Alexa
মঙ্গলবার, ৩১ জানুয়ারি ২০২৩

সেকশন

epaper
 

সোনারগাঁয়ে আ. লীগের কর্মিসভায় সংঘর্ষ, আহত ২০

আপডেট : ২৫ জানুয়ারি ২০২৩, ২৩:২১

সংঘর্ষ চলাকালীন মঞ্চের সামনের প্রায় দুই হাজার চেয়ার ভেঙে গুঁড়িয়ে দেওয়া হয়। ছবি: সংগৃহীত নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁ উপজেলার শম্ভুপুরা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের কর্মিসভায় সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এতে পণ্ড হয়ে যায় সভা। এতে কমপক্ষে ২০ জন নেতা-কর্মী আহত হয়েছেন। আজ বুধবার উপজেলার শম্ভুপুরা ইউনিয়নের এলাহীনগর ঈদগা মাঠে এ ঘটনা ঘটে।

প্রত্যক্ষদর্শী ও দলীয় নেতা-কর্মীরা জানান, বুধবার বিকেলে উপজেলার শম্ভুপুরা ইউনিয়নের কর্মিসভা চলছিল স্থানীয় এলাহীনগর ঈদগাহ মাঠে। সভা চলাকালীন ওই ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি আবু সিদ্দিক মোল্লা বক্তব্য দেওয়ার সময় তাঁর প্রতিপক্ষ ও ওই ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহসভাপতি ও গত ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের দলীয় সমর্থিত প্রার্থী নাসির উদ্দিনকে কটাক্ষ করে বক্তব্য দেন। এতে প্রতিবাদ জানান নাসির উদ্দিনের সমর্থকেরা। অভিযোগ উঠেছে, এ সময় আবু সিদ্দিক মোল্লার সমর্থকেরা একত্রিত হয়ে প্রথমে নাসির উদ্দিন ও পরে তাঁর সমর্থক আওয়ামী লীগ কর্মী স্বপন মিয়া, আরমান মিয়া, সিফাত হোসেন, আক্তার হোসেন, জলিলসহ ২০ জনকে পিটিয়ে আহত করেন। 

সংঘর্ষ চলাকালীন মঞ্চের সামনের প্রায় দুই হাজার চেয়ার ভেঙে গুঁড়িয়ে দেওয়া হয়। এ সময় মঞ্চে উপস্থিত ছিলেন—সোনারগাঁ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি শামসুল ইসলাম ভুইয়া, সাবেক এমপি ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল্লাহ আল কায়সার, উপজেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি ও পিরোজপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মাসুদুর রহমান মাসুম, জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ডা. আবু জাফর চৌধূরী বিরুসহ উপজেলা আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগ নেতা-কর্মীরা। পরে তাঁরা ভয়ে মঞ্চ ছেড়ে স্থানীয় বাজারের ভেতরের দোকানপাট ও বাড়িঘরে আশ্রয় নেন। বক্তব্য না দিয়েই সভা স্থগিত করে উপজেলা সদরে চলে যান। সংঘর্ষে আহতদের নারায়ণগঞ্জ জেনারেল হাসপাতাল ও সোনারগাঁ উপজেলার বিভিন্ন স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। 

এ ব্যাপারে আহত আওয়ামী লীগ নেতা নাসির উদ্দিন বলেন, ‘আবু সিদ্দিক মোল্লা আমাকে কটাক্ষ করে বক্তব্য দেওয়ার সময় আমার কর্মীরা প্রতিবাদ করে। তার সমর্থকেরা আমাকে ও আমার সমর্থকদের পিটিয়ে আহত করেছে।’ 

অপরদিকে আবু সিদ্দিক মোল্লা বলেন, ‘গত নির্বাচনে নাসির উদ্দিনের দোষের কারণে সে পরাজিত হয়েছিল। আমি এ বিষয়টি নিয়ে বক্তব্য দেওয়ার সময় তার কর্মীরা হইচই শুরু করেন।’ এ ঘটনার জন্য তিনি নাসির উদ্দিনকে দায়ী করেন। 

উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি শামসুল ইসলাম ভুইয়া বলেন, ‘সভায় সংঘর্ষ হয়েছে আওয়ামী লীগ নেতা আবু সিদ্দিক মোল্লার উসকানিমূলক বক্তব্যকে কেন্দ্র করে। আমরা দলীয়ভাবে তাঁর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেব। এ ঘটনার জন্য আবু সিদ্দিক মোল্লা দায়ী। সভা পণ্ড হওয়ার পর রাতে উপজেলা আওয়ামী লীগ সর্ব সম্মতভাবে সিদ্ধান্ত নিয়েছে প্রথমে তাকে শোকজ করে, পরে তাকে দল থেকে বহিষ্কার করা হবে।’ 

সোনারগাঁ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাহাবুব আলম বলেন, ‘সংঘর্ষের খবর পেয়ে অতিরিক্ত পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’ 

মন্তব্য

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।
Show
 
    সব মন্তব্য

    ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

    এলাকার খবর

     
     

    সাটুরিয়ায় সড়কের কাজে ধীর গতি, জনদুর্ভোগ চরমে

    বাকি খাইয়ে প্রায় দেউলিয়া, ঢাবির জসীমউদ্দিন হলের ক্যানটিন বন্ধ

    বাঘায় ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে এক যুবক গ্রেপ্তার

    সংবাদ প্রকাশের পর চট্টগ্রামে রেলের সেই কর্মচারীর অবৈধ দোকান উচ্ছেদ

    মাছ কাটা নিয়ে ঝগড়া, গায়ে আগুন দিয়ে গৃহবধূর ‘আত্মহত্যা’

    ফজর নামাজ পড়তে বেরিয়েছিলেন বৃদ্ধ, লাশ মিলল হাওরে

    নাটক ছাড়ছেন না মেহজাবীন

    শুরু হচ্ছে সিসিমপুরের নতুন মৌসুম

    এভাবেও প্রচারণা হয়!

    বাস্তবতা দিয়ে গড়া প্রতিটি দৃশ্য

    মনসুর কি হারিয়ে যাবেন

    ক্ষমা পেলেও পদ পাচ্ছেন না