বৃহস্পতিবার, ২৩ মে ২০২৪

সেকশন

 

বান্দরবানের ঘটনাই প্রমাণ করে দেশের নিরাপত্তাব্যবস্থা কত ভঙ্গুর: মির্জা ফখরুল

আপডেট : ০৭ এপ্রিল ২০২৪, ২১:৩৭

বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। ফাইল ছবি বান্দরবানের ঘটনায় দেশের নিরাপত্তাব্যবস্থা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। তিনি বলেছেন, ‘বান্দরবানের ঘটনাই প্রমাণ করে বাংলাদেশের নিরাপত্তাব্যবস্থা কত ভঙ্গুর।’ 

আজ রোববার রাজধানীর গুলশানে দলের চেয়ারপারসনের কার্যালয়ে এক অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন। অ্যাসোসিয়েশন অব ইঞ্জিনিয়ার্স বাংলাদেশের উদ্যোগে এই অনুষ্ঠানে বিএনপির গুম, খুন ও পঙ্গুত্বের শিকার ব্যক্তিদের পরিবারকে আর্থিক সহায়তা দেওয়া হয়।

মির্জা ফখরুল বলেন, ‘বাংলাদেশের সীমান্ত আজ ভয়াবহভাবে আক্রান্ত। কিন্তু সরকার এই সমস্যা সমাধান করতে পারেনি। গত কয়েক দিনে বান্দরবানের থানায় আক্রমণ হয়েছে। এখনো পর্যন্ত আমাদের সরকার বলতে পারছে না কারা এটার সঙ্গে জড়িত।’ 

বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ে উত্তপ্ত পরিস্থিতি নিয়ে ফখরুল বলেন, ‘আমরা তো ছাত্ররাজনীতির বিরোধী নই। কিন্তু শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলোতে তারা ভয়াবহ সন্ত্রাসের রাজত্ব প্রতিষ্ঠা করেছে। এমন কোনো বিশ্ববিদ্যালয় নেই যেখানে ছাত্রলীগের নৈরাজ্য নেই। ছাত্রলীগ হত্যা, খুন, ধর্ষণ সবকিছু করে চলেছে। একটি প্রতিষ্ঠান আছে, যেখানে জ্ঞানের কিছুটা চর্চা হচ্ছে। আজকে সেটাকেও তারা গ্রাস করতে চায়।’ 
 
সরকারের সার্বিক কর্মকাণ্ডের সমালোচনা করে তিনি বলেন, ‘এই সরকারের অপকীর্তির কথা বলে এখন আর সময় নষ্ট করতে চাই না। এরা সব দিক দিয়ে ব্যর্থ। এরা রাষ্ট্র পরিচালনায় ব্যর্থ হয়েছে, জনগণকে পথ দেখাতে ব্যর্থ হয়েছে। স্বাস্থ্যব্যবস্থা ভেঙে দেওয়া হয়েছে, শিক্ষাব্যবস্থা পরিপূর্ণভাবে ধ্বংস করা হয়েছে।’ 
 
চলমান আন্দোলন প্রসঙ্গে বিএনপি মহাসচিব বলেন, ‘আজকে আমাদের গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারের যে সংগ্রাম, কথা বলার সংগ্রাম, ভোটের অধিকার ফিরিয়ে আনার সংগ্রাম, এটা ন্যায়ের সংগ্রাম, সত্যের পথের সংগ্রাম, কখনই কোনো কালে ব্যর্থ হয়নি। সাধারণ মানুষের মধ্যে একটা আশা জেগেছিল যে এইবার বোধ হয় পরিবর্তন হবে। কিন্তু সরকার যে ভয়ংকর নির্যাতনের জন্য হয়তো আমরা কিছুক্ষণের জন্য হলেও থেমে গেছি। আমাদের ভেতরে যে আগুন জ্বলছে, আমরা প্রতিজ্ঞা নিয়েছি-দেশমাতৃকাকে মুক্ত করব, আমাদের অধিকারগুলোকে ফিরিয়ে আনব, ন্যায় বিচার প্রতিষ্ঠা করব।’ 

অনুষ্ঠানে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য আবদুল মঈন খান, সেলিমা রহমান, ভাইস চেয়ারম্যান মেজর (অব.) হাফিজ উদ্দিন আহমদসহ আরও অনেকে অংশ নেন।

মন্তব্য

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।
Show
 
    সব মন্তব্য

    ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

    এলাকার খবর

     

    গাজার গণহত্যাকে অস্বীকারকারীদের নিষেধাজ্ঞা নিয়ে আমাদের মাথাব্যথা নেই: কাদের

    এমপি আনোয়ারুল হত্যাকাণ্ডে আওয়ামী লীগে উদ্বেগ

    সাবেক সেনাপ্রধানের ওপর নিষেধাজ্ঞার জন্য সরকার দায়ী: মির্জা ফখরুল 

    ছাত্রদলের সাবেক সভাপতি–সহসভাপতির ওপর ছাত্রলীগের হামলা, ঢামেকে ভর্তি

    ঢাবি ক্যাম্পাসে গোলাম মওলা রনির গাড়িতে হামলা

    ভোটার উপস্থিতি কমের কারণ বিএনপি ও বুদ্ধিজীবীদের অপপ্রচার: কাদের

    উপজেলা পরিষদ নির্বাচন

    দ্বিতীয় ধাপের ভোটে যাঁরা চেয়ারম্যান হলেন

    সিলেটে নির্বাচনে হেরে আ.লীগ নেতাকে বেইজ্জতি করার হুমকি

    সিলেট থেকে সরাসরি হজ ফ্লাইট চালু

    পুনের পোর্শেকাণ্ড: আড়াই হাজার টাকার জন্য লাইসেন্স ছিল না সাড়ে ৩ কোটির গাড়িটির

    এমপি আনোয়ারুল আজীমকে খুন করতে ৫ কোটি টাকার চুক্তি

    যেসব কারণে ভ্রমণ ও পর্যটন সূচকে তলানিতে বাংলাদেশ