সোমবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০২১

সেকশন

 

‘হঠাৎ চাহিদা বাড়লে, দামতো একটু বাড়বেই’

আপডেট : ১৬ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০০:০৯

হঠাৎ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার কারণে শিক্ষা সামগ্রীর দাম বেড়েছে। ছবি: আজকের পত্রিকা প্রায় ২ বছর পর খোলা হয়েছে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান। স্কুলগুলোতে শুরু হয়েছে শিক্ষার্থীদের আনাগোনা। বিদ্যালয় প্রাঙ্গণ এখন শিশু-কিশোরদের উপস্থিতিতে মুখরিত। এ শিক্ষার্থীদের জন্য তাপমাত্রা মাপার যন্ত্র, হ্যান্ড স্যানিটাইজার কিনতে হচ্ছে। কিন্তু করোনা সতর্কতায় এবার শিক্ষা সামগ্রীর পাশাপাশি স্কুল, কলেজে কিনতে হচ্ছে ইনফ্রা রেড থার্মোমিটার, মাস্ক, স্যানিটাইজার, বেসিনসহ নানা রকম সামগ্রী। এ ছাড়া এসব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে নতুন করে প্রয়োজন পড়ছে হোয়াইট বোর্ড, মার্কার, প্রিন্টিং পেপার, পিন, কাগজ, কলম, টেপসহ অন্তত ৩০ ধরনের শিক্ষা সামগ্রী।

স্কুল খোলার পর অনেক শিক্ষার্থীর প্রয়োজন পড়ছে বই, খাতা, স্কুল ড্রেস, জুতোসহ নানা রকম শিক্ষা সামগ্রীরও।

সব মিলে শিক্ষাসামগ্রীর ব্যবসা এখন চাঙা। বিক্রি এতটাই বেড়েছে যে বাজারে সাদা জুতো, ড্রেস, তাপমাত্রা মাপার যন্ত্রসহ নানা পণ্যের সংকট দেখা দিয়েছে। সুযোগ বুঝে দামও বাড়িয়ে দিয়েছেন বিক্রেতারা। দেড় বছর পর সুদিন দেখছেন এ খাতের ব্যবসায়ীরা।

চট্টগ্রাম জেলায় প্রাথমিক, মাধ্যমিক, উচ্চ মাধ্যমিক, সরকারি বেসরকারি কলেজ ও কিন্ডারগার্টেন মিলিয়ে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের সংখ্যা অন্তত ২০ হাজার। আর শিক্ষার্থীর সংখ্যা প্রায় ৫০ লাখ। যাদের সবাই বাজার থেকে কিছু না কিছু কিনছেন।

নগরীর রেয়াজ উদ্দিন বাজারের গোলাম রসূল মার্কেটে স্কুল সামগ্রী কিনতে আসা চাইল্ড হেভেন স্কুলের শিক্ষক হানিফ মজুমদার বলেন, আমি হোয়াইট বোর্ড, স্কেল, মার্কার, ফাইলসহ নানা সামগ্রী কিনছি। প্রত্যেকটি জিনিসের দাম বাড়তি। ৩০০ টাকার হোয়াইট বোর্ড এখন ৪০০ টাক। মার্কারের দাম বেড়েছে ৫ টাকা। বাড়তি দামেও প্রয়োজনমতো পাচ্ছি না।

এ মার্কেটে স্টেশনারি সামগ্রীর পাইকারি দোকান আছে অন্তত বিশটি। প্রত্যেকটি দোকানেই দিন রাত ভিড়। এখানকার নুর পেপার হাউসের বিক্রেতা মোশাররফ হোসেন বলেন, স্কুল-কলেজ খোলার খবরে গত এক সপ্তাহ ধরে বিক্রি বেড়েছে। পুরো জেলা থেকে শিক্ষক ও খুচরা দোকানিরা আসছেন। হঠাৎ চাহিদা বাড়লে, দামতো একটু বাড়বেই।

পাশেই কামরাবাদ স্টেশনারি আরেক বিক্রেতা জানান, অন্তত ৩০ ধরনের পণ্যের চাহিদা তিনগুণ বেড়েছে। কিছু পণ্য আমদানি করতে হয়। একসঙ্গে স্কুল কলেজ খোলায় চাহিদা মতো সংগ্রহ নেই, তাই বাজারে সংকট তৈরি হয়েছে।

হঠাৎ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার কারণে শিক্ষা সামগ্রীর দাম বেড়েছে। ছবি: আজকের পত্রিকা

চট্টগ্রামে চিকিৎসা সামগ্রী ও ল্যাবের রাসায়নিকের জন্য বিখ্যাত আন্দরকিল্লার তাজ স্টেশনারি। এ প্রতিষ্ঠানের ম্যানেজার মো. রিদোয়ান জানান, সব স্কুলে অন্তত দুটি করে হলেও ৪০ হাজারের মতো ইনফ্রা রেড থার্মোমিটার প্রয়োজন। এর বাইরে রসায়ন, পদার্থ ও জীব বিজ্ঞানের ল্যাবের জন্য প্রয়োজনীয় রাসায়নিক, টেস্ট টিউব, বিকার, ফানেল, ওজন পরিমাপক যন্ত্রসহ বিভিন্ন জিনিসের চাহিদা বেড়ে গেছে। তবে আমাদের প্রতিষ্ঠানের সুনাম আছে, তাই দাম বাড়াইনি। কিন্তু বড় কথা হচ্ছে, এত পণ্য একসঙ্গে লাগছে, আমাদের কাছে তো মজুত নেই।

জিইসি মোড়ে সন্তানের জন্য জুতো কিনতে আসা অভিভাবক ইয়াসমিন আক্তার বলেন, দেড় বছর আগের জুতো এখন আর বাচ্চার পায়ে হচ্ছে না। তাই সাদা জুতো খুঁজছি, বেশ কয়েকটি দোকান খোঁজ করলাম, মাপ মতো পাচ্ছি না। আগেই বিক্রি হয়ে গেছে। এখন না কিনেই ফেরত যাচ্ছি।

হকার্স মার্কেটে ছেলের জন্য সাদা শার্ট কিনতে এসেছেন শহীদ উদ্দিন। তিনি বলেন, এখনতো সেলাই করার মতো সময় নেই, কিনতে এসে দেখলাম অন্তত ৫০ টাকা বাড়তি দাম বলছে বিক্রেতারা। আমার ছেলে ক্লাস ফাইভে পড়ে। আমি করোনার আগের জামাটি ১৫০ টাকায় কিনেছি, এখন ২২০ টাকায় কিনলাম। 

সবচেয়ে বেশি ব্যস্ত টেইলার্সের দোকানিরা। গত কয়েক দিনে স্কুল ড্রেসের অর্ডার এসেছে প্রচুর। তাই ব্যস্ততাও বেড়েছে। বাওয়া স্কুলের সামনে টেইলার্স দোকানের মালিক আরিফ জানান, আমরা কিছু ড্রেস অগ্রিম সেলাই করে রেখেছি, স্কুল খুললে ড্রেস লাগবে সেটি আমরা জানতাম। এখন বিক্রি বাড়ায় ভালো লাগছে।

আন্দরকিল্লা নগরীর লাইব্রেরি পাড়া হিসেবে খ্যাত। তবে বিক্রি বাড়লেও এখনো খুব একটা ব্যবসা জমেনি বলে দাবি এখানকার বিক্রেতাদের। পাঠক বুকসের বিক্রেতা কাউসার হোসেন বলেন, যেভাবে বই খাতা বিক্রি হবে ভেবেছি, সেভাবে এখনো হচ্ছে না। এই সপ্তাহে তো শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান চালু হলো, দেখি আগামী সপ্তাহের দিকে হয়তো বেচা বিক্রি বাড়বে। 

মন্তব্য

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।
Show
 
    সব মন্তব্য

    ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

    এলাকার খবর

    কক্সবাজারে নির্বাচনী সহিংসতায় নিহত ২, পাঁচ কেন্দ্রে ভোটগ্রহণ বন্ধ 

    কক্সবাজারে নির্বাচনী সহিংসতায় নিহত ২, পাঁচ কেন্দ্রে ভোটগ্রহণ বন্ধ 

    ধর্ষণের অভিযোগে ময়মনসিংহ জেলা স্বেচ্ছাসেবক পার্টির সভাপতি গ্রেপ্তার

    ধর্ষণের অভিযোগে ময়মনসিংহ জেলা স্বেচ্ছাসেবক পার্টির সভাপতি গ্রেপ্তার

    ডা. প্রাণ গোপাল দত্তকে বিজয়ী ঘোষণা করে গণবিজ্ঞপ্তি

    ডা. প্রাণ গোপাল দত্তকে বিজয়ী ঘোষণা করে গণবিজ্ঞপ্তি

    স্বাস্থ্যের সেই মালেকের ১৫ বছরের কারাদণ্ড

    স্বাস্থ্যের সেই মালেকের ১৫ বছরের কারাদণ্ড

    ফেনীতে তমিজিয়া মসজিদের পুনর্নির্মাণের ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন

    ফেনীতে তমিজিয়া মসজিদের পুনর্নির্মাণের ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন

    বংশ পরম্পরায় কাঠকয়লায় চলে তাঁদের জীবন

    বংশ পরম্পরায় কাঠকয়লায় চলে তাঁদের জীবন

    কৃষক দলের নতুন কমিটির সভাপতি তুহিন, সম্পাদক বাবুল

    কৃষক দলের নতুন কমিটির সভাপতি তুহিন, সম্পাদক বাবুল

    কক্সবাজারে নির্বাচনী সহিংসতায় নিহত ২, পাঁচ কেন্দ্রে ভোটগ্রহণ বন্ধ 

    কক্সবাজারে নির্বাচনী সহিংসতায় নিহত ২, পাঁচ কেন্দ্রে ভোটগ্রহণ বন্ধ 

    ধর্ষণের অভিযোগে ময়মনসিংহ জেলা স্বেচ্ছাসেবক পার্টির সভাপতি গ্রেপ্তার

    ধর্ষণের অভিযোগে ময়মনসিংহ জেলা স্বেচ্ছাসেবক পার্টির সভাপতি গ্রেপ্তার

    ফুটবলে ‘আড়ালের আলাদিন’ সেট পিস কোচরা

    ফুটবলে ‘আড়ালের আলাদিন’ সেট পিস কোচরা

    ডা. প্রাণ গোপাল দত্তকে বিজয়ী ঘোষণা করে গণবিজ্ঞপ্তি

    ডা. প্রাণ গোপাল দত্তকে বিজয়ী ঘোষণা করে গণবিজ্ঞপ্তি

    জাককানইবির ভারপ্রাপ্ত পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক হলেন আব্দুল হালিম

    জাককানইবির ভারপ্রাপ্ত পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক হলেন আব্দুল হালিম