রোববার, ১৯ মে ২০২৪

সেকশন

 

মালিককেই চুরি হওয়া রিকশা খোঁজার দায়িত্ব দিল পুলিশ

আপডেট : ০২ সেপ্টেম্বর ২০২৩, ১৯:১৭

পটুয়াখালীর বাউফল থানা। ছবি: সংগৃহীত পটুয়াখালীর বাউফলে ব্যাটারিচালিত রিকশা চুরির ঘটনায় ভুক্তভোগী রিকশাচালককেই রিকশা খোঁজার দায়িত্ব দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে বাউফল থানার উপপরিদর্শক (এসআই) মো. নজরুল ইসলামের বিরুদ্ধে। রিকশা চুরির ঘটনার ১২ দিন অতিবাহিত হলেও তদন্ত কর্মকর্তা লিখিত অভিযোগটি এজাহারভুক্ত করেননি বলে জানা গেছে। 

ভুক্তভোগী রিকশাচালক আতিকুর রহমান আজকের পত্রিকাকে জানান, গত ২২ আগস্ট সন্ধ্যায় বাউফল পৌরসভা ভবনসংলগ্ন মুসলিমপাড়া সড়ক থেকে তাঁর অটোরিকশাটি চুরি হয়। ওই দিন রাতেই তিনি বাউফল থানায় এ বিষয়ে লিখিত অভিযোগ করেন। পরদিন ২৩ আগস্ট সকাল গড়িয়ে বিকেল পর্যন্তও পুলিশ ঘটনাস্থলে যায়নি। পরে স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিরা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাকে বিষয়টি জানান। 

পরে ওই দিন সন্ধ্যার দিকে এসআই নজরুল ইসলাম ঘটনাস্থলে যান। ভুক্তভোগীকে সঙ্গে নিয়ে পৌর ভবনের সিসিটিভি ফুটেজ চেক করেন। এরপর অনেকটা ব্যস্ততা দেখিয়ে অল্প সময় পরেই তিনি থানায় চলে যান বলে জানান। 

চলে যাওয়ার আগ মুহূর্তে পৌরসচিব, পৌর উপসহকারী প্রকৌশলী ও একজন সাংবাদিকের উপস্থিতিতে এসআই নজরুল ইসলাম ভুক্তভোগীকে রিকশাটি খুঁজে দেখার পরামর্শ দেন এবং আশপাশে অন্য কোনো বাড়ির সিসি ক্যামেরা আছে কি না তাঁকে জানাতে বলেন। সেদিনের পর থেকে আজ পর্যন্ত ওই পুলিশ কর্মকর্তা ভুক্তভোগীর সঙ্গে আর কোনো যোগাযোগও করেননি এবং অভিযোগ তদন্ত করেননি বলেও জানান ভুক্তভোগী রিকশাচালক। 

বাউফল পৌরসভার সচিব মাইনুল ইসলাম আজকের পত্রিকাকে বলেন, ‘পুলিশ ঘটনার দিন এসে কিছু ফুটেজ দেখছিল। তবে বাকি ফুটেজ কারিগরি ত্রুটির কারণে দেখতে পারেনি। পুলিশ ওই দিনের পর থেকে আর আসেনি।’ 

ভুক্তভোগী রিকশাচালক আতিকুর রহমান আজকের পত্রিকাকে বলেন, ‘১২ দিন ধরে তিন শিশুসন্তান ও স্ত্রীকে নিয়ে মানবেতর জীবন যাপন করছি। রিকশা চালিয়ে টাকাপয়সা আয় করা ছাড়া অন্য কোনো উপায় নাই আমার। পুলিশকে ভয় পাই, তাই বেশি কথা বলতে পারি না। আশপাশে কোথায় ক্যামেরা আছে আমি কীভাবে জানব? এটা তো খুঁজে বের করা পুলিশের কাজ।’ 

এ বিষয়ে রিকশা চুরির অভিযোগের তদন্ত কর্মকর্তা ও বাউফল থানার উপপরিদর্শক (এসআই) মো. নজরুল ইসলাম আজকের পত্রিকাকে বলেন, ‘আমি তো তাঁর রিকশা চিনি না। তাই তাঁকে খুঁজে দেখতে বলা হয়েছে। তদন্ত হচ্ছে না, এই অভিযোগ মিথ্যা। তবে আমার তদন্তকাজ চলমান রয়েছে।’ 

বাউফল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এ টি এম আরিচুল হক আজকের পত্রিকাকে বলেন, ‘এ ঘটনার তদন্তের দায়িত্ব উপপরিদর্শক নজরুল ইসলামকে দেওয়া হয়েছে। এ বিষয়ে তদন্ত চলছে। তবুও আমি খোঁজখবর নিয়ে দেখছি।’

মন্তব্য

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।
Show
 
    সব মন্তব্য

    ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

    এলাকার খবর

     

    শরীয়তপুরে চেয়ারম্যান প্রার্থীর ওপর হামলা, আহত ১০ 

    চট্টগ্রাম কলেজ ছাত্রলীগের কমিটি বিলুপ্ত ঘোষণা

    রাজধানীতে স্বেচ্ছাসেবক লীগের র‍্যালিতে হাতাহাতি, ছাত্রলীগ কর্মী খুন

    অসমসাহস দেখাতে গিয়েই শ্রমিকের মৃত্যু, বলছে পল্লী বিদ্যুৎ

    যাত্রাবাড়ী থেকে উদ্ধার মরদেহের পরিচয় মিলেছে

    চুরির অপবাদে দুই শিশুকে হাত-পা ও মুখ বেঁধে নির্যাতন, থানায় মামলা

    ৭২ লাখ টাকা জরিমানা দিয়ে চট্টগ্রাম বন্দর ছাড়ল বিদেশি জাহাজ

    শরীয়তপুরে চেয়ারম্যান প্রার্থীর ওপর হামলা, আহত ১০ 

    মাকে হত্যার আসামি হওয়ার পর জানলেন তিনি আসলে পালিত কন্যা

    চট্টগ্রাম কলেজ ছাত্রলীগের কমিটি বিলুপ্ত ঘোষণা

    কিরগিজস্তানে বিদেশি শিক্ষার্থীদের ওপর হামলার নেপথ্যে

    ইরানে দুই নারীসহ সাতজনের মৃত্যুদণ্ড কার্যকর, ফাঁসিতে ঝুলতে পারে আরেক ইহুদি