সোমবার, ২৭ মে ২০২৪

সেকশন

 

স্বাধীনতা দিবসের অঙ্গীকার, রুখতে হবে স্বৈরাচার: গণ অধিকার পরিষদ

আপডেট : ২৬ মার্চ ২০২৩, ১৬:০৭

সাভারে জাতীয় স্মৃতিসৌধে শ্রদ্ধা নিবেদন গণ অধিকার পরিষদের। ছবি: সংগৃহীত গণ অধিকার পরিষদের নেতারা বলেছেন, ‘স্বাধীনতা দিবসের অঙ্গীকার, দেশ হবে জনতার, রুখতে হবে স্বৈরাচার। স্বৈরাচারের পতনে আরেকবার রক্ত ও জীবন দিতে আমাদের প্রস্তুতি নিতে হবে। সংগ্রামের মাধ্যমেই অতীতে আইয়ুব, ইয়াহিয়া, এরশাদ, ফখরুদ্দীন, মঈন উদ্দিনের পতন হয়েছে। এই সরকারকেও গণবিপ্লব করে বিদায় জানাতে হবে।’

আজ ২৬ মার্চ মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবসে সাভারে জাতীয় স্মৃতিসৌধে শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধাঞ্জলি জানানো শেষে সাংবাদিকদের কাছে গণ অধিকার পরিষদের নেতারা এসব কথা বলেন।

এ সময় সংগঠনটির যুগ্ম আহ্বায়ক মুহাম্মদ রাশেদ খান বলেন, ‘স্বাধীনতার ৫২ বছরেও মুক্তিযুদ্ধে শহীদদের সঠিক তালিকা করতে না পারা আওয়ামী লীগের বড় ব্যর্থতা। আওয়ামী লীগ নিজেদের মুক্তিযুদ্ধের সপক্ষের শক্তি দাবি করলেও ৩০ লাখ শহীদের ত্যাগের প্রতি তাদের কোনো সম্মান নেই।’

মুহাম্মদ রাশেদ খান আরও বলেন, ‘গণ অধিকার পরিষদ মহান মুক্তিযুদ্ধের মূলনীতি সাম্য, মানবিক মর্যাদা, সামাজিক ন্যায়বিচার বাস্তবায়ন করতে অঙ্গীকারবদ্ধ। তরুণদের রক্ত ও সংগ্রামের বিনিময়ে স্বাধীনতা অর্জিত হলেও জাতীয় সংসদে তরুণ নেতৃত্বের অংশগ্রহণের সুযোগ কম। তরুণদের সামনে এগিয়ে দিতে হবে, দেশকে দুর্নীতি, ঘুষ, গুম, খুনমুক্ত করতে হবে। প্রশাসনকে আজকে দলীয়করণ করা হয়েছে। প্রশাসনকে ব্যবহার করে ভোট চুরির সংবাদ আজ বিশ্ব গণমাধ্যমেও আসে, যা আমাদের মাথা নত করে দেয়।’ 

রাশেদ খান বলেন, ‘মুক্তিযুদ্ধের নেতৃত্বদানকারী দাবিদার সরকার একটি সুষ্ঠু নির্বাচন দিতে ভয় পায়। ২০২৩ সালের ডিসেম্বরে তারা আরেকটি পাতানো নির্বাচনের পাঁয়তারা করছে। তবে আমরা এবার ফাঁকা মাঠে গোল দিতে দেব না। আওয়ামী লীগ আবারও বিদেশিদের বাড়িতে বাড়িতে নৈশভোজ খাওয়া শুরু করেছে। আমাদের সোজা কথা, ক্ষমতায় থাকতে বিদেশিদের হস্তক্ষেপ আমরা মেনে নেব না। ভবিষ্যতে কে ক্ষমতায় আসবে, সেটি নির্ধারণ করবে দেশের জনগণ। বাংলাদেশে ভিনদেশি তাঁবেদার সরকার আসতে দেওয়া হবে না।’

গণ অধিকার পরিষদের আরেক যুগ্ম আহ্বায়ক ফারুক হাসান বলেন, ‘আমরা ১৯৭১ সালে খাতা-কলমে স্বাধীনতা পেলেও প্রকৃত স্বাধীনতা এখনো পাইনি। মহান মুক্তিযুদ্ধের মূলমন্ত্র ছিল সাম্য, মানবিক মর্যাদা ও সামাজিক ন্যায়বিচার, যার ছিটেফোঁটাও আজকের এই বাংলাদেশে বাস্তবায়ন করতে পারেনি ক্ষমতাসীন দলগুলো।’ 

যুগ্ম আহ্বায়ক শহিদুল ইসলাম ফাহিম বলেন, ‘যে জাতি স্বাধীনতার শিকলে পরাধীন থাকতে চায়, তাদের জন্য স্বাধীনতার কোনো শুভেচ্ছা হতে পারে না। নীরবে ভোট ও ভাতের অধিকার বিলিয়ে দিয়ে স্বৈরাচারী ফ্যাসিস্ট শিকলে বন্দী এই জাতি। গণ অধিকার পরিষদ স্বৈরাচারী ফ্যাসিস্ট শিকল ভেঙে এই জাতিকে স্বাধীনতার পূর্ণ স্বাদ ফিরিয়ে দেবে, এটাই আমাদের এবারের স্বাধীনতা দিবসের অঙ্গীকার।’

এ সময় উপস্থিত ছিলেন গণ অধিকার পরিষদের যুগ্ম আহ্বায়ক পাঠান আজহার, যুগ্ম সদস্যসচিব সাইফুল্লাহ হায়দার, জিলু খান, সদস্য তোফাজ্জল হোসেন, ঢাকা জেলার আহ্বায়ক শওকত হোসেন, বাংলাদেশ ছাত্র অধিকার পরিষদের সভাপতি বিন ইয়ামিন মোল্লা, বাংলাদেশ যুব অধিকার পরিষদের সাধারণ সম্পাদক নাদিম হাসান, বাংলাদেশ শ্রমিক অধিকার পরিষদের সভাপতি আব্দুর রহমান প্রমুখ।

মন্তব্য

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।
Show
 
    সব মন্তব্য

    ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

    এলাকার খবর

     

    চলতি বছর ডেঙ্গু দেশের জন্য অশনিসংকেত

    ঢাকার প্রধান প্রধান সড়কে ব্যাটারিচালিত রিকশা চলবে না: ডিএমপি 

    দুর্নীতির শ্বেতপত্র প্রকাশের আহ্বান টিআইবির

    মহাসড়কে অটোরিকশা চালানোর দাবিতে চালকদের বিক্ষোভ, পুলিশের লাঠিপেটা

    খিলগাঁওয়ে পুলিশের রেকার গাড়ির ধাক্কায় আহত ৫

    বাগেরহাটে ৫ লক্ষাধিক মানুষ বিদ্যুৎ বিচ্ছিন্ন

    ১০২ কিমি বেগে উপকূলে ঘূর্ণিঝড় রিমালের আঘাত, জোয়ার-জলোচ্ছ্বাসে প্লাবণ

    উপকূল জুড়ে চলছে রিমালের তাণ্ডব

    এবার কাতার এয়ারওয়েজের বিমান ঝোড়ো বাতাসের কবলে, আহত ১২

    শর্ত পূরণ না করায় সহজ ডটকমের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার সুপারিশ সংসদীয় কমিটির

    চলতি বছর ডেঙ্গু দেশের জন্য অশনিসংকেত

    এমআরসিপিতে সর্বোচ্চ নম্বরের রেকর্ড গড়লেন ডা. হালিম