বৃহস্পতিবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১

সেকশন

 

জীবন অগাধ

প্রগতিতে দ্বিজেন শর্মা

আপডেট : ১৫ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৯:০০

দ্বিজেন শর্মা হায়াৎ মামুদ চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষকতা করার সময় লেনিনগ্রাদে গিয়েছিলেন রুশ ভাষা শিখতে। ফেরার পথে যোগাযোগ হয়েছিল মস্কোর প্রগতি প্রকাশনের জ্যেষ্ঠ অনুবাদক ননী ভৌমিকের সঙ্গে। তিনি হায়াৎ মামুদকে প্রগতি প্রকাশনে যোগ দিতে বলেন। ১৯৭৩ সালে হায়াৎ মামুদ চলে গেলেন রাশিয়ায়। সেখানে গিয়ে তিনি প্রগতি প্রকাশনের বাংলা বিভাগের প্রধান রাইসা ভাসিলিয়েভনাকে বলেন দ্বিজেন শর্মাকে অনুবাদ বিভাগে নিয়ে আসার জন্য। রাইসা বাংলাদেশে এসে দ্বিজেন শর্মার হাতে দুটো ইংরেজি টেক্সট ধরিয়ে দিয়ে বলেন, এগুলোর বাংলা অনুবাদ করে তাঁর কাছে পৌঁছে দিতে। দ্বিজেন শর্মা সে কাজটি করলেন। কিছুদিনের মধ্যেই প্রগতি প্রকাশনের নিয়োগপত্র এসে হাজির!

এ সময় টেলিফোন, ‘হ্যালো, আমি কি দ্বিজেন শর্মা মহাশয়ের সঙ্গে কথা বলতে পারি?’

ফোন করেছেন খালেদ চৌধুরী। ঢাকার রুশ সংস্কৃতি কেন্দ্রে কাজ করেন। তিনিও মস্কো যাচ্ছেন অনুবাদের কাজে, সে কথা জানালেন।

খালেদের বন্ধুদের সহায়তায় পাসপোর্ট হয়ে গেল। ১৯৭৪ সালের ১৮ আগস্ট ঢাকা বিমানবন্দর থেকে অ্যারোফ্লোত উড়ল সোভিয়েত ইউনিয়নের দিকে। বোম্বে, তেহরান ও তাসখন্দে বিরতি নিয়ে প্লেন থামল মস্কোর শেরেমেতোভা বিমানবন্দরে। সেখানে হাজির হলেন হাসান হাফিজুর রহমান, আবদুল্লাহ আল মুতী, হায়াৎ মামুদেরা। প্রথম দুজন তখন মস্কোতে বাংলাদেশ দূতাবাসের প্রেস ও শিক্ষা অ্যাটাশে। প্রগতি প্রকাশনে যাওয়ার পর দেখা হলো আরও অনেকের সঙ্গে।

দ্বিজেন শর্মাকে প্রথম অনুবাদ করতে দেওয়া হয় মিখাইল নেস্তুর্খের লেখা ‘রেসেস অব ম্যানকাইন্ড’ নামে নৃতত্ত্বের একটি বই। তিনি দ্রুত অনুবাদ করে ফেলেন। পরের বইটি প্রখ্যাত হৃদরোগ বিশেষজ্ঞ নিকোলাই আমোসভের আত্মজীবনী ‘হৃদয় ও হৃৎপিণ্ড’ নামে।

এভাবেই শুরু হলো দ্বিজেন শর্মার প্রগতি প্রকাশনের সঙ্গে যোগাযোগ। দীর্ঘ রুশ জীবনে তিনি অনেক কিছুই দেখেছেন, যা লিখেও রেখে গেছেন তাঁর বইগুলোয়। আজ ১৫ সেপ্টেম্বর তাঁর মৃত্যুদিন।

সূত্র: দ্বিজেন শর্মা, জীবনস্মৃতি, মধুময় পৃথিবীর ধূলি, পৃষ্ঠা ১৬১-১৬৩

মন্তব্য

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।
Show
 
    সব মন্তব্য

    ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

    এলাকার খবর

    বুদ্ধদেবের চোখে নজরুল

    বুদ্ধদেবের চোখে নজরুল

    নরম বকা

    নরম বকা

    তামাকমুক্ত বাংলাদেশ অর্জনে শক্তিশালী আইন জরুরি

    তামাকমুক্ত বাংলাদেশ অর্জনে শক্তিশালী আইন জরুরি

    মাগুরায় শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে জলাবদ্ধতায় ভোগান্তি শিক্ষার্থীদের

    মাগুরায় শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে জলাবদ্ধতায় ভোগান্তি শিক্ষার্থীদের

    ইভ্যালির ব্যবসায় ভুল স্বীকার রাসেলের

    ইভ্যালির ব্যবসায় ভুল স্বীকার রাসেলের

    সেই গার্দিওলাকেই ফেরাতে চায় বার্সেলোনা!

    সেই গার্দিওলাকেই ফেরাতে চায় বার্সেলোনা!

    আলীপুরে জেলেদের দুই গ্রুপের সংঘর্ষে আহত ১৫

    আলীপুরে জেলেদের দুই গ্রুপের সংঘর্ষে আহত ১৫

    নির্দলীয় সরকার ব্যবস্থা ছাড়া আগামী নির্বাচনে না যাওয়ার পরামর্শ

    নির্দলীয় সরকার ব্যবস্থা ছাড়া আগামী নির্বাচনে না যাওয়ার পরামর্শ