সোমবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০২১

সেকশন

 

বিজ্ঞান

মঙ্গলে যেতে যত বাধা

আপডেট : ১৫ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৮:০০

আগামী দশকেই এমন পোশাক পরে মঙ্গলে যেতে পারে মানুষ। ছবি: অ্যাস্ট্রোনমি মহাকাশে প্রথম গেল সোভিয়েত ইউনিয়নের ইউরি গাগারিন, ১৯৬১ সালে। যুক্তরাষ্ট্রই বা পিছিয়ে থাকবে কেন? তারা চাঁদে পাঠাল মানুষ। আর্মস্ট্রং, অলড্রিন, কলিন্সের নামও চন্দ্রজয়ী হিসেবে লেখা হয়ে গেল ইতিহাসে। সেটা ১৯৬৯ সাল।

সেখানেই কি থেমে গেল অভিযান? মোটেই না। চলতে থাকল।

জীবনটা সহজ করতে গিয়ে তা জটিল করে ফেলেছে মানুষ। বাতাসে মিশে গেছে প্রাণনাশকারী জীবাণু। ক্ষণে ক্ষণে কেঁপে উঠছে পৃথিবী। আর এর জলবায়ু শুরু করেছে উল্টো আচরণ। কোথাও দাউ দাউ আগুনে ধ্বংস হচ্ছে প্রকৃতি, কোথাও বানের জলে ভেসে যাচ্ছে হাজার হাজার স্বপ্ন।

পৃথিবীটা যে ক্রমশই বসবাসের অযোগ্য হয়ে যাচ্ছে, সে অনুমান করেছিলেন বিজ্ঞানীরা। বিকল্প খুঁজতে তাঁরা নজর দিয়েছেন মহাকাশে। জানা-অজানা নক্ষত্ররাজিতেই খুঁজতে হবে নতুন আবাস। রাতের আকাশে জ্বলতে থাকা তারায় সংসার করার স্বপ্নও থাকছে মনে।

দীর্ঘ গবেষণায় স্বপ্নের কাছাকাছি পৌঁছানো গেছে। আগেই তো বলা হলো, চাঁদের বুকে পা রেখেছে মানুষ। নভোযান পাঠিয়েছে বিভিন্ন গ্রহে। কিন্তু বিকল্প কোনো গ্রহে যাওয়া এখনো সম্ভব হয়নি।

বিজ্ঞানীরা মহাকাশযান পাঠিয়ে জানতে পেরেছেন, পৃথিবীর আশপাশে থাকা গ্রহের মধ্যে মঙ্গল গ্রহ হয়ে উঠতে পারে বসবাসের উপযুক্ত স্থান। প্রাণের অস্তিত্ব খোঁজা হচ্ছে সেখানে। সে কাজটি করছে যুক্তরাষ্ট্রের মহাকাশ গবেষণা সংস্থা নাসার পারসিভারেন্স রোভার।

চীনই বা পিছিয়ে থাকবে কেন? মহাকাশ গবেষণায় নতুন দিগন্ত ছুঁয়েছে তারা। মঙ্গলে ঘুরে বেড়াচ্ছে তাদের জুরং রোভার। কিন্তু এখনো মঙ্গলে কোনো মানুষের পা স্পর্শ করেনি। কেন? সেটাই তো জানা দরকার।

নাসা বলছে, প্রধান বাধা প্রযুক্তিগত অক্ষমতা। মঙ্গলে মানুষের যাতায়াতের জন্য উপযুক্ত কোনো যান এখনো তৈরি করা সম্ভব হয়নি। মঙ্গলের আবহাওয়া মানুষের দেহে কেমন প্রভাব ফেলবে, সেটি এখনো কেউ জানে না। কেউ জানে না, ধোঁয়াশা তৈরি করা এই গ্রহের জলবায়ু মানবদেহের জন্য কতটা সহায়ক হবে। আর মঙ্গলে গিয়ে মানুষ খাবে কী—সেটাও এখনো ধাঁধা।

আরও একটা ব্যাপার হলো, মঙ্গল আর পৃথিবীর দূরত্ব। নাসার মঙ্গল স্থাপত্য দল ও জনসন মহাকাশকেন্দ্রের পরিচালক মিশেল রাকার জানান, গ্রহটির সবচেয়ে কাছের দিকটা পৃথিবী থেকে সাড়ে ৫ কোটি কিলোমিটার দূরে। আর দূরত্বও সব সময় এক থাকে না। তাই ইচ্ছে হলেই সেখানে যাওয়া যাবে না।

নাসার অন্যতম প্রধান প্রকৌশলী এবং মহাকাশ মিশনের অন্যতম সদস্য জেফরি সেহি জানান, ১৫ বছর পর পর সবচেয়ে সহজ পথ তৈরি হয়। এমন সুযোগ আগামী দশকে আসার সম্ভাবনা রয়েছে। তখনই যাত্রার ব্যবস্থা করা উচিত হবে।

মহাকাশে মানুষের অভিযানে যেসব জ্বালানি ব্যবহৃত হয়েছে, সেগুলো দীর্ঘ পথে যাওয়ার উপযুক্ত নয়। দ্রুত মঙ্গলে যেতে হলে বিকল্প কিছু ভাবতে হবে। পারমাণবিক বৈদ্যুতিক জ্বালানি কার্যকর সমাধান হতে পারে বলে মনে করেন জেফরি সেহি।

মঙ্গলের মাটি কিন্তু এবড়োখেবড়ো! সেখানে অবতরণে থাকে ঝুঁকি, একটু এদিক-ওদিক হলেই ভবলীলা সাঙ্গ হয়ে যাবে। তবে আশার কথা বলেছে নাসা। বিশেষ প্যারাসুট বানাচ্ছে সংস্থাটি।

মন্তব্য

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।
Show
 
    সব মন্তব্য

    ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

    এলাকার খবর

    বিশ্বের সবচেয়ে লম্বা জাতির উচ্চতা কমছে

    বিশ্বের সবচেয়ে লম্বা জাতির উচ্চতা কমছে

    মৃতদেহে প্রাণের সঞ্চার সম্ভব কি?

    মৃতদেহে প্রাণের সঞ্চার সম্ভব কি?

    কবে থেকে মানুষ পোশাক পরা শিখল

    কবে থেকে মানুষ পোশাক পরা শিখল

    ডিমের গাণিতিক সমীকরণ আবিষ্কার

    ডিমের গাণিতিক সমীকরণ আবিষ্কার

    সম্পর্ক মেরামতে হাসুন

    সম্পর্ক মেরামতে হাসুন

    নিউট্রন স্টারের পাহাড় আসলে কেমন

    নিউট্রন স্টারের পাহাড় আসলে কেমন

    ই-কমার্স রেগুলেটরি অথোরিটি গঠন করতে হাইকোর্টে রিট

    ই-কমার্স রেগুলেটরি অথোরিটি গঠন করতে হাইকোর্টে রিট

    কাপ্তাই লেকে নিখোঁজের ১৭ ঘণ্টা পর সাবেক ইউপি সদস্যের মরদেহ উদ্ধার

    কাপ্তাই লেকে নিখোঁজের ১৭ ঘণ্টা পর সাবেক ইউপি সদস্যের মরদেহ উদ্ধার

    কৃষক দলের নতুন কমিটির সভাপতি তুহিন, সম্পাদক বাবুল

    কৃষক দলের নতুন কমিটির সভাপতি তুহিন, সম্পাদক বাবুল

    কক্সবাজারে নির্বাচনী সহিংসতায় নিহত ২, পাঁচ কেন্দ্রে ভোটগ্রহণ বন্ধ 

    কক্সবাজারে নির্বাচনী সহিংসতায় নিহত ২, পাঁচ কেন্দ্রে ভোটগ্রহণ বন্ধ 

    ধর্ষণের অভিযোগে ময়মনসিংহ জেলা স্বেচ্ছাসেবক পার্টির সভাপতি গ্রেপ্তার

    ধর্ষণের অভিযোগে ময়মনসিংহ জেলা স্বেচ্ছাসেবক পার্টির সভাপতি গ্রেপ্তার

    ফুটবলে ‘আড়ালের আলাদিন’ সেট পিস কোচরা

    ফুটবলে ‘আড়ালের আলাদিন’ সেট পিস কোচরা