বৃহস্পতিবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১

সেকশন

 

বিধবার শ্লীলতাহানির ভিডিও ছড়িয়ে প্রবাসী ছেলেদের কাছে টাকা দাবি নাতি ও ভাতিজাদের

আপডেট : ১৪ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২১:২৮

পঞ্চাশোর্ধ্ব এক বিধবার শ্লীলতাহানির ভিডিও সামাজিক মাধ্যমে প্রকাশ করে প্রবাসী ছেলেদের কাছে টাকা দাবি করেছেন তাঁরই স্বামীর পক্ষের ভাতিজা ও নাতি। বিষয়টি পারিবারিকভাবে মীমাংসা করার চেষ্টা করা হয়। তাতেও কাজ না হওয়ায় ভুক্তভোগী নারী অবশেষে থানায় মামলা করেছেন।

ঘটনাটি ঘটেছে সিলেটের কানাইঘাট উপজেলার আটতারু গ্রামে। গতকাল সোমবার রাত সাড়ে ১০টায় ওই বিধবা নারী ও শিশু নির্যাতন ও পর্নোগ্রাফি আইনে চারজনের নামে মামলা করেছেন। এরপর সোমবার গভীর রাত থেকে আজ মঙ্গলবার ভোর পর্যন্ত আসামিদের ধরতে অভিযান চালিয়েছে কানাইঘাট থানা–পুলিশ। তবে এখনো কেউ গ্রেপ্তার হয়নি।

মামলায় আসামিরা হলেন, ভুক্তভোগী নারীর নাতি জব্বার (২২) ও আব্দুল্লাহ (৩৮) এবং তার ভাশুরের (স্বামীর বড় ভাই) ছেলে ভাতিজা সাইদুল্লাহ (২৭)।

পুলিশ ও ওই নারীর স্বজনদের সূত্রে জানা গেছে, গত ২৮ আগস্ট ঘটনাটি ঘটে। আর গত সোমবার ফেসবুকে ওই নারীকে যৌন হেনস্তার ভিডিও ছড়িয়ে পড়ে। সোমবার সন্ধ্যার দিকে কানাইঘাট থানার পুলিশ ঘটনাটি জানতে পেরে হেনস্তার শিকার নারীকে থানায় নিয়ে তাঁর বক্তব্য লিপিবদ্ধ করে। ভুক্তভোগীর প্রবাসী ছেলেদের কাছ থেকে টাকা আদায়ের জন্য আসামিরা এই কাজ করেছেন বলে তিনি জানান।

পুলিশ জানায়, হেনস্তার শিকার নারীর বয়স পঞ্চাশোর্ধ্ব। তাঁর স্বামী নেই। তাঁর চার মেয়ে ও দুই ছেলে। মেয়েদের বিয়ে হয়েছে। দুই ছেলে দুবাই প্রবাসী। বাড়িতে তিনি একাই থাকেন। ২৯ আগস্ট বাড়ি তালাবদ্ধ করে তিনি প্রতিবেশী কাউকে না জানিয়ে পাশের গ্রামে বাবার বাড়িতে চলে যান। হঠাৎ বাবার বাড়িতে চলে যাওয়ার কারণ জানতে গিয়ে আত্মীয়রা ওই নারীর মুখে হেনস্তার শিকার হওয়া ও ভিডিও ধারণের ঘটনাটি জানেন। এরপর প্রবাস থেকে তাঁর দুই ছেলে তাঁদের জানিয়েছেন, ভিডিওটি তাঁদের দুই ভাইয়ের কাছে পাঠিয়ে পাঁচ লাখ টাকা দাবি করেন নাতি ও ভাতিজারা। কিছু টাকা দিয়ে ওই ভিডিওটি সংগ্রহও করেন ওই নারীর স্বজনেরা। কিন্তু আসামিরা ভিডিওর কপি রেখে দেন এবং পরে সেটি ফেসবুকে ছড়িয়ে দেন।

এ বিষয়ে ভুক্তভোগীর ভাশুর (স্বামীর বড় ভাই) হাজী জুনাব আলী বলেন, তাঁর আরেক ভাইয়ের ছেলে এবং নাতি এই ঘটনাটি ঘটিয়েছেন। পারিবারিকভাবে এটি মীমাংসার চেষ্টা করেছিলেন। কিন্তু তাতেও কোনো সমাধান না পাওয়ায় তাঁর ভাবিকে থানায় মামলা করার পরামর্শ দেন বলে জানান তিনি।

এ বিষয়ে কানাইঘাট থানার মো. তাজুল ইসলাম বলেন, ঘটনাটি ঘটেছে গত ২৮ আগস্ট। গত সোমবার ফেসবুক ভিডিওটি ছড়িয়ে পড়ে। তখন ওই ভিডিও পেয়ে আমরা সংগ্রহ করি। যে চারজন ওই নারীকে হেনস্তা করেছে তাঁদের শনাক্ত করা হয়েছে। তাদের ধরার জন্য সোমবার রাত থেকে আজ ভোর পর্যন্ত টানা অভিযান পরিচালিত হয়েছে। ওই অভিযানে আমি নিজে ছিলাম। এখনো পুলিশের দুটি টিম আসামিদের ধরতে অভিযান পরিচালনা করছে।

ওসি বলেন, এই ঘটনা যারা ঘটিয়েছেন সবাই ওই নারীর নিকটাত্মীয়। প্রাথমিক ভাবে মনে করা হচ্ছে টাকার জন্যই তাঁরা এমনটি করেছেন।

মন্তব্য

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।
Show
 
    সব মন্তব্য

    ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

    এলাকার খবর

    খেয়া মাঝিকে মারধরের ভিডিও ভাইরাল, মামলা নেয়নি পুলিশ

    খেয়া মাঝিকে মারধরের ভিডিও ভাইরাল, মামলা নেয়নি পুলিশ

    কুকুরের ওপর কনের বাড়ির গাড়ি ওঠা নিয়ে হামলা, আহত ৪

    কুকুরের ওপর কনের বাড়ির গাড়ি ওঠা নিয়ে হামলা, আহত ৪

    এমএলএম ব্যবসার নামে প্রতারণা, পরিচালকসহ গ্রেপ্তার ১৭

    এমএলএম ব্যবসার নামে প্রতারণা, পরিচালকসহ গ্রেপ্তার ১৭

    ৪ বছরেও আলোর মুখ দেখেনি প্রস্তাবিত পুলিশ তদন্ত কেন্দ্র

    ৪ বছরেও আলোর মুখ দেখেনি প্রস্তাবিত পুলিশ তদন্ত কেন্দ্র

    ভারতীয় টিভি সিরিজ ‘সিআইডি’ দেখে এটিএম বুথে ডাকাতি

    ভারতীয় টিভি সিরিজ ‘সিআইডি’ দেখে এটিএম বুথে ডাকাতি

    ভারত সীমান্তে মিয়ানমারের হাজারো নাগরিক

    ভারত সীমান্তে মিয়ানমারের হাজারো নাগরিক

    যাত্রীর জ্যাকেটের ভেতরে মিলল ২ কোটি টাকার স্বর্ণ

    যাত্রীর জ্যাকেটের ভেতরে মিলল ২ কোটি টাকার স্বর্ণ

    তামাকমুক্ত বাংলাদেশ অর্জনে শক্তিশালী আইন জরুরি

    তামাকমুক্ত বাংলাদেশ অর্জনে শক্তিশালী আইন জরুরি

    মাগুরায় শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে জলাবদ্ধতায় ভোগান্তি শিক্ষার্থীদের

    মাগুরায় শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে জলাবদ্ধতায় ভোগান্তি শিক্ষার্থীদের

    ইভ্যালির ব্যবসায় ভুল স্বীকার রাসেলের

    ইভ্যালির ব্যবসায় ভুল স্বীকার রাসেলের

    সেই গার্দিওলাকেই ফেরাতে চায় বার্সেলোনা!

    সেই গার্দিওলাকেই ফেরাতে চায় বার্সেলোনা!