শনিবার, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১

সেকশন

 

ঝিকরগাছায় জন্মনিবন্ধন সংশোধনে ইচ্ছেমতো টাকা আদায়

আপডেট : ১৪ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২৩:২২

‘ওপরে টাকা লাগবে’ দোহাই দিয়ে যা খুশি ফি নেওয়া হচ্ছে। ছবি: আজকের পত্রিকা জন্মনিবন্ধন সংশোধনের নামে সংশ্লিষ্ট ইউনিয়ন পরিষদগুলোতে ইচ্ছেমতো টাকা নেওয়ার অভিযোগ উঠেছে। যশোরের ঝিকরগাছা উপজেলার অধিকাংশ ইউনিয়ন পরিষদের সচিবরা জন্মনিবন্ধন সংশোধনে ‘ওপরে টাকা লাগবে’ দোহাই দিয়ে যা খুশি ফি নেওয়া হচ্ছে। এ বিষয় উপজেলা প্রশাসন কড়া হুঁশিয়ারি দিলেও তাতে লাভ হয়নি।

উপজেলা প্রশাসনের তথ্যমতে, জন্মনিবন্ধনে নাম সংশোধনে ৫০ টাকা, জন্ম সাল–তারিখ ১০০ টাকাসহ ২০ টাকা কোর্ট ফি দিয়ে আবেদন করতে হবে। তবে উদ্যোক্তাকে অতিরিক্ত ২০-৫০ টাকা দিতে উপজেলা প্রশাসন থেকে অলিখিতভাবে বলা আছে।

কিন্তু জন্মনিবন্ধন সংশোধনে ১০০ টাকা ফি নেওয়ার পরিবর্তে ‘ওপরে টাকা লাগবে’ দোহাই দিয়ে ৩ হাজার টাকা করে নেওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। তবে টাকা নেওয়ার ঘটনা ইউএনও এবং সাংবাদিকদের না জানানোর জন্য শর্তও দেওয়া হয়েছে।

উপজেলার বারবাকপুর গ্রামের শিল্পী খাতুন জানান, তাঁর জন্ম তারিখ ও পিতার নামের বানান ভুল ছিল। সংশোধনের জন্য গদখালী ইউনিয়ন পরিষদে গেলে তাঁর কাছ থেকে ৭০০ টাকা নেওয়া হয়েছে। একই সঙ্গে ডিজিটালের কথা বলে আরও ১৫০ টাকা নেওয়া হয়েছে।

একই গ্রামের রবিউল ইসলামের ছেলে রাকিব হাসান রাফি বলেন, জন্মতারিখ সংশোধনের জন্য ঝিকরগাছা ইউপিতে গেলে উদ্যোক্তা আবু রাসেল ৩ হাজার টাকা চুক্তি করেন। পরে তিন মাস পেরিয়ে যাওয়ার পর অপারগতা প্রকাশ করেন।

বল্লা গ্রামের আঞ্জু আরা খাতুন বলেন, ছেলে মিনহাজ উদ্দীন তাসমিনের জন্মনিবন্ধন সংশোধন করতে নির্বাসখোলা ইউনিয়ন পরিষদের সচিব মোখলেসুর রহমান ৩ হাজার টাকা নিয়েছেন। বিষয়টি পরিষদের চেয়ারম্যানও জানেন বলে দাবি করেন তিনি।

ঝিকরগাছা ইউপি চেয়ারম্যান আমির হোসেন বলেন, জন্মনিবন্ধন সংশোধনে অতিরিক্ত ফি আদায়ের বিষয়ে আমার জানা নেই। তবে সরকারি ফি’র বাইরে সচিবের অতিরিক্ত টাকা নেওয়ার কোনো সুযোগ নেই।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মাহবুবুল হক বলেন, ‘বিষয়টি নিয়ে কড়া হুঁশিয়ারি দেওয়া হয়েছে। এরপর কেউ জন্মনিবন্ধন সংশোধনে কোনো ছলচাতুরী করে অতিরিক্ত টাকা নিলে তাঁর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

মন্তব্য

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।
Show
 
    সব মন্তব্য

    ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

    এলাকার খবর

    টিকা যে নেব মেসেজ কই?

    টিকা যে নেব মেসেজ কই?

    লাখ টাকার সঙ্গে গেল জীবনটাও

    লাখ টাকার সঙ্গে গেল জীবনটাও

    সিরাজুলের 'বাগের চা'

    সিরাজুলের 'বাগের চা'

    আলীকদমে ডাচ-বাংলা এজেন্ট ব্যাংকিংয়ের টাকা নিয়ে উধাও মালিকপক্ষ

    আলীকদমে ডাচ-বাংলা এজেন্ট ব্যাংকিংয়ের টাকা নিয়ে উধাও মালিকপক্ষ

    ছিনতাই নাটক সাজিয়ে ১০ লাখ টাকা আত্মসাৎ, গ্রেপ্তার ২

    ছিনতাই নাটক সাজিয়ে ১০ লাখ টাকা আত্মসাৎ, গ্রেপ্তার ২

    প্রতিবেশী দুই পক্ষের সংঘর্ষ থামাতে গিয়ে বৃদ্ধা নিহত

    প্রতিবেশী দুই পক্ষের সংঘর্ষ থামাতে গিয়ে বৃদ্ধা নিহত

    দুর্গাপুরে তরুণীকে আটকে রেখে দেহব্যবসা, অভিযুক্ত গ্রেপ্তার

    দুর্গাপুরে তরুণীকে আটকে রেখে দেহব্যবসা, অভিযুক্ত গ্রেপ্তার

    নারী শিক্ষার্থী ছাড়াই চালু হচ্ছে আফগানিস্তানের মাধ্যমিক স্কুল

    নারী শিক্ষার্থী ছাড়াই চালু হচ্ছে আফগানিস্তানের মাধ্যমিক স্কুল

    দুর্নীতির মামলায় বিচারের মুখোমুখি হতে যাচ্ছেন সু চি 

    দুর্নীতির মামলায় বিচারের মুখোমুখি হতে যাচ্ছেন সু চি 

    জঙ্গি নয় সেদিন নিহত হন ১০ বেসামরিক আফগান নাগরিক 

    জঙ্গি নয় সেদিন নিহত হন ১০ বেসামরিক আফগান নাগরিক 

    নাটোরে যুবলীগের বর্ধিত সভায় চেয়ার ছোড়াছুড়ি

    নাটোরে যুবলীগের বর্ধিত সভায় চেয়ার ছোড়াছুড়ি