শনিবার, ২২ জুন ২০২৪

সেকশন

 

অস্ত্র কেনায় ভারতই শীর্ষে, বিক্রিতে রাশিয়াকে ছাড়িয়ে গেল ফ্রান্স

আপডেট : ১১ মার্চ ২০২৪, ২০:০৮

ছবি: এএফপি অস্ত্র কেনাবেচার পঞ্চবার্ষিক হিসাব অনুযায়ী, প্রতিবেশী দেশ ভারতই গত পাঁচ বছরে পৃথিবীর অন্য যেকোনো দেশের চেয়ে বেশি অস্ত্র ক্রয় করেছে। ইন্টারন্যাশনাল পিস রিসার্চ ইনস্টিটিউটের (এসআইপিআরআই) একটি নতুন প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

এ বিষয়ে আজ সোমবার দ্য প্রিন্টের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ২০১৪ থেকে ২০১৮—এই পাঁচ বছরের তুলনায় ২০১৯ থেকে ২০২৩ সাল পর্যন্ত গত পাঁচ বছরে ভারতের অস্ত্র আমদানি ৪ দশমিক ৭ শতাংশ বেড়েছে। যদিও ‘মেক ইন ইন্ডিয়া’ উদ্যোগের অংশ হিসেবে দেশের ভেতরেই বিপুলসংখ্যক অস্ত্র তৈরির পরিকল্পনা গ্রহণ করেছে ভারত সরকার।

এসআইপিআরআই রিপোর্টে বলা হয়েছে, ভারত রাশিয়ার কাছ থেকেই সবচেয়ে বেশি অস্ত্র আমদানি করেছে। গত পাঁচ বছরে ভারতের আমদানি করা অস্ত্রের এক-তৃতীয়াংশের বেশি (প্রায় ৩৬ শতাংশ) রাশিয়া সরবরাহ করেছে।

শুধু তা-ই নয়, গত পাঁচ বছরে ফ্রান্স যে দেশে সবচেয়ে বেশি অস্ত্র আমদানি করেছে, সেই দেশটিও ভারত। পরিসংখ্যান বলছে, ২০১৯ থেকে ২০২৩ সালের মধ্যে বিশ্বের বিভিন্ন দেশে ফ্রান্সের সরবরাহ করা অস্ত্রের ৩০ শতাংশই ভারত ক্রয় করেছে।

এসআইপিআরআই প্রতিবেদন বলছে, ২০১৪—১৮ পঞ্চবার্ষিকের তুলনায় ২০১৯— ২৩ পঞ্চবার্ষিকে ফ্রান্সের অস্ত্র ব্যবসা ৪৭ শতাংশ পর্যন্ত বেড়েছে। এর ফলে রাশিয়াকে টপকে যুক্তরাষ্ট্রের পর ফ্রান্সই এখন বিশ্বের দ্বিতীয় বৃহত্তম অস্ত্র রপ্তানিকারক দেশ। মূলত ভারত, কাতার ও মিসরে যুদ্ধবিমান সরবরাহ করার কারণেই ফরাসিদের অস্ত্র ব্যবসা ফুলেফেঁপে উঠেছে।

এদিকে পূর্ববর্তী পাঁচ বছরের তুলনায় গত পাঁচ বছরে রাশিয়ার অস্ত্র বিক্রি অর্ধেকেরও বেশি প্রায় ৫৩ শতাংশ পর্যন্ত কমে গেছে। প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ২০১৯ সালে রাশিয়া যখন ৩১টি দেশে বড় অস্ত্র রপ্তানি করেছিল, সেই তুলনায় ২০২৩ সালে তারা মাত্র ১২টি দেশে এ ধরনের রপ্তানি করেছে। রুশ অস্ত্র ব্যবসা এমন একসময়ে কমে গেছে, যখন দেশটি ইউক্রেনে সর্বাত্মক হামলা পরিচালনা করছে এবং যুক্তরাষ্ট্রসহ পশ্চিমা দেশগুলো রাশিয়ার ওপর বেশ কিছু নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে। এসব নিষেধাজ্ঞায় দেশটির অস্ত্র ব্যবসাকেও লক্ষ্যবস্তু করা হয়েছে বলে বিবিসির এক প্রতিবেদনে জানা গেছে।

আশ্চর্যের বিষয় হলো আর্থিক নানা সমস্যার মধ্যেও গত পাঁচ বছরে পাকিস্তানের অস্ত্র আমদানি ৪৩ শতাংশ বেড়েছে। এসআইপিআরআইয়ের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ২০১৯ থেকে ২০২৩ সালের মধ্যে অস্ত্র আমদানিতে পৃথিবীর পঞ্চম বৃহত্তম দেশ ছিল পাকিস্তান। দেশটি তার আমদানি করা অস্ত্রের ৮২ শতাংশই চীন থেকে ক্রয় করেছে। এর ফলে অস্ত্র ব্যবসায় চীনও প্রভাবশালী হয়ে উঠেছে।

সামগ্রিকভাবে দেখা গেছে, রাশিয়ার অস্ত্র রপ্তানি উল্লেখযোগ্য হারে কমে গেলেও গত পাঁচ বছরে যুক্তরাষ্ট্র ও ফ্রান্সের অস্ত্র রপ্তানি উল্লেখযোগ্যভাবে বেড়েছে। এই সময়ের মধ্যে যুক্তরাষ্ট্রের অস্ত্র ব্যবসা ১৭ শতাংশ বেড়েছে। এর ফলে বিশ্বে রপ্তানি হওয়া মোট অস্ত্রের ৪২ শতাংশই ছিল যুক্তরাষ্ট্রের দখলে। গত পাঁচ বছরে দেশটি ১০৭টি দেশে বড় ধরনের অস্ত্রের চালান পাঠিয়েছে। গত ২৫ বছরের মধ্যে প্রথমবারের মতো এশিয়া এবং ওশেনিয়া অঞ্চলে সবচেয়ে বড় অস্ত্র সরবরাহকারী হয়ে উঠেছে যুক্তরাষ্ট্র।

মন্তব্য

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।
Show
 
    সব মন্তব্য

    ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

    এলাকার খবর

     

    অভিনেতা পবন কল্যাণের কাছে হেরে নিজের নাম পাল্টালেন প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী

    সেলফি তুলে ফিলিস্তিন-ইসরায়েল দ্বন্দ্বের মাঝখানে এবার শহীদ আফ্রিদি

    ৪ বছর পর সরাসরি ফ্লাইট চালুর প্রস্তাব চীনের, নিশ্চুপ ভারত

    লিমোজিনের চালকের আসনে পুতিন, পাশে হাস্যোজ্জ্বল কিম

    ইউক্রেনকে অস্ত্র দিলে চরম ভুল করবে দ. কোরিয়া, পুতিনের হুঁশিয়ারি 

    কেজরিওয়ালের জন্য বড় ধাক্কা, দিল্লি হাইকোর্টে জামিন আদেশ স্থগিত

    সংকট নেই, তবু বাড়ল সবজি, মাছের দাম

    চাঁপাইনবাবগঞ্জে ইজারা ছাড়াই ৬ ফেরিঘাট থেকে ‘টোল’ আদায়

    ট্রেনের ছাদে উঠে ভ্রমণ, মাথায় আঘাত পেয়ে তরুণের মৃত্যু

    গভীর রাতে খালেদা জিয়াকে হাসপাতালে ভর্তি 

    সাক্ষাৎকার

    আমাদের আরও অনেক কিছু দেওয়ার আছে: টিপু