বৃহস্পতিবার, ২৩ মে ২০২৪

সেকশন

 

বান্দরবানে আতঙ্কে উৎসব কেন্দ্রিক ব্যবসায় ভাটা

আপডেট : ০৯ এপ্রিল ২০২৪, ১১:৩১

বান্দরবানে আতঙ্কে উৎসব কেন্দ্রিক ব্যবসায় ভাটা কেএনএফের হামলা, অস্ত্র-টাকা লুট ও অপহরণের পর ফের হামলার আশঙ্কা এবং নিরাপত্তা বাহিনীর যৌথ অভিযানে বান্দরবানে সন্ধ্যা নামলেই বন্ধ হয়ে যাচ্ছে মানুষের চলাচল। বিশেষ করে রুমা, থানচি ও রোয়াংছড়ি উপজেলায় মানুষের দেখা মেলা ভার। ফলে আসন্ন তিন উৎসবের আমেজের পরিবর্তে গুমোট অবস্থা বিরাজ করছে সেখানে। ব্যবসা-বাণিজ্যেও নেমে এসেছে অচলাবস্থা।

২ এপ্রিল রাতে রুমায় এবং ৩ এপ্রিল থানচিতে হামলা চালায় কেএনএফ সদস্যরা। এরপর গতকাল বিকেল ৫টা থেকে রুমা, থানচি ও রোয়াংছড়ি উপজেলায় সব ধরনের যান চলাচলে অনির্দিষ্টকালের জন্য নিষেধাজ্ঞার ঘোষণা দিয়েছে সশস্ত্র সংগঠনটি। এসব কারণে জেলা ও উপজেলার বাজারগুলোতে মানুষের আনাগোনা কম বলে জানা গেছে।

থানচি বাজার কমিটির সভাপতি কামলাই ম্রো গতকাল জানান, হামলার কয়েক দিন পর এখন দিনের বেলা পরিস্থিতি কিছুটা স্বাভাবিক হওয়ার পথে। মানুষ আবার বাজারে আসতে শুরু করেছে। তবে উৎসবকে সামনে রেখে যেমনটা হওয়ার কথা, তা নেই।

স্থানীয়দের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, ওই ঘটনার পর জেলাজুড়েই থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে। আতঙ্কে দিন কাটছে মানুষের। জেলা সদর থেকে উন্নয়নকাজ করতে যাওয়া শ্রমিকেরা উপজেলার দুর্গম এলাকায় কাজ করতে যাচ্ছেন না, ফলে থমকে গেছে উন্নয়নকাজ। অন্যদিকে পাহাড়ের কৃষিপণ্য কিনতে ব্যবসায়ীরা উপজেলাগুলোতে না যাওয়ার কারণে নষ্ট হচ্ছে কৃষিপণ্য।

রুমা বাজার কমিটির সভাপতি অঞ্জন বড়ুয়া বলেন, সাধারণ মানুষ এখনো আতঙ্কে আছে। বাজারে মানুষ খুব কম আসার কারণে বেচাকেনাও হচ্ছে না।

ঈদুল ফিতর, বাংলা নববর্ষ ও বৌদ্ধ ধর্মানুসারীদের বিসু, বিজু ও সাংগ্রাই উৎসবকে সামনে রেখে বিগত বছরগুলোতে হাজার হাজার পর্যটক জেলায় ভ্রমণে এলেও এবার হোটেল-মোটেলগুলোতে সিট বুকিং নেই বললেই চলে। ব্যবসাপ্রতিষ্ঠানগুলোতে পুরোদমে বেচাকেনা হওয়ার কথা থাকলেও পাহাড়ের অস্থিতিশীল পরিস্থিতির কারণে তেমন বেচাকেনা হচ্ছে না বলে জানান ব্যবসায়ীরা।

আলীকদম বাজার কমিটির সাধারণ সম্পাদক কায়সার উদ্দিন বাপ্পি জানান, রুমা, থানচির ঘটনার পর আলীকদমের ২৬ কিলোর ঘটনা, কলাঝিরি এলাকায় অস্ত্রধারী দেখা গেছে বলে মানুষ আতঙ্কে আছে। তাই বাজারে কেনাকাটা করতে মানুষ আসছে কম।

রুমা উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি শৈমং মারমা শৈবং বলেন, ঘটনার পর থেকে মানুষ আতঙ্কে রয়েছে। বাজারে লোকসমাগম খুব কম, কেউ প্রয়োজনের বাইরে বের হচ্ছে না।

মানুষ আতঙ্কে থাকার বিষয়ে জানতে চাইলে জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার রায়হান কাজেমী বলেন, পাহাড়ের তিন উৎসব সামনে রেখে কঠোর নিরাপত্তাব্যবস্থা থাকবে। নিরাপত্তা বিঘ্নিত হওয়ার কোনো আশঙ্কা নেই।

মন্তব্য

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।
Show
 
    সব মন্তব্য

    ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

    এলাকার খবর

     

    প্রাকৃতিক উপাদানে বড় হচ্ছে পাহাড়ের ষাঁড়

    এসএসবির টেবিলে ৬৫০ কর্মকর্তার আমলনামা

    উপজেলা পরিষদ নির্বাচন

    সবই আছে, ভোটার নেই

    দেশে আসছে ‘মিস্টার অ্যান্ড মিসেস মাহি’

    ২৬ মে ঢাকায় দেখা হবে অভিনেতা বুরাকের সঙ্গে

    বুদ্ধপূর্ণিমার বিশেষ নাটক ‘হৈ হৈ হল্লা’

    উপজেলা পরিষদ নির্বাচন

    দ্বিতীয় ধাপের ভোটে যাঁরা চেয়ারম্যান হলেন

    সিলেটে নির্বাচনে হেরে আ.লীগ নেতাকে বেইজ্জতি করার হুমকি

    সিলেট থেকে সরাসরি হজ ফ্লাইট চালু

    পুনের পোর্শেকাণ্ড: আড়াই হাজার টাকার জন্য লাইসেন্স ছিল না সাড়ে ৩ কোটির গাড়িটির

    এমপি আনোয়ারুল আজীমকে খুন করতে ৫ কোটি টাকার চুক্তি

    যেসব কারণে ভ্রমণ ও পর্যটন সূচকে তলানিতে বাংলাদেশ