বৃহস্পতিবার, ২৮ অক্টোবর ২০২১

সেকশন

 

জীবন অগাধ

মা

আপডেট : ১০ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৮:৩৩

নেপোলিয়ান বোনাপার্ট গল্পটি নেপোলিয়ান বোনাপার্টের। তিনি একসময় ইংল্যান্ড আক্রমণ করবেন বলে ঠিক করেছিলেন। সে উদ্যোগ যখন চলছিল, তখন একদিন ফরাসি সৈন্যরা একটি ইংরেজ ছেলেকে সমুদ্রপথে ধরে এনে ফরাসি দেশের সমুদ্রতটে ছেড়ে দেয়। দেশের জন্য প্রাণ কাঁদত সেই ছেলের। সমুদ্র পার হলেই ইংল্যান্ড, কিন্তু কিছুতেই ফেরা যাচ্ছে না দেশে।

এক রাতে ঝড় হলে একটি খালি পিপে এসে আছাড় খেয়ে পড়ল সমুদ্রতটে। ছেলেটি সেটা নিয়ে লুকিয়ে রাখল পাহাড়ের গর্তে। তারপর সারা দিন ধরে সে পিপে ভেঙে নৌকা বানানোর চেষ্টা করতে লাগল। কিন্তু নৌকা বানানোর জন্যও তো সাজসরঞ্জাম লাগে, তার কিছুই নেই ছেলেটির কাছে। ভাঙা পিপের কাঠের চারদিকে নরম গাছের ডাল বুনে বুনে সে নৌকা বানানোর চেষ্টা করে যেতে লাগল। এই ভঙ্গুর, বাদামের খোলার মতো নৌকায় করে সে সমুদ্র পাড়ি দেবে! দেশ-যন্ত্রণা তার এতটাই তীব্র হয়ে উঠেছিল যে, সে ভেবেও দেখেনি–এই ছোট্ট নৌকা সমুদ্রে পড়লেই ভেঙে গুঁড়িয়ে যাবে।

যেদিন সে নৌকা ভাসানোর তোড়জোড় করছিল, সেদিন তা দেখে ফেলে ফরাসি সৈন্যরা তাকে ধরল। কষ্টের নৌকা আর ভাসানো হলো না।

কথাটা উঠল নেপোলিয়ানের কানে। তিনি ছেলেটিকে ডেকে পাঠালেন। জিজ্ঞেস করলেন, ‘তোমার এত সাহস! এই কাঠ বা ডালপালার নৌকায় করে সমুদ্র পার হতে চাও! দেশে তোমার কে আছে?’

 ‘মা আছে। মাকে কত দিন দেখি না!’ ছেলেটির চোখ ছলছল করে উঠল।

নেপোলিয়ান তখনই বললেন, ‘মায়ের সঙ্গে তোমার দেখা হবে। আমি নিজে তোমাকে দেশে যাওয়ার ব্যবস্থা করে দেব।’ নেপোলিয়ান ছেলেটার হাতে একটা মোহর দিলেন এবং নিজের জাহাজে করেই তাকে পাঠিয়ে দিলেন ইংল্যান্ডে। ভাবলেন, যে ছেলে এমন সাহসী, তার মা না-জানি কত মহৎ!

ছেলেটি কিন্তু সেই মোহরটি কখনো ভাঙায়নি। চিরদিন রেখে দিয়েছিল কাছে।

সূত্র: রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর, গুটিকত গল্প, বালক, পৃষ্ঠা: ৩৬-৩৭

মন্তব্য

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।
Show
 
    সব মন্তব্য

    ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

    এলাকার খবর

    পিতা, মাতা ও পত্নী

    আব্বাসউদ্দীন ও রাষ্ট্রভাষা

    শুল্ক কমানোর পরও চিনির বাজারে অস্থিরতা

    বিশেষ ক্যাম্পেইনের দ্বিতীয় ডোজ আজ

    পাকিস্তানে নিষিদ্ধ ইসলামি গোষ্ঠী টিএলপির সঙ্গে সংঘর্ষে ৪ পুলিশ নিহত, আহত দুই শতাধিক

    ডোপ টেস্ট রিপোর্ট যেন ভুয়া না হয়

    সেগুনবাগিচায় আবাসিক হোটেল থেকে ঢাবি ছাত্রের মরদেহ উদ্ধার

    রামেকের করোনা ইউনিটে ৫ জনের মৃত্যু