বৃহস্পতিবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১

সেকশন

 

চট্টগ্রামে ৬ হাজার পোলট্রি খামার বন্ধ, বেড়েছে মুরগির দাম 

আপডেট : ১০ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২২:২০

চট্টগ্রামের ২০ হাজার পোলট্রি খামারের মধ্যে ৬ হাজার বন্ধ হয়ে গেছে। ছবি: আজকের পত্রিকা চট্টগ্রামে ছোট বড় মিলে প্রায় ২০ হাজার পোলট্রি খামার রয়েছে। কিন্তু করোনায় পুঁজি হারিয়ে বর্তমানে ৬ হাজার খামার বন্ধ হয়ে গেছে। বাকি খামারিরা এখনো লোকসানে আছেন। তাই ঠিকমতো মুরগি পালন করতে পারছেন না। এর ফলে মুরগি বাজারে দেখা দিয়েছে অস্থিতিশীলতা। 

এ বিষয়ে খামারিরা বলেন, গরমে মুরগির কাঙ্ক্ষিত ওজন না হওয়া, বাচ্চার দাম বৃদ্ধি, খাবার ও ওষুধের দাম বাড়ায় অধিকাংশ খামারি লোকসান গুনছেন। এখন প্রতি মুরগিতে ১৮ থেকে ২০ টাকা লোকসান হচ্ছে। এতে মুরগি উৎপাদন প্রায় অর্ধেকে নেমে এসেছে। ফলে পরবর্তীতে ধাপে ধাপে বাড়ছে মুরগির দাম। গত এক মাসের ব্যবধানে ব্রয়লার মুরগির কেজি প্রতি অন্তত ২৫ টাকা দাম বেড়েছে। 

খামারিরা আরও বলেন, একদিকে মুরগির উৎপাদন কম, অন্যদিকে লকডাউন না থাকায় হোটেল, রেস্টুরেন্ট, বিয়েসহ সামাজিক অনুষ্ঠান বেড়েছে। তাই চাহিদার সঙ্গে সমানতালে মুরগির দামও বাড়ছে। বর্তমানে খুচরা বাজারে প্রতি কেজি ব্রয়লার মুরগি বিক্রি হচ্ছে ১৪০-১৪৫ টাকা দরে। যা দুই সপ্তাহ আগে ছিল ১২০-১২৫ টাকা। 

নগরীর বহদ্দারহাট এলাকায় মুরগির খুচরা বিক্রেতা আলাউদ্দিন বলেন, এক মাস আগেও আমরা প্রতি কেজি মুরগি ১২০ টাকায় বিক্রি করেছি। যার বর্তমান বাজার মূল্য ১৪৫ টাকা। খামারিদের কাছ থেকে পর্যাপ্ত মুরগি পাচ্ছি না। আগে যেখানে চার পাঁচজন খামারির থেকে মুরগি কিনতাম। সেখানে এখন মাত্র একজন খামারি আমাকে মুরগি সরবরাহ করছে। তাও ১০০ কেজি চাইলে ৬০-৭০ কেজি পাচ্ছি। মুরগি না পেলে আমরা বিক্রিও করতে পারছি না।

চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ড এলাকার খামারি মহিউদ্দিন বলেন, গত কয়েক মাস গরমের কারণে মুরগির ওজন হ্রাস পাচ্ছে। খাবার দিয়েও নির্দিষ্ট সময়ে ওজন পাচ্ছি না। একই সঙ্গে মুরগির বাচ্চা, ওষুধ ও খাবারের দাম বেড়েছে। আবার এ সময়টাতে সামাজিক অনুষ্ঠান বেশি হওয়ায় মুরগির চাহিদা বাড়ছে। তাই মুরগির দাম সামনে আরও বাড়ার আশঙ্কা রয়েছে। 
 
চট্টগ্রামের ২০ হাজার পোলট্রি খামারের মধ্যে ৬ হাজার বন্ধ হয়ে গেছে। ছবি: আজকের পত্রিকা একই এলাকার আরেক খামারি দিদারুল আলম বলেন, করোনার সময় আমরা খামার বন্ধ করে দিয়েছি। এ খামার আবার মেরামত করে চালু করতে অন্তত ৫০ হাজার থেকে ১ লাখ টাকা পুঁজি দরকার। এ টাকা কোথায় পাব? আর এখন মুরগি উৎপাদন করে বাকিরা লোকসান দিচ্ছে। পাইকারিতে প্রতি কেজি মুরগি এখন ১১৬ থেকে ১২৫ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। কিন্তু দাম আরও ২০ টাকা বাড়তি হওয়া প্রয়োজন। এখন ধারদেনা করে খামার শুরু করেও লাভ নেই, লোকসান গুনতে হবে। তাই আপাতত খামার চালু করব না। 
 
বাংলাদেশ ব্রিডার অ্যাসোসিয়েশনের প্রেসিডেন্ট রাকিবুর রহমান টুটুল আজকের পত্রিকাকে বলেন, করোনায় সারা দেশের ৩০ শতাংশ খামারি পুঁজি হারিয়েছে। অন্তত ৭০ হাজার পোলট্রি ব্যবসায়ী করোনায় সংকটে রয়েছেন। লকডাউনে হোটেল, রেস্টুরেন্ট বন্ধ ছিল। বেকারি, মিষ্টি জাতীয় পণ্যে প্রচুর ডিম লাগে, তাও সে সময় বন্ধ ছিল। তাই লকডাউনে আমরা ডিমের দামও কমাতে বাধ্য হয়েছিলাম। সে সময় ডজন প্রতি অন্তত ৩০ টাকা কমে ডিম বিক্রি করা হয়েছে। 
 
রাকিবুর রহমান টুটুল আরও বলেন, এখন যেসব উদ্যোক্তা মুরগি উৎপাদন বন্ধ করে দিয়েছে তাঁদের আবার ফিরিয়ে আনতে হবে। ওই সব উদ্যোক্তারা অন্য পেশায় চলে গেলে পুরো খাতের ওপর প্রভাব পড়বে। এখন বাজারে মুরগির ভালো দাম পাওয়া গেলে তাঁদের আবার ফিরিয়ে আনা যাবে। একই সঙ্গে নতুন নতুন উদ্যোক্তা তৈরি হবে। বর্তমানে স্বাভাবিক সময়ের চেয়ে ৫০ শতাংশ মুরগি উৎপাদন কম হচ্ছে। তাই চাহিদা বাড়তি থাকলে বাজারে এর প্রভাব পড়বে। 

মন্তব্য

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।
Show
 
    সব মন্তব্য

    ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

    এলাকার খবর

    যাত্রীর জ্যাকেটের ভেতরে মিলল ২ কোটি টাকার স্বর্ণ

    যাত্রীর জ্যাকেটের ভেতরে মিলল ২ কোটি টাকার স্বর্ণ

    আলীপুরে জেলেদের দুই গ্রুপের সংঘর্ষে আহত ১৫

    আলীপুরে জেলেদের দুই গ্রুপের সংঘর্ষে আহত ১৫

    গাড়ি সাইড না দেওয়ায় ছাত্রলীগের সাবেক নেতাকে সাংসদের চড়

    গাড়ি সাইড না দেওয়ায় ছাত্রলীগের সাবেক নেতাকে সাংসদের চড়

    ভেড়ামারায় লালন শাহ সেতুতে সড়ক দুর্ঘটনায় শ্রমিক নিহত

    ভেড়ামারায় লালন শাহ সেতুতে সড়ক দুর্ঘটনায় শ্রমিক নিহত

    কালীগঞ্জে মা-বাবার সামনে পিকআপের চাকায় পিষ্ট হলো মেয়ে

    কালীগঞ্জে মা-বাবার সামনে পিকআপের চাকায় পিষ্ট হলো মেয়ে

    উখিয়ায় র‍্যাবের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে মাদক ব্যবসায়ী নিহত

    উখিয়ায় র‍্যাবের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে মাদক ব্যবসায়ী নিহত

    যাত্রীর জ্যাকেটের ভেতরে মিলল ২ কোটি টাকার স্বর্ণ

    যাত্রীর জ্যাকেটের ভেতরে মিলল ২ কোটি টাকার স্বর্ণ

    তামাকমুক্ত বাংলাদেশ অর্জনে শক্তিশালী আইন জরুরি

    তামাকমুক্ত বাংলাদেশ অর্জনে শক্তিশালী আইন জরুরি

    মাগুরায় শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে জলাবদ্ধতায় ভোগান্তি শিক্ষার্থীদের

    মাগুরায় শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে জলাবদ্ধতায় ভোগান্তি শিক্ষার্থীদের

    ইভ্যালির ব্যবসায় ভুল স্বীকার রাসেলের

    ইভ্যালির ব্যবসায় ভুল স্বীকার রাসেলের

    সেই গার্দিওলাকেই ফেরাতে চায় বার্সেলোনা!

    সেই গার্দিওলাকেই ফেরাতে চায় বার্সেলোনা!

    আলীপুরে জেলেদের দুই গ্রুপের সংঘর্ষে আহত ১৫

    আলীপুরে জেলেদের দুই গ্রুপের সংঘর্ষে আহত ১৫