সোমবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০২১

সেকশন

 

স্কুল খুলেছে, হুররে!

আপডেট : ১২ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১০:০০

মডেল: সানজিদা ও ইশরা। ছবি: রনি বাউল দেড় বছরের বেশি সময় ধরে আলমারিতে তুলে রাখা ইউনিফর্ম ধুয়ে, কড়কড়ে করে শুকিয়ে, ইস্তিরি করে গায়ে তুলেছে তারা। ক্লাসরুমে ঢুকেই যেন সব নতুন করে দেখা, এটাই কি আমার ক্লাসরুম! আনন্দ, উত্তেজনা আর একটু দ্বিধা জড়ানো মুখে অভিভাবকেরাও স্কুলগেটের বাইরে দাঁড়িয়ে। আজ থেকে আবার শুরু হলো স্কুল, শুরু হলো শিক্ষক আর ছাত্রছাত্রীদের মিথস্ক্রিয়ার সে চিরাচরিত দৃশ্য। আজ থেকে আবার দেখা যাবে স্কুলের বাইরে অভিভাবকদের মুখ।

তবে একটা ব্যাপার আগের চেয়ে ভিন্ন তা হলো—সবার মুখে যোগ হয়েছে মাস্ক আর ব্যাগে রয়েছে ছোট্ট স্যানিটাইজার। এত দিন দূরপাঠের পর স্বাভাবিক শিখন প্রক্রিয়ায় ফেরা ও কোভিড সুরক্ষা—সবটাই মাথায় রয়েছে অভিভাবক ও স্কুল কর্তৃপক্ষের। স্কুলগুলোয় নেওয়া হয়েছে বাড়তি সতর্কতা।

কোনো কোনো স্কুল জীবাণুমুক্ত হওয়ার ব্যবস্থাও রেখেছে। এসবের জন্য সময়ের প্রয়োজন। এ কারণে ৩০ মিনিট আগেই ঢুকতে হবে স্কুলে। ক্ষেত্রবিশেষে স্প্রে করে জীবাণুমুক্ত করার ব্যবস্থাও রেখেছে স্কুলগুলো।

প্রথম প্রথম শিক্ষক ও শিক্ষার্থী উভয়ের মুখে মাস্ক থাকায় শিখন প্রক্রিয়ায় একটু অসুবিধা হতে পারে। রাজধানীর গুলশান মডেল স্কুল অ্যান্ড কলেজের সিনিয়র শিক্ষক রাজারাম পাল চৌধুরী বলেন, শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের নির্দেশনা অনুযায়ী, চলতি ও আগামী বছরের এসএসসি, এইচএসসি এবং চলতি বছরের পঞ্চম শ্রেণির শিক্ষার্থীদের প্রতিদিন ক্লাস হবে। তবে প্রতিদিন চার পিরিয়ডের বেশি ক্লাস হবে না। প্রথম থেকে চতুর্থ ও ষষ্ঠ থেকে নবম শ্রেণির প্রতি সপ্তাহে এক দিন করে ক্লাস হবে।

রাজারাম পাল চৌধুরী কোভিড সুরক্ষার বিষয়ে যোগ করেন, বসার বেঞ্চ যদি ছয় ফুট হয় তাহলে দূরত্ব রেখে দুজন করে বসবে। অন্যদিকে, বেঞ্চ যদি ছয় ফুট না হয়, তাহলে পুরো ক্লাসে ছাত্রছাত্রীরা জেড সিস্টেমে বসবে। সে ক্ষেত্রে দূরত্ব বজায় রাখতে এক সেকশনে বেশি ছাত্রছাত্রী হয়ে গেলে সেকশন বাড়ানো হতে পারে। স্কুল শুরু হলে শিক্ষার্থীদের পড়াশোনার ওপর অতিরিক্ত চাপ দেওয়া যাবে না। মূল্যায়ন বা পরীক্ষা নেওয়া যাবে না। তাদের স্কুলে আসার ইচ্ছেটার ওপর এবং ভালো থাকার ওপর বেশি জোর দিতে হবে। কারণ দীর্ঘদিন তারা শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের বাইরে থেকেই পড়াশোনা করেছে, যার ধরন একেবারেই আলাদা।

তবে এখনো খেলাধুলার সময় বা টিফিনের কোনো সুযোগ নেই। একযোগে চারটি ক্লাস করে তারা বাসায় চলে যাবে। দুটো শিফটে শিক্ষার্থীরা স্বাস্থ্যবিধি মেনে আসবে ও যাবে। আর এ ব্যাপারগুলো শিক্ষকদেরই একটা টিম দেখবে বলে জানান তিনি।

রাজারাম পাল চৌধুরী বলেন, ‘আমি মনে করি স্কুল খুলেছে, এ ব্যাপারটা ইতিবাচক। কারণ অনলাইন ক্লাসের জন্য যেমন প্রশিক্ষণ দরকার তা আমাদের দেশের শিক্ষকদের নেই। তা ছাড়া দেশের উন্নত শহরগুলো ছাড়া গুগল মিট, জুম বা অন্যান্য মাধ্যমে ভার্চুয়াল ক্লাস করার মতো নিরবচ্ছিন্ন সুবিধা ও আর্থিক অবস্থা সব শিশুর পরিবারের নেই। সারা বিশ্বে এখন ব্লেন্ডেড লার্নিংয়ের কথা ভাবা হচ্ছে। বাংলাদেশেও এর চিন্তাভাবনা চলছে। এটা হলো কিছু স্কুলে গিয়ে আর কিছু অনলাইনে শেখা।’

জাতীয় মানসিক স্বাস্থ্য ইনস্টিটিউট ও হাসপাতালের সহযোগী অধ্যাপক মানসিক রোগ বিশেষজ্ঞ ডা. মেখলা সরকার বলেন, দীর্ঘদিন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ ছিল। তাই স্কুলে যাওয়া-আসার এ পরিবর্তনটি মেনে নিতে তাদের সময় লাগবে। কারণ শিশুদের কোমলমতি মন কোনো এক প্রক্রিয়ায় অভ্যস্ত হয়ে গেলে, সেখান থেকে বের হতে শারীরিক ও মানসিক প্রভাব পড়ে। এতে তাদের জীবন যাপনেরও অনেক পরিবর্তন আসে।

যা হতে পারে
শিশুরা দীর্ঘদিন অনলাইনে ক্লাস করেছে। এখন সরাসরি স্কুলে গিয়ে ক্লাস করবে। এতে সহপাঠীদের সঙ্গে মিশতে গেলে সমস্যা হতে পারে।
একেক শিশুর চাপ সামলানোর ক্ষমতা একেক রকম। তাই অনেক শিশুর ক্ষেত্রে স্কুল খোলার চাপটা মেনে নিতে অনেক বেশি, আবার অনেকের কম সময় লাগবে।
অনেক শিশুই হয়তো স্কুলে যেতে চাইবে না। দেখা যাবে, সেসব শিশু অল্পতেই রেগে যাচ্ছে, নানা রকমের অবাধ্য আচরণ করছে। আবার অনেকের এই উদ্বেগ থেকে শারীরিক সমস্যাও হতে পারে। তবে, ধীরে ধীরে শিশুরা সবকিছুর সঙ্গে আবারও অভ্যস্ত হয়ে পড়বে। 

অভিভাবকদের জন্য
অভিভাবকদের একটু ধৈর্য ধরতে হবে। কিছুদিন গেলে শিশুদের এ ধরনের সমস্যা কেটে যাবে। এখন প্রতিদিন স্কুলে যেতে হবে না। যেসব দিনে স্কুল বন্ধ থাকবে, অভিভাবকেরা সেসব দিনে শিশুদের সঙ্গে আনন্দ নিয়ে স্কুল বিষয়ে কথা বলবেন। তারা স্কুলের বন্ধুদের সঙ্গে কী কী আনন্দ করল, শিক্ষকেরা কী শেখালেন, এসব বিষয়ে জানতে চাইবেন। স্কুল থেকে ফিরলে, সঙ্গে সঙ্গে পড়ালেখার বিষয়ে জানতে চাওয়া ঠিক হবে না। শিশুদের এ সময়টাতে পড়ালেখার বিষয়ে খুব বেশি চাপ প্রয়োগ না করাই ভালো হবে।

শিশুদের সঙ্গে শিক্ষকের বন্ধুত্বপূর্ণ আচরণের মাধ্যমেই শিশুদের পড়ালেখার প্রতি আগ্রহ বাড়বে। এতে শিশুরা স্কুলকে আবারও ভালোবাসতে শুরু করবে।

মন্তব্য

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।
Show
 
    সব মন্তব্য

    ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

    এলাকার খবর

    কানে কানে  গানে গানে

    কানে কানে গানে গানে

    মুজতবা আলী এখানে মিষ্টি খেতে আসতেন

    মুজতবা আলী এখানে মিষ্টি খেতে আসতেন

    নবাবি সেমাই

    নবাবি সেমাই

    খেতে গিয়ে যে ভুল নয়

    খেতে গিয়ে যে ভুল নয়

    ইতালিতে জনপ্রিয় হচ্ছে বাংলা খাবার

    ইতালিতে জনপ্রিয় হচ্ছে বাংলা খাবার

    আদুরে কচুশাক ঘাটা

    আদুরে কচুশাক ঘাটা

    রাতে সাকিবদের বিপক্ষে নামলেই কোহলির রেকর্ড

    রাতে সাকিবদের বিপক্ষে নামলেই কোহলির রেকর্ড

    ভাঙ্গায় ৬টি কেন্দ্রে শান্তিপূর্ণভাবে চলছে ভোটগ্রহণ 

    ভাঙ্গায় ৬টি কেন্দ্রে শান্তিপূর্ণভাবে চলছে ভোটগ্রহণ 

    রাশিয়ার একটি বিশ্ববিদ্যালয়ে বন্দুকধারীদের গুলিতে কমপক্ষে ৮ জন নিহত

    রাশিয়ার একটি বিশ্ববিদ্যালয়ে বন্দুকধারীদের গুলিতে কমপক্ষে ৮ জন নিহত

    পাঞ্জাবে প্রথম দলিত মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে শপথ নিলেন চান্নি

    পাঞ্জাবে প্রথম দলিত মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে শপথ নিলেন চান্নি

    পাবনায় প্রতিপক্ষের ছুরিকাঘাতে বৃদ্ধ নিহত 

    পাবনায় প্রতিপক্ষের ছুরিকাঘাতে বৃদ্ধ নিহত 

    ই-কমার্স রেগুলেটরি অথোরিটি গঠন করতে হাইকোর্টে রিট

    ই-কমার্স রেগুলেটরি অথোরিটি গঠন করতে হাইকোর্টে রিট