বুধবার, ২৭ অক্টোবর ২০২১

সেকশন

 

বনানী থানার ইন্সপেক্টর সোহেল রানা ভারতে গ্রেপ্তার

আপডেট : ০৫ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১২:১৭

বনানী থানার ইন্সপেক্টর সোহেল রানা। ছবি: আজকের পত্রিকা রাজধানীর বনানী থানার পরিদর্শক (তদন্ত) সোহেল রানাকে ভারত সীমান্ত এলাকা থেকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। গতকাল শুক্রবার ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনীর (বিএসএফের) পশ্চিমবঙ্গের কোচবিহার জেলার চ্যাংড়াবান্দা সীমান্ত থেকে তাঁকে গ্রেপ্তার করে। গ্রাহকের টাকা আত্মসাতের দায়ে অভিযুক্ত ই–কমার্স প্রতিষ্ঠান ই–অরেঞ্জের সঙ্গে সংশ্লিষ্টতার ব্যাপারে একাধিক গোয়েন্দা সংস্থার তদন্তে সম্প্রতি তাঁর নাম এসেছে। 
 
পুলিশের গুলশান বিভাগে উপ-কমিশনার (ডিসি) মো. আসাদুজ্জামান আজকের পত্রিকাকে জানান, সোহেল রানাকে গ্রেপ্তারের ব্যাপারে এখনো আমরা আনুষ্ঠানিক ভাবে কোনো তথ্য পাই নাই। 
 
বনানী থানার ওসি নুরে আজম আজকের পত্রিকাকে বলেন, শুক্রবার ও শনিবার তিনি অফিস করেননি। তিনি ছুটিও নেননি। তিনি কোথায় আছেন জানি না। ভারতে গ্রেপ্তারের বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমরা তাঁর গ্রেপ্তারের ব্যাপারে আনুষ্ঠানিক কোনো কিছু জানি না। 

পশ্চিমবঙ্গের ইউবিএস নামে স্থানীয় একটি গণমাধ্যমে বলা হয়, সীমান্ত টপকে ভারতে প্রবেশের অভিযোগে শুক্রবার কোচবিহার জেলার চ্যাংড়াবান্দা সীমান্ত থেকে এক বাংলাদেশি নাগরিক শেখ সোহেল রানাকে গ্রেপ্তার করে বিএসএফ। আটকের পর তাঁর কাছ থেকে বিদেশি পাসপোর্ট, একাধিক মোবাইল এবং এটিএম কার্ড জব্দ করা হয়েছে। শনিবার মেখলিগঞ্জ থানা-পুলিশের কাছে তাঁকে হস্তান্তর করা হতে পারে বলে জানিয়েছে বিএসএফ। গ্রেপ্তার হওয়া সোহেল রানার পাসপোর্ট থেকে দেখা যায়, তিনি বাংলাদেশের গোপালগঞ্জের বাসিন্দা। 
 
সোহেল রানা আলোচিত ই–কমার্স প্রতিষ্ঠান ই–অরেঞ্জের পৃষ্ঠপোষক। ছবি: আজকের পত্রিকা সোহেল রানা গ্রাহকের কোটি কোটি টাকা আত্মসাৎকারী বহুল আলোচিত ই–কমার্স প্রতিষ্ঠান ই–অরেঞ্জের পৃষ্ঠপোষক। বনানী থানার এই পুলিশ পরিদর্শকের বোন ও ভগ্নিপতি ই–কমার্স প্রতিষ্ঠান ‘ই–অরেঞ্জ’ পরিচালনা করতেন। মাসের পর মাস পণ্য না পাওয়ায় ই–অরেঞ্জের বিরুদ্ধে গত ১৭ আগস্ট মামলা করেন গ্রাহক মো. তাহেরুল ইসলাম। ওই সময় তাঁর সঙ্গে প্রতারণার শিকার আরও ৩৭ জন উপস্থিত ছিলেন। গ্রাহকের ১ হাজার ১০০ কোটি টাকা আত্মসাতের অভিযোগে ওই মামলা হয়। 

আসামিরা হলেন ই–অরেঞ্জের মালিক সোনিয়া মেহজাবিন, তাঁর স্বামী মাসুকুর রহমান, আমানউল্ল্যাহ, বীথি আক্তার, কাউসার আহমেদ এবং পুলিশের বনানী থানার পরিদর্শক সোহেল রানা। অরেঞ্জ বাংলাদেশ নামে প্রতিষ্ঠান খুলতে নেওয়া টিআইএন সনদে পরিচালক হিসেবে সোহেল রানার নাম দেখা যায়। প্রতিষ্ঠানটি থেকে বিভিন্ন সময়ে আড়াই কোটি টাকা তুলে নেওয়ার অভিযোগও রয়েছে তাঁর বিরুদ্ধে।

 

 

মন্তব্য

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।
Show
 
    সব মন্তব্য

    ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

    পঠিতআলোচিতসর্বশেষ

    এলাকার খবর

    প্রয়োজনে সর্বোচ্চ ত্যাগ স্বীকার করবে সেনাবাহিনী: প্রধানমন্ত্রী

    উপজেলা যুব উন্নয়ন কর্মকর্তার পদ প্রথম শ্রেণিতে উন্নীত করার সুপারিশ

    ডেঙ্গুতে এক দিনে ভর্তি ১৮২, মৃত্যু ১

    দেশে পৌঁছেছে সিনোফার্মের আরও ২ লাখ টিকা

    করোনায় আরও ৬ মৃত্যু, ঢাকাসহ মৃত্যুহীন ৪ বিভাগ

    ফ্লাইওভারে ফাটল নেই, যান চলাচলে খুলে দেওয়া যাবে: বিশেষজ্ঞ দল

    পূজামণ্ডপে হামলাকারীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দেওয়া হবে: ওবায়দুল কাদের

    আবারও টি-টোয়েন্টির সেরা অলরাউন্ডার সাকিব

    জলবায়ু বিপর্যয় থেকে সুন্দরবন ও উপকূল সুরক্ষার দাবিতে গণ অবস্থান কর্মসূচি

    বেনাপোল বন্দরে আটকে পড়া সয়াবিন খৈল রপ্তানি হবে ৩১ অক্টোবর পর্যন্ত 

    ২২ বিভাগে সম্মাননা পেলেন ২২ জন সাংবাদিক