সোমবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০২১

সেকশন

 

অট্টালিকায় ঠাঁই নেই, বড়ই গাছে চড়ুইয়ের দল

আপডেট : ১০ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২২:১৫

হোটেলের আঙ্গিনায় বড়ই গাছে আশ্রয় নিয়েছে শত শত চড়ুই। ছবি: আজকের পত্রিকা কবি রজনীকান্ত সেনের দেখা চড়ুই পাখিদের অট্টালিকায় মহাসুখে থাকার দিন শেষ! বাবুই ঠিকই নিজ হাতে গড়া বাসায় আজও অন্তত মাথা গোঁজার ঠাঁই করে নিতে পারছে। কিন্তু চড়ুইদের সেই বড়াই কই! তারা এখন অট্টালিকা থেকে বহিষ্কার হয়ে বেছে নিয়েছে কণ্টকময় বড়ই গাছ। 

ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে কুমিল্লা সদর দক্ষিণের নূর জাহান হোটেলের আঙিনার বড়ই গাছ শত শত চুড়ই পাখির আশ্রয়স্থলে পরিণত হয়েছে। সারা দিন স্থানটি কিচিরমিচির শব্দে মুখর হয়ে থাকে। প্রতিদিন বহু মানুষ ভিড় করেন এই দৃশ্য দেখতে। 

পাখিপ্রেমী খালিদ সাইফুল্লা বলেন, এখানে পাখিরা কলকাকলীতে মেতে ওঠে। এ যেন চড়ুই পাখিদের অভয়ারণ্য। সামনে দাঁড়িয়ে কিচিরমিচির ডাকে এই পাখিদের এক ডাল থেকে অন্য ডালে যাওয়ার দৃশ্য দেখতে যে কারও ভালো লাগবে। যত রাতই হোক হোটেলের সামনে দাঁড়িয়ে পাখিদের এমন বিচরণ দেখতে দাঁড়িয়ে যায় দূর-দুরান্ত থেকে আগত মানুষেরা। 

পরিবার নিয়ে চট্টগ্রাম থেকে ঢাকায় যাওয়ার পথে হোটেলে খেয়ে সন্তানদের নিয়ে পাখি দেখছিলেন সৈয়দা শরাবান তহুরা। তিনি বলেন, ছেলেরা পাখি পছন্দ করে। একসঙ্গে এতগুলো পাখি দেখে ওরা আর নড়ছে না। পাখিদের সঙ্গে কথা বলছে। খাবার দিচ্ছে। এটা অন্যরকম আনন্দ। আমাদের জার্নিতে চড়ুই পাখির সঙ্গে এই মুহূর্তটি বাড়তি আনন্দ যোগ করেছে। ওদের যেন খাবার আর নিরাপত্তার ব্যবস্থা করা হয়। 

পরিবেশ প্রকৃতি ও জীব-বৈচিত্র্য সংরক্ষণ কর্মী মতিন সৈকত বলেন, চড়ুই বাংলাদেশের আবাসিক পাখি। এটি গ্রামের টিনের ঘরের খুপরিতে নিরাপদ ও স্বাচ্ছন্দ্যে বসবাস করত। এখনকার অট্টালিকায় তাদের বসবাসের কোনো জায়গা রাখা হয় না। পরিবেশ ও জীব বৈচিত্র্যে পাখির গুরুত্ব আছে। তাদের নিরাপদ আবাসনের বিষয়টি আমাদের ভাবতে হবে। 

কাক, চড়ুই নগর জীবনের অঙ্গ ৷ কিন্তু নগরসভ্যতার চাপে পাখি উধাও হয়ে যাচ্ছে। এককালে চড়ুই পাখি সর্বত্র দেখা যেত, এখন অস্তিত্ব বিলোপের পথে। প্রাণ-প্রকৃতি রক্ষা ছাড়া পৃথিবীতে তো মানুষের একা বাঁচার স্বার্থপর চিন্তা আত্মবিনাশেরই নামান্তর!

মন্তব্য

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।
Show
 
    সব মন্তব্য

    ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

    এলাকার খবর

    বর্জ্য ব্যবস্থাপনা নীতিমালার দাবি

    বর্জ্য ব্যবস্থাপনা নীতিমালার দাবি

    ঘুরে আসতে পারেন রৌমারি বিল

    ঘুরে আসতে পারেন রৌমারি বিল

    এখনো ভুল পথে মানুষ

    এখনো ভুল পথে মানুষ

    চড়ুইদের ঠাঁই হলো বিদ্যুতের তারে

    চড়ুইদের ঠাঁই হলো বিদ্যুতের তারে

    রহস্যে ঘেরা সুন্দর

    রহস্যে ঘেরা সুন্দর

    দুই দিন সারা দেশে বাড়তে পারে বৃষ্টি

    দুই দিন সারা দেশে বাড়তে পারে বৃষ্টি

    রাতে সাকিবদের বিপক্ষে নামলেই কোহলির রেকর্ড

    রাতে সাকিবদের বিপক্ষে নামলেই কোহলির রেকর্ড

    ভাঙ্গায় ৬টি কেন্দ্রে শান্তিপূর্ণভাবে চলছে ভোটগ্রহণ 

    ভাঙ্গায় ৬টি কেন্দ্রে শান্তিপূর্ণভাবে চলছে ভোটগ্রহণ 

    রাশিয়ার একটি বিশ্ববিদ্যালয়ে বন্দুকধারীদের গুলিতে কমপক্ষে ৮ জন নিহত

    রাশিয়ার একটি বিশ্ববিদ্যালয়ে বন্দুকধারীদের গুলিতে কমপক্ষে ৮ জন নিহত

    পাঞ্জাবে প্রথম দলিত মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে শপথ নিলেন চান্নি

    পাঞ্জাবে প্রথম দলিত মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে শপথ নিলেন চান্নি

    পাবনায় প্রতিপক্ষের ছুরিকাঘাতে বৃদ্ধ নিহত 

    পাবনায় প্রতিপক্ষের ছুরিকাঘাতে বৃদ্ধ নিহত 

    ই-কমার্স রেগুলেটরি অথোরিটি গঠন করতে হাইকোর্টে রিট

    ই-কমার্স রেগুলেটরি অথোরিটি গঠন করতে হাইকোর্টে রিট