংশগ্রহণ করেছেন। 
 
সোসাইটি ফর কার্ডিওভাসকুলার এনজিওগ্রাফি অ্যান্ড ইন্টারভেনশনসের (এসসিএআই) কোর্স ডিরেক্টর, হৃদ্‌রোগ রোগ বিশেষজ্ঞ অধ্যাপক এম জি আজম জানান, ‘এই সম্মেলনের মূল উদ্দেশ্য হার্ট অ্যাটাকের আধুনিক চিকিৎসা পদ্ধতি সম্পর্কে জানা এবং বিশ্বের সঙ্গে আমাদের তুলনামূলক চিত্র নিরূপণ করে সাধারণ মানুষের চিকিৎসা সেবা নিশ্চিত করে এগিয়ে যাওয়ার দৃঢ় প্রত্যয় ব্যক্ত করা। একই সঙ্গে তরুণ চিকিৎসকদের সঙ্গে আন্তর্জাতিক পর্যায়ের বিশেষ চিকিৎসকদের কানেকটিভিটি তৈরি করা। এই আয়োজনের ইভেন্ট পার্টনার হিসেবে রয়েছে ইনসেপ্টা ফার্মাসিউটিক্যালস লিমিটেড এবং মেডট্রোনিক বাংলাদেশ প্রাইভেট লিমিটেড।

মন্তব্য

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।
Show
 
    সব মন্তব্য

    ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

    পঠিতসর্বশেষ

    এলাকার খবর

     

    কোন বয়সে কেমন খাবার

    ডায়রিয়ার ঘরোয়া চিকিৎসা

    শিশুর ডি ভিটামিনের অভাব হলে

    নাক ডাকা থেকে মুক্তি পেতে

    মাইগ্রেনের ব্যথায় করণীয়

    করোনা টিকার আরও এক পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া স্বীকার করল অ্যাস্ট্রাজেনেকা

    পুলিশের কিশোর গ্যাং বিরোধী র‍্যালিতে গ্যাং লিডার মিজান

    ১০৪ পদে কর্মী নেবে ঢাকা কর অঞ্চল-১৯

    ‘কহো না পেয়ার হ্যায়’ সিনেমার হৃত্বিকের সেই ভাই এখন যেমন আছেন

    ‘মন্থন’: ভারতের দুগ্ধ খামারিদের অর্থে নির্মিত যে সিনেমা কান উৎসবে