শনিবার, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১

সেকশন

 

মঙ্গলগ্রহে জমি কেনার দাবি করলেন লালমনিরহাটের এক প্রকৌশলী

আপডেট : ১১ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৮:৪৩

নাসার বিজ্ঞানীরা পৃথিবীতে বসেই মঙ্গল গ্রহে মানুষের বসবাসের উপযোগী করে তুলতে এরই মধ্যে কাজ শুরু করেছে। ছবি: রয়টার্স মঙ্গলগ্রহে জমি কেনার দাবি করে রীতিমতো হইচই ফেলে দিয়েছেন লালমনিরহাটের প্রকৌশলী এলাহান উদ্দিন। আইসিটি এমপ্লোই সোসাইটি অব বাংলাদেশ-এর চেয়ারম্যান এলাহান উদ্দিন সম্প্রতি মঙ্গলগ্রহে এক একর জমি কিনেছেন। সেই জমির দলিলও হাতে পেয়েছেন।

তিনি দাবি করেন, ‘লুনার অ্যাম্বাসি’ নামে এক আমেরিকান কোম্পানি থেকে মাত্র ৫০ ডলারে তিনি এই জমি কিনেছেন। এর আগে সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট জর্জ এইচ ডব্লিউ বুশ, জিমি কাটার ও রোলান্ড রিগ্যান এই কোম্পানি থেকে মঙ্গল গ্রহে জমি কিনেছেন বলে জানা যায়।

প্রকৌশলী এলাহান উদ্দিন লালমনিরহাটের কালীগঞ্জ উপজেলার চন্দ্রপুর ইউনিয়নের বোতলা গ্রামের খায়রুল ইসলামের ছেলে। 

এ বিষয়ে প্রকৌশলী এলাহান উদ্দিন আজকের পত্রিকাকে জানান, গত ১০ আগস্ট তিনি ওই কোম্পানির কাছ থেকে মঙ্গল গ্রহে জমি ক্রয়ের জন্য আবেদন করেন। ৭ সেপ্টেম্বর জমির দলিল পাঠিয়ে দেয় কোম্পানিটি। কী উদ্দেশে মঙ্গল গ্রহে জমি কিনলেন জানতে চাইলে তিনি জানান, আজ থেকে দুই-তিন শ বছর পরে মঙ্গল গ্রহে কেনার মতো আর জমি থাকবে না। তাই তিনি এখনই জমি কিনে বাংলাদেশের নাম ইতিহাসে লিখে রাখতে চান। 

এলাহান উদ্দিন বলেন, তথ্য প্রযুক্তি সারা বিশ্বে কোথাও থেমে নেই। প্রতি মিনিটে কোথাও না কোথাও মানুষ তথ্য প্রযুক্তির নতুন নতুন বিষয় আবিষ্কার করছে। আগামী বিশ্বে সকল ক্ষেত্রে নেতৃত্ব দেবে তথ্য প্রযুক্তি। এই প্রযুক্তির বড় সাফল্য হচ্ছে মঙ্গল গ্রহে নাসার মার্স ২০২০ পারসিভারেন্স রোভার সফলভাবে অবতরণ করা। নাসার বিজ্ঞানীরা পৃথিবীতে বসেই মঙ্গল গ্রহে মানুষের বসবাসের উপযোগী করে গড়ে তুলতে এরই মধ্যে কাজ শুরু করেছে। সম্প্রতি বাংলাদেশের কৃষিজ ফসল ধনে বীজ মঙ্গলে রোপণের জন্য পাঠানো হয়েছে। একদল  বিজ্ঞানী গবেষণা করে ঘোষণা দিয়েছে মঙ্গল গ্রহে পৃথিবীর মতো আলো, বাতাস ও পানি রয়েছে। মঙ্গল গ্রহ পৃথিবীর মানুষের জন্য আগামীর বাসস্থান হতে পারে। মানুষের বেঁচে থাকার মতো সকল সুযোগ-সুবিধা মঙ্গল গ্রহে রয়েছে। তারপরেও গবেষণা করে দেখা হচ্ছে মানুষের অনুকূল পরিবেশ কতটা উপযোগী। মঙ্গল গ্রহে অন্য কোনো ভিন জাতি প্রাণী রয়েছে কিনা পৃথিবীর মানুষ নিশ্চিত হতে পারেনি। তাই ব্যাপক গবেষণা প্রয়োজন হয়ে পড়েছে। প্রতিনিয়ত সন্ধান চলছে। মঙ্গল গ্রহ নিয়ে পৃথিবীর মানুষের আগ্রহের শেষ নেই। বিজ্ঞানীদের এই কাজের সাক্ষী হয়ে থাকতে বাংলাদেশের একজন নাগরিক হিসেবে মঙ্গল গ্রহে জমি কিনেছি। এতে করে বাংলাদেশের বিজ্ঞানীরা মঙ্গল গ্রহের একজন গর্বিত অংশীদার হবে। মঙ্গল গ্রহে জমি কেনার মূল লক্ষ্য ছিল লালমনিরহাট জেলার নাম ও বাংলাদেশের নাম সারা বিশ্বে গবেষণার মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়া। 

এলাহান উদ্দিন বলেন, একদিন সোনার বাংলাদেশ মাথা তুলে দাঁড়াবে। তখন গর্বিত জাতি হিসেবে বিশ্ববাসী গর্ব অনুভব করবে। তাই একজন বাংলাদেশের নাগরিক হয়ে পিছিয়ে থাকতে চাইনি। শেখ হাসিনার সরকার বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট পাঠিয়ে সর্বাধুনিক আকাশ প্রযুক্তিতে নাম লিখিয়েছে। এটা বিশ্বের কতটা দেশ পেরেছে। অনেক সমৃদ্ধিশালী দেশ এখনো আকাশে স্যাটেলাইট পাঠাতে পারেনি। কিন্তু বাংলাদেশ বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইটের সফল উৎক্ষেপণ করেছে। এখন বাংলাদেশের মানুষ বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইটের সকল সুযোগ-সুবিধা ব্যবহার করেছে। খুব বেশি দুরে নয় একদিন মঙ্গল গ্রহেও পা রাখবে বাংলাদেশিরা। বাংলাদেশের বিজ্ঞানীরা নাসায় বিজ্ঞানী হিসেবে কাজ করছে। তারাও তো কোনো এক দিন মঙ্গল গ্রহে পা রাখতে পারেন। তখন যদি তিনি শোনবেন বাংলাদেশের কোনো একজন মঙ্গল গ্রহে জমি কিনেছে। তখন তিনি নিশ্চয় গর্ববোধ করবেন। তাই মঙ্গল গ্রহ নিয়ে বাংলাদেশি বিজ্ঞানীদের গবেষণার জন্য আমি ওই জমি উৎসর্গ করতে চান।

এলাহানের বাবা খায়রুল ইসলাম জানান, দেশের কেউ এখন পর্যন্ত মঙ্গলগ্রহে জমি কিনতে পারেননি। এলাহান সেটি করেছেন। সবাই দোয়া করবেন এলাহানের জন্য।

এলাহানের বড় ভাই রমজান আলী বলেন, মঙ্গলগ্রহে জমি কেনার কথা শুনে প্রথমে বিশ্বাস করতে পারিনি। পরে যখন জমি কেনার কাগজপত্র দেখলাম তখন বুঝলাম আসলে সে জমি কিনেছে। জমি কেনার কথা প্রচার হওয়ায় এখন প্রতিদিন বিভিন্ন এলাকা থেকে মানুষজন আমাদের বাড়িতে আসছে। খোঁজ খবর নিচ্ছেন। এলাহানকে নিয়ে আমরা গরববোধ করি।

চন্দ্রপুর ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য আলী হোসেন আলো জানান, লোকমুখে শুনেছি আমাদের ছেলে এলাহান মঙ্গলগ্রহে জমি কিনেছেন। অনেকে তার বাড়ি যাচ্ছেন বিষয়টি শুনতে। সেখানে নাকি অনেক বড়বড় দেশের সরকার প্রধানেরা জমি কিনে রেখেছেন। সেই জায়গায় আমাদের এলাহান জমি কিনেছেন এটি আমাদের গর্বের বিষয়। 

মন্তব্য

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।
Show
 
    সব মন্তব্য

    ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

    এলাকার খবর

    সিগারেটের আগুন না দেওয়ায় হোটেল মালিককে ঘুষি মেরে হত্যা

    সিগারেটের আগুন না দেওয়ায় হোটেল মালিককে ঘুষি মেরে হত্যা

    বৈরী আবহাওয়ার বঙ্গোপসাগরে ট্রলার ডুবি নিখোঁজ ১

    বৈরী আবহাওয়ার বঙ্গোপসাগরে ট্রলার ডুবি নিখোঁজ ১

    দিনাজপুরে মসজিদ আটককৃতদের মধ্যে ১১ জনের নামে মামলা

    দিনাজপুরে মসজিদ আটককৃতদের মধ্যে ১১ জনের নামে মামলা

    শিশু হত্যার দায় স্বীকার করে আদালতে জবানবন্দি চাচির

    শিশু হত্যার দায় স্বীকার করে আদালতে জবানবন্দি চাচির

    সাভারে নারী পোশাক শ্রমিকের অর্ধগলিত লাশ উদ্ধার

    সাভারে নারী পোশাক শ্রমিকের অর্ধগলিত লাশ উদ্ধার

    সিগারেটের আগুন না দেওয়ায় হোটেল মালিককে ঘুষি মেরে হত্যা

    সিগারেটের আগুন না দেওয়ায় হোটেল মালিককে ঘুষি মেরে হত্যা

    বৈরী আবহাওয়ার বঙ্গোপসাগরে ট্রলার ডুবি নিখোঁজ ১

    বৈরী আবহাওয়ার বঙ্গোপসাগরে ট্রলার ডুবি নিখোঁজ ১

    কাঁকড়া চাষ হতে পারে সুন্দরবন নির্ভর জনগোষ্ঠীর অন্যতম বিকল্প কর্মসংস্থান

    কাঁকড়া চাষ হতে পারে সুন্দরবন নির্ভর জনগোষ্ঠীর অন্যতম বিকল্প কর্মসংস্থান

    দিনাজপুরে মসজিদ আটককৃতদের মধ্যে ১১ জনের নামে মামলা

    দিনাজপুরে মসজিদ আটককৃতদের মধ্যে ১১ জনের নামে মামলা

    ৩০ সেপ্টেম্বর উচ্চ মাধ্যমিকের জন্য খুলছে ঢাকা কলেজের ছাত্রাবাস

    ৩০ সেপ্টেম্বর উচ্চ মাধ্যমিকের জন্য খুলছে ঢাকা কলেজের ছাত্রাবাস