সোমবার, ২০ মে ২০২৪

সেকশন

 

ভারতের ‘উসকানিমূলক মন্তব্যের’ তীব্র নিন্দা জানাল পাকিস্তান

আপডেট : ০৭ এপ্রিল ২০২৪, ২১:৫৪

ভারতের প্রতিরক্ষামন্ত্রীর মন্তব্যের জবাব দিয়েছে পাকিস্তানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। প্রতীকী ছবি ভারতের প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিংয়ের করা ‘উসকানিমূলক মন্তব্যের’ তীব্র নিন্দা জানিয়েছে পাকিস্তান। সম্প্রতি এক সাক্ষাৎকারে ভারতের প্রতিরক্ষামন্ত্রী বলেছিলেন, ভারতে সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড চালানোর চেষ্টা করার পর কেউ সীমান্তের ওপারে পালিয়ে গেলে তাকে হত্যা করতে ভারত পাকিস্তানে প্রবেশ করবে। মন্তব্যটিকে ‘অদূরদর্শী’ ও ‘দায়িত্বজ্ঞানহীন’ বলে আখ্যা দিয়েছে পাকিস্তানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল জাজিরা এক প্রতিবেদনে খবরটি দিয়েছে।

ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম গার্ডিয়ানে ভারত ও পাকিস্তান-সম্পর্কিত একটি প্রতিবেদন প্রকাশের এক দিন পরই আলোচিত মন্তব্যটি করেন ভারতের প্রতিরক্ষামন্ত্রী। গার্ডিয়ানের প্রতিবেদনে বলা হয়েছিল, বিদেশের মাটিতে বসবাসকারী সন্ত্রাসীদের নির্মূল করার একটি বৃহত্তর পরিকল্পনার অংশ হিসেবে ২০২০ সাল থেকে পাকিস্তানে প্রায় ২০ জনকে হত্যা করেছে ভারত সরকার।

পাকিস্তান পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় গতকাল শনিবার এক বিবৃতিতে বলেছে, ‘পাকিস্তানের অভ্যন্তরে বিচার বিহীনভাবে সন্ত্রাসী আখ্যা দিয়ে বেসামরিক নাগরিকদের বিচারবহির্ভূতভাবে হত্যার ব্যাপারে স্পষ্টভাবে প্রস্তুতির কথা জানিয়ে ভারত তাদের অপরাধের কথা স্বীকার করেছে।’

বিবৃতিতে আরও বলা হয়, ‘এ ধরনের অদূরদর্শী এবং দায়িত্বজ্ঞানহীন আচরণ শুধু আঞ্চলিক শান্তিকেই নষ্ট করে না. বরং দীর্ঘ মেয়াদে গঠনমূলক সম্পৃক্ততার সম্ভাবনাকেও বাধা দেয়। যেকোনো ধরনের আগ্রাসনের বিরুদ্ধে পাকিস্তান তার সার্বভৌমত্ব রক্ষা করার ব্যাপারে দৃঢ়প্রতিজ্ঞ।’

স্থানীয় সম্প্রচারমাধ্যম সিএনএন নিউজ এইটিনকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে ভারতের প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিং বলেছিলেন, ‘সন্ত্রাসীরা পাকিস্তানে পালিয়ে গেলে আমরা তাদের হত্যা করতে পাকিস্তানে প্রবেশ করব। ভারত সব সময় তার প্রতিবেশী দেশগুলোর সঙ্গে সুসম্পর্ক বজায় রাখতে চায়। কিন্তু কেউ যদি ভারতকে বারবার চোখ রাঙায়, ভারতে এসে সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড করার চেষ্টা করে, আমরা তাদের ছেড়ে দেব না।’

নাম প্রকাশ না করার শর্তে পাকিস্তানি নিরাপত্তা কর্মকর্তারা আল জাজিরার কাছে স্বীকার করেছেন, ২০২৩ সালে পাকিস্তানের অভ্যন্তরে কমপক্ষে ছয়টি হত্যাকাণ্ড ঘটেছে এবং তার আগের বছরে দুটি। আর এসব হত্যাকাণ্ড ভারতের গুপ্তচর সংস্থা রিসার্চ অ্যান্ড অ্যানালাইসিস উইং (র) ঘটিয়েছে বলে তাদের ধারণা।

২০১৯ সালে কাশ্মীরে একটি ভারতীয় সামরিক বহরে আত্মঘাতী বোমা হামলায় পাকিস্তানভিত্তিক জঙ্গিদের জড়িত থাকার খবর পাওয়ার পর থেকে দুই দেশের মধ্যে সম্পর্ক আরও খারাপ হয়েছে। এর ধারাবাহিকতায় পাকিস্তানের একটি জঙ্গি ঘাঁটিতে বিমান হামলা চালিয়েছিল নয়াদিল্লি।

এ বছরের শুরুতে পাকিস্তান বলেছিল, তাদের মাটিতে পাকিস্তানের দুই নাগরিককে হত্যার সঙ্গে ভারতীয় এজেন্টদের জড়িত থাকার বিশ্বাসযোগ্য প্রমাণ রয়েছে তাদের কাছে। তবে পাকিস্তানের এই অভিযোগকে ‘মিথ্যা ও বিদ্বেষপূর্ণ’ বলে প্রত্যাখ্যান করেছে ভারত।

কানাডা ও যুক্তরাষ্ট্রও তাদের দেশে মানুষ হত্যা বা হত্যার চেষ্টার ব্যাপারে ভারতকে অভিযুক্ত করেছিল। সেই অভিযোগগুলোর কয়েক মাস পরে এল গার্ডিয়ানের এই আলোচিত প্রতিবেদন।

মন্তব্য

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।
Show
 
    সব মন্তব্য

    ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

    এলাকার খবর

     

    ভারতের লোকসভা নির্বাচনের পঞ্চম ধাপের ভোট গ্রহণ আজ, লড়ছেন রাহুল 

    ইরানি প্রেসিডেন্টের হেলিকপ্টার দুর্ঘটনার খবরে মোদির উদ্বেগ

    ‘মিসরীয় ছাত্রীকে হয়রানি’র ঘটনা থেকে কিরগিজ ও বিদেশি শিক্ষার্থীদের মধ্যে সংঘর্ষের সূত্রপাত

    হামলার পর কিরগিজস্তান ছেড়ে পালিয়ে দেশে এসেছে পাকিস্তানি শিক্ষার্থীরা 

    জম্মু-কাশ্মীরে গুলিতে বিজেপি নেতা নিহত, আহত পর্যটক দম্পতি 

    কিরগিজস্তানে হোস্টেলে হামলা, আতঙ্কে বাংলাদেশি শিক্ষার্থীরা

    আইসিবির শাখায় শাখায় ঘুরেও মিলছে না টাকা

    হেলিকপ্টার দুর্ঘটনায় নিহত ইরানের ইসলামি বিপ্লবের সন্তান কে এই ইব্রাহিম রাইসি 

    ইতিহাস গড়ার পর গার্দিওলা কি ম্যান সিটি ছাড়ার ইঙ্গিত দিলেন

    ব্রাহ্মণপাড়ায় সোনালু ফুলে শোভিত প্রকৃতি

    নিম্ন আদালতে পদ খালি, তবু হচ্ছে না বিচারকদের পদায়ন

    হেলিকপ্টার দুর্ঘটনায় নিহত ইরানের প্রেসিডেন্ট ও পররাষ্ট্রমন্ত্রী