বৃহস্পতিবার, ৩০ মে ২০২৪

সেকশন

 

আন্তর্জাতিক বিধি অমান্য করে গরিব দেশে শিশুদের দুধে চিনি মেশাচ্ছে নেসলে

আপডেট : ১৭ এপ্রিল ২০২৪, ১৬:২৩

এশিয়া, আফ্রিকা এবং লাতিন আমেরিকায় বিক্রি হওয়া শিশু খাদ্যে সুক্রোজ বা মধুর আকারে চিনি মিশিয়েছে নেসলে। ছবি: সংগৃহীত রোগ প্রতিরোধের লক্ষ্যে আন্তর্জাতিক নির্দেশিকা অমান্য করে গরিব দেশগুলোতে বিক্রি হওয়া শিশুদের দুধ এবং সিরিয়াল জাতীয় পণ্যে চিনি এবং মধু মেশায় বিশ্বের বৃহত্তম ভোগ্যপণ্য সংস্থা নেসলে। একটি গবেষণা প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, শিশুদের দুধ ও সিরিয়ালে মেশানো এসব চিনি এবং মধু— স্থূলতা এবং বেশ কিছু দীর্ঘস্থায়ী রোগের কারণ। ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম দ্য গার্ডিয়ান এক প্রতিবেদনে খবরটি দিয়েছে।

এশিয়া, আফ্রিকা এবং লাতিন আমেরিকায় বিক্রি হওয়া সুইস বহুজাতিক সংস্থা নেসলের প্রস্তুতকৃত শিশু খাদ্যের নমুনা পরীক্ষার জন্য বেলজিয়ামের একটি পরীক্ষাগারে পাঠিয়েছিল সুইজারল্যান্ড-ভিত্তিক অনুসন্ধানী সংস্থা পাবলিক আই। নমুনা ও পণ্য প্যাকেজিংয়ের পরীক্ষার ফলাফলে দেখে গেছে, এক বা তার বেশি বয়সী শিশুদের জন্য তৈরি দুধের ফর্মুলা ব্র্যান্ড নিডো এবং ছয় মাস থেকে দুই বছর বয়সী শিশুদের জন্য সিরিয়াল জাতীয় খাদ্য সেরেলাকে সুক্রোজ বা মধুর আকারে চিনি মেশানো হয়েছে।

যুক্তরাজ্যসহ প্রধান ইউরোপীয় বাজারগুলোতে অবশ্য শিশুখাদ্যে চিনি মেশায় না নেসলে। একটু বেশি বয়সী শিশুদের খাদ্য সিরিয়ালে অতিরিক্ত চিনি পাওয়া গেলেও ছয় মাস থেকে এক বছরের বাচ্চাদের জন্য নেসলের খাদ্যপণ্যে কোনো চিনি দেওয়া হয়নি।

পাবলিক আই-এর কৃষি ও পুষ্টি বিশেষজ্ঞ লরেন্ট গ্যাবেরেল বলেছেন, ‘নেসলেকে অবশ্যই এই বিপজ্জনক দ্বিচারিতার অবসান ঘটাতে হবে এবং বিশ্বের প্রতিটি অংশে তিন বছরের কম বয়সী শিশুদের জন্য সমস্ত পণ্যে চিনি মেশানো বন্ধ করতে হবে।’

নিম্ন এবং মধ্যম আয়ের দেশগুলোতে স্থূলতা একটি ক্রমবর্ধমান সমস্যা। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার মতে, আফ্রিকায় ২০০০ সাল থেকে পাঁচ বছরের কম বয়সী অতিরিক্ত ওজনের শিশুর সংখ্যা প্রায় ২৩ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়েছে। বিশ্বব্যাপী ১০০ কোটি মানুষের বেশি ভুগছে এই সমস্যায়।

ইউরোপীয় অঞ্চলের জন্য বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার (ডব্লিউএইচও) নির্দেশিকা বলে যে, তিন বছরের কম বয়সী শিশুদের জন্য খাবারে কোনো শর্করা বা মিষ্টিজাতীয় উপাদান মেশানোর অনুমতি দেওয়া উচিত নয়। অন্যান্য অঞ্চলের জন্য বিশেষভাবে কোনো নির্দেশিকা তৈরি করা হয়নি। গবেষকেরা বলছেন যে, ইউরোপীয়দের জন্য এই নির্দেশিকা বিশ্বের অন্যান্য অংশের জন্যও সমানভাবে প্রাসঙ্গিক।

ওজন বৃদ্ধি এবং দাঁতের ক্ষয়সহ বেশ কিছু স্বাস্থ্যঝুঁকির কারণে চার বছরের কম বয়সী শিশুদের অতিরিক্ত চিনিযুক্ত খাবার এড়িয়ে চলার পরামর্শ দিয়েছে যুক্তরাজ্য। মার্কিন সরকারের নির্দেশিকায় দুই বছরের কম বয়সীদের জন্য অতিরিক্ত চিনিযুক্ত খাবার এবং পানীয় এড়ানোর পরামর্শ রয়েছে।

ইন্টারন্যাশনাল বেবি ফুড অ্যাকশন নেটওয়ার্কের সহযোগিতায় লেখা প্রতিবেদনে পাবলিক আই বলেছে যে, বাজার গবেষণা সংস্থা ইউরোমনিটর ইন্টারন্যাশনালের তথ্য অনুসারে, বিশ্বব্যাপী খুচরা বাজারে ১২০ কোটি ডলারের সেরেলাক বিক্রি হয়েছে। সবচেয়ে বেশি বিক্রি হয়েছে নিম্ন ও মধ্যম আয়ের দেশগুলোতে। শুধু ব্রাজিল এবং ভারতেই বিক্রি হয়েছে ৪০ শতাংশ সেরেলাক।

গবেষকেরা খুঁজে পেয়েছেন যে, সেনেগাল এবং দক্ষিণ আফ্রিকায় ছয় মাস বা তার বেশি বয়সী শিশুদের জন্য বিক্রি করা বিস্কুট স্বাদের প্রতিটি সিরিয়ালে ৬ গ্রাম চিনি মেশানো হয়েছে। কিন্তু সেই একই পণ্য সুইজারল্যান্ডে বিক্রি হয় না। ভারতে বিক্রি হওয়া সেরেলাকে গড়ে ২.৭ গ্রাম অতিরিক্ত চিনি মেশানো হয়েছে।

ব্রাজিলে বিক্রি হওয়া সেরেলাক মুসিলনের আটটি পণ্যের মধ্যে দুটিতে চিনি নেই। তবে বাকি ছয়টিতে প্রায় ৪ গ্রাম করে চিনি রয়েছে। নাইজেরিয়ায় বিক্রি হওয়া শিশুখাদ্যে গড়ে ৬ দশমিক ৮ গ্রাম পর্যন্ত বাড়তি চিনি পাওয়া গেছে।

ডব্লিউএইচওর মেডিকেল অফিসার ডা. নাইজেল রলিন্সের মতে, পাবলিক আইয়ের প্রতিবেদনে প্রকাশ পেয়েছে দ্বিমুখী নীতি—যা মেনে নেওয়া যায় না।

নেসলের একজন মুখপাত্র বলেন, ‘আমরা শিশুদের জন্য আমাদের পণ্যগুলোর পুষ্টির গুণগতমানে বিশ্বাস করি এবং শিশুদের বৃদ্ধি ও বিকাশের জন্য প্রয়োজনীয় উচ্চমানের উপাদানগুলোকে অগ্রাধিকার দিই।’

তিনি আরও বলেছেন যে, শিশু খাদ্য অত্যন্ত কঠোরভাবে নিয়ন্ত্রিত হয়। নেসলে সব সময়ই স্থানীয় বিধান ও আন্তর্জাতিক মানের মধ্যে সামঞ্জস্য রক্ষা করে। রেসিপির তারতম্যগুলো সাধারণত স্থানীয় বাজারে উপাদানগুলোর প্রাপ্যতাসহ বিভিন্ন কারণের ওপর নির্ভর করে বলেও জানান তিনি।

নেসলে কোম্পানি গত এক দশকে বিশ্বব্যাপী শিশু খাদ্যে শর্করার মোট পরিমাণ ১১ শতাংশ কমিয়েছে বলেও জানান এই মুখপাত্র। তিনি বলেন, চিনির পরিমাণ আরও কমানোর জন্য কাজ চলছে। বিশ্বব্যাপী বাচ্চাদের জন্য দুধ থেকে সুক্রোজ এবং গ্লুকোজ সিরাপ বের করে নেওয়া হচ্ছে।

মন্তব্য

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।
Show
 
    সব মন্তব্য

    ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

    এলাকার খবর

     

    তথ্য ছড়িয়ে দিতে অগ্রণী ভূমিকায় সোশ্যাল মিডিয়া: স্বাস্থ্যের ডিজি

    ‘স্বাস্থ্য তথ্য ও পরামর্শ ছড়িয়ে দিতে অগ্রণী ভূমিকায় সোশ্যাল মিডিয়া’

    এমআরসিপিতে সর্বোচ্চ নম্বরের রেকর্ড গড়লেন ডা. হালিম

    চার কোটি শিশু পাচ্ছে কৃমিনাশক ওষুধ

    খাবারে প্রতিক্রিয়া মানেই অ্যালার্জি নয়, ফুড অ্যালার্জি বুঝবেন যেভাবে

    মস্তিষ্কের বয়স বাড়ার গতি কমাতে পারে পুষ্টিকর খাদ্য: গবেষণা

    মেরুপথের দুই অভিযাত্রী

    ৫০ লাখের মাইলফলকে হামাদ এয়ারপোর্ট

    নজরুলের স্মৃতিধন্য তেওতা

    আলোকচিত্র প্রদর্শনী

    দুই শতাধিক ওষুধের দাম বেড়েছে