বৃহস্পতিবার, ২৩ মে ২০২৪

সেকশন

 

১৮ হাজার টাকা চুরির মামলায় ৩১ বছর পর খালাস

আপডেট : ০৬ এপ্রিল ২০২৪, ২২:৪৩

 আঠারো হাজার টাকা চুরির অভিযোগে মামলা হয় ১৯৯২ সালের ৭ আগস্ট। ওই মামলায় বিচারিক আদালত চারজনকে সাজা দেন ১৯৯৩ সালের ১৫ মে। এরপর তাঁরা রায়ের বিরুদ্ধে আপিল করলেও তা খারিজ হয়। অবশেষে হাইকোর্টে আবেদন করলে গত বছরের ১৫ ফেব্রুয়ারি আসামিদের অভিযোগ থেকে খালাস দেওয়া হয়। 

হাইকোর্ট রায়ে বলেন, সার্বিক পর্যালোচনায় প্রতীয়মান হয় যে, রাষ্ট্রপক্ষ অভিযোগ প্রমাণে সম্পূর্ণরূপে ব্যর্থ হয়েছে। হয়রানি করার হীন মানসে এই মিথ্যা মামলা করেছেন বাদী। বিচারিক আদালত ও আপিল আদালত সঠিকভাবে দালিলিক এবং মৌখিক সাক্ষ্য পর্যালোচনা ছাড়াই রায় দিয়েছেন, যা হস্তক্ষেপযোগ্য। 

রায়ে আরও বলা হয়, এক নম্বর সাক্ষী হচ্ছেন এই মামলার বাদী। এজাহারের সঙ্গে তাঁর সাক্ষ্যে যথেষ্ট গরমিল রয়েছে। ২,৩, ৫,৬ ও ৭ নম্বর সাক্ষী চুরির কথা শুনেছেন। চার নম্বর সাক্ষী টাকা উদ্ধারের সময় উপস্থিত ছিলেন না। আর ৮ নম্বর সাক্ষী তদন্তকারী কর্মকর্তা। 

বিচারপতি মো. আশরাফুল কামালের একক বেঞ্চের দেওয়া ১৩ পৃষ্ঠার ওই রায় সম্প্রতি সুপ্রিম কোর্টের ওয়েবসাইটে প্রকাশ করা হয়েছে। আদালতে রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল মো. আশেক মোমিন। আসামিপক্ষে কোনো আইনজীবী ছিলেন না। 

মামলার বিবরণ অনুযায়ী, ৯৯২ সালের ৩০ জুলাই সোনালী ব্যাংক থেকে ১৮ হাজার ৭৫০ টাকা তুলে ঘরের ট্রাঙ্কে রাখেন জব্বার মিয়া। পাশের কক্ষে বসবাসকারী ইব্রাহিম সেই টাকা রাখতে দেখেন। ওই বছরের ৫ আগস্ট রাতে ঘুম থেকে উঠে দেখেন ট্রাঙ্কটি নেই। বাইরে গিয়ে দেখেন ইব্রাহিম ও কবির ট্রাঙ্ক ফেলে দৌড়ে পালাচ্ছেন। পরে ৭ আগস্ট নরসিংদী থানায় মামলা করা হয়। 
 
মামলার বিচার শেষে ১৯৯৩ সালের ১৫ মে আসামিদের কারাদণ্ড দেন আদালত। রায়ে আসামি কবির, রাজ্জাক ও ইব্রাহিমকে ছয় মাসের কারাদণ্ড এবং রাজ্জাকের মা কিরণ নেছাকে তিন মাসের কারাদণ্ড দেওয়া হয়। আর আলামত হিসেবে জব্দ টাকা বাদীকে ফেরত দিতে বলা হয়। 

রায়ের বিরুদ্ধে আপিল করলে নরসিংদীর দায়রা জজ আদালত ১৯৯৫ সালের ২৫ মার্চ তা নামঞ্জুর করেন। এরপর আব্দুর রাজ্জাকসহ অন্য আসামিরা আপিল খারিজের বিরুদ্ধে হাইকোর্টে রিভিশন আবেদন করেন।

মন্তব্য

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।
Show
 
    সব মন্তব্য

    ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

    এলাকার খবর

     
    সাক্ষাৎকার

    এই নিষেধাজ্ঞার পেছনে রাজনীতি আছে: আজিজ আহমেদ

    যুক্তরাষ্ট্রের সব অভিযোগ অস্বীকার করে চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দিলেন জেনারেল আজিজ 

    ফাঁসি থেকে ভাইকে রেহাই, আজিজ আহমেদের বিরুদ্ধে আরও যেসব অভিযোগ

    দুর্নীতির অভিযোগে জেনারেল আজিজের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা সেনাবাহিনীর বিষয়: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

    হাইকোর্টের নির্দেশ অমান্য করে উচ্ছেদ অভিযান, রাজউক চেয়ারম্যানসহ ৮ জনের বিরুদ্ধে রুল

    মিয়ানমারে তো নয়, উনি ভারতে গেছেন, শিগগিরই ফিরবেন: নিখোঁজ এমপি প্রসঙ্গে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

    উপজেলা পরিষদ নির্বাচন

    দ্বিতীয় ধাপের ভোটে যাঁরা চেয়ারম্যান হলেন

    সিলেটে নির্বাচনে হেরে আ.লীগ নেতাকে বেইজ্জতি করার হুমকি

    সিলেট থেকে সরাসরি হজ ফ্লাইট চালু

    পুনের পোর্শেকাণ্ড: আড়াই হাজার টাকার জন্য লাইসেন্স ছিল না সাড়ে ৩ কোটির গাড়িটির

    এমপি আনোয়ারুল আজীমকে খুন করতে ৫ কোটি টাকার চুক্তি

    যেসব কারণে ভ্রমণ ও পর্যটন সূচকে তলানিতে বাংলাদেশ