রোববার, ১৬ জুন ২০২৪

সেকশন

 

চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন: অনিয়মে আলোচিত কর্মকর্তাকে ফেরাতে মেয়রের চিঠি

আপডেট : ০৭ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ০৮:৩৭

চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন: অনিয়মে আলোচিত কর্মকর্তাকে ফেরাতে মেয়রের চিঠি দুর্নীতিসহ নানা অনিয়মের অভিযোগে আলোচিত প্রকৌশলী সুদীপ বসাককে আবারও চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনে (চসিক) ফিরিয়ে আনার চেষ্টা করছেন খোদ প্রতিষ্ঠানটির প্রধান। তাঁকে ফেরাতে স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায়মন্ত্রী মো. তাজুল ইসলামের কাছে একটি অনুরোধপত্র পাঠিয়েছেন চসিকের মেয়র মো. রেজাউল করিম চৌধুরী।

চসিকের নথিসূত্রে জানা গেছে, গত ২০ জানুয়ারি চসিক মেয়র ডিও লেটারের মাধ্যমে (ডিও পত্র নম্বর: ৪৬.১১. ১৬০০.০০১. ১৬.২০২৪-০৩) এই অনুরোধ জানিয়েছেন। মন্ত্রীর কাছে পাঠানো এ অনুরোধপত্রে মেয়রের স্বাক্ষর রয়েছে।

চসিকে এক ময়ের আলোচিত নাম সুদীপ বসাক। বর্তমানে তিনি গাজীপুর সিটি করপোরেশনে যান্ত্রিক শাখায় তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী হিসেবে কর্মরত। ২০০৬ সালে চসিকের প্রয়াত মেয়র এ বি এম মহিউদ্দিন চৌধুরীর আমলে নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি ছাড়াই দৈনিক চুক্তির ভিত্তিতে যান্ত্রিক শাখায় উপসহকারী প্রকৌশলী পদে যোগদান করেন এই কর্মকর্তা। পরে ২০০৯ সালে তাঁর চাকরি নিয়মিত করা হয়। এর পর থেকেই বিভিন্ন অনিয়মের অভিযোগ রয়েছে তাঁর বিরুদ্ধে। ২০১৯ সালে চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন নিয়ে দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) গণশুনানিতেও সহকর্মী ও জনসাধারণের অভিযোগ ছিল এই কর্মকর্তার বিরুদ্ধে। একাধিক তদন্ত হলেও বারবার রহস্যজনক কারণে ছাড়া পেয়ে যান আলোচিত এই কর্মকর্তা। শাস্তি তো দূরের কথা, উল্টো একের পর এক পদোন্নতি পেয়েছেন তিনি।

এই কর্মকর্তাকে ফিরিয়ে আনতে মন্ত্রীকে দেওয়া চিঠিতে বলা হয়েছে, বর্তমানে তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী হিসেবে চসিকে রয়েছেন আকবর আলী। তিনি ২০২৫ সালের ১৫ ডিসেম্বর পিআরএল ছুটিতে যাবেন। বিধিমতে, এক বছর আগে তাঁকে নিজ বিভাগ এলজিইডিতে ফেরত যেতে হবে। এ ছাড়া চসিকে কর্মরত যান্ত্রিক শাখার একজন নির্বাহী প্রকৌশলী ইতিমধ্যে পিআরএল ছুটিতে আছেন এবং আরেকজন নির্বাহী প্রকৌশলী এ বছর পিআরএল ছুটিতে যাবেন।

অনুরোধপত্রে বলা হয়, ‘নাগরিক সেবা প্রদান, পরিচ্ছন্ন আধুনিক নগরী গঠন ও সেবা প্রদানে স্বচ্ছতা এবং জবাবদিহি নিশ্চিত করতে চসিকের যান্ত্রিক শাখায় তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী পদে সুদীপ বসাককে পুনরায় পদায়নে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য বিশেষভাবে অনুরোধ করছি।’

যদিও চসিকে থাকাকালীন সুদীপ বসাকের বিরুদ্ধে বিভিন্ন যন্ত্রপাতির ভাড়া আত্মসাৎ এবং বেআইনিভাবে দোকান বরাদ্দ নেওয়ার অভিযোগ রয়েছে। ওই ঘটনায় ২০২২ সালে ১৫ মার্চ একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়। সাত কার্যদিবসের মধ্যে ওই তদন্ত প্রতিবেদন দেওয়ার কথা থাকলেও ১৮ মাসেও প্রতিবেদন জমা দিতে পারেনি কমিটি। তাঁকে কী কারণে চসিকে আনা হবে, জানতে চসিকের মেয়র রেজাউল করিম চৌধুরীর সঙ্গে মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করা হলেও তিনি কোনো সাড়া দেননি। পরে হোয়াটসঅ্যাপে বার্তা পাঠিয়ে কোনো সাড়া পাওয়া যায়নি।

পরে এ বিষয়ে জানতে মেয়রের একান্ত সচিব আবুল হাসেমের সঙ্গে যোগাযোগ করা হয়। তিনি বলেন, ‘পিআরও (জনসংযোগ কর্মকর্তা) সাহেবের মেয়র মহোদয়ের সঙ্গে আলাপ করে কথা বলার জন্য অফিশিয়াল নির্দেশ আছে।’

জনসংযোগ কর্মকর্তা আজিজ আহমেদ আজকের পত্রিকাকে বলেন, ‘এ ধরনের সরকারের চিঠিপত্র মেয়র মহোদয়ের পিএস আবুল হাসেম সাহেব জানেন। আমি এসবের বিষয়ে কিছু জানি না।’

জানতে চাইলে চসিকের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা শেখ মুহম্মদ তৌহিদুল ইসলাম আজকের পত্রিকাকে বলেন, ‘মেয়র মহোদয় ডিও লেটার পাঠাতে পারেন। এটা তাঁর এখতিয়ারের মধ্যে পড়ে। তবে ওই ডিও লেটারের বিষয়ে আমি অবগত নই। তাই এ ব্যাপারে কিছু বলতে পারছি না।’

মন্তব্য

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।
Show
 
    সব মন্তব্য

    ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

    এলাকার খবর

     

    মদরিচের শেষের শুরু

    প্যাকেটজাত ডিম: ওমেগা, অর্গানিক নামে প্রতারণা

    বাংলাদেশকে ডাকছে ভারত-অস্ট্রেলিয়া-আফগানিস্তান

    আনোয়ারুল হত্যায় সাইদুল জড়িত, খুনিদের টাকা দেওয়ার কথা ছিল তাঁরও: কামালের জবানবন্দি

    হাজিরা মিনায়, আজ পবিত্র হজ

    অবসাদগ্রস্ত পুলিশসদস্যকে অস্ত্র নয়, সদর দপ্তরের নির্দেশনা

    রাজধানীতে ঈদের দিন হতে পারে বৃষ্টি

    রাজধানীর মহাখালীতে অজ্ঞান পার্টির খপ্পরে বাস চালকসহ ৪ জন

    কেন্দ্রীয় কারাগারের এক আসামির ঢামেকে মৃত্যু

    সুদের টাকা দিতে না পারায় কৃষকের ষাঁড় নিয়ে গেল দাদন ব্যবসায়ীরা

    টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের সেরা দশে রিশাদ

    ‘তুফান’ সিনেমার ট্রেলার, শাকিব-চঞ্চলের সেয়ানে সেয়ানে লড়াইয়ের পূর্বাভাস