Alexa
বৃহস্পতিবার, ০৯ ফেব্রুয়ারি ২০২৩

সেকশন

epaper
 

আইন অমান্য করে নজরুল বিশ্ববিদ্যালয়ের গুরুত্বপূর্ণ তিন পদে এক শিক্ষক

আপডেট : ২৪ জানুয়ারি ২০২৩, ১৬:৩৫

 উজ্জ্বল কুমার প্রধান। ছবি: সংগৃহীত বিশ্ববিদ্যালয় আইন ও বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের (ইউজিসি) নির্দেশনা অমান্য করে জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয় (জাককানইবি) প্রশাসন এক শিক্ষককে একাধিক গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্বে রেখেছে। এ নিয়ে ময়মনসিংহের ত্রিশালের এই বিশ্ববিদ্যালয়টির শিক্ষকদের মধ্যে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে।

ইউজিসির নির্দেশনা উপেক্ষা করে দুই মেয়াদে পূর্ণকালীন দায়িত্ব শেষ হলেও প্রক্টরের দায়িত্বে রয়েছেন কম্পিউটার সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের অধ্যাপক ড. উজ্জ্বল কুমার প্রধান। গত বছরের ২০ মার্চ ইউজিসির এক বিজ্ঞপ্তিতে ১০ বছরের বেশি বয়সী বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর গুরুত্বপূর্ণ পদে চুক্তিভিত্তিক, অতিরিক্ত দায়িত্ব বা চলতি দায়িত্বের পরিবর্তে বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন/প্রবিধান অনুযায়ী স্থায়ী নিয়োগ দিতে বলা হয়।

২০০৬ সালের বিশ্ববিদ্যালয় আইনের প্রথম সংবিধির দফা-১৭ (২) তে বলা হয়েছে, ‘বিশ্ববিদ্যালয়ের যেসব দায়িত্বের জন্য আর্থিক সুবিধা প্রদান করা হবে সেসব দায়িত্বের মধ্য থেকে একসঙ্গে একাধিক দায়িত্ব কোনো শিক্ষক, কর্মকর্তা বা কর্মচারীকে দেওয়া যাবে না।’ আইনের সংবিধিতে সুস্পষ্টভাবে এটি বলা থাকলেও আইনের তোয়াক্কা না করেই তাঁকে তিনটি গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্বে রেখেছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন।

এসব নির্দেশনা উপেক্ষা করেই বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন উজ্জ্বল কুমার প্রধানকে প্রক্টরের দায়িত্বে রেখেছে বলে অভিযোগ উঠেছে। একই সঙ্গে ডিন এবং এনভায়রনমেন্টাল সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের প্রধানের মতো গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্বেও রয়েছেন তিনি।

বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন সূত্রে জানা গেছে, ২০১৮ সালের সেপ্টেম্বরে অনুষ্ঠিত বিশ্ববিদ্যালয়ের ৬১তম সিন্ডিকেট সভার সিদ্ধান্তক্রমে সে বছরের ১৮ জুলাই থেকে উজ্জ্বল কুমার প্রধানকে দুই বছরের জন্য প্রক্টরের দায়িত্ব দেওয়া হয়। নির্ধারিত দুই বছর মেয়াদ শেষে ২০২০ সালের ১৮ জুলাই থেকে তাঁকে দ্বিতীয় মেয়াদে প্রক্টরের দায়িত্ব দেওয়া হলে সেই দায়িত্বের মেয়াদ শেষ হয় ২০২২ সালের ১৭ জুলাই। 

দ্বিতীয় মেয়াদে দায়িত্ব পালন শেষে গত বছরের ১৮ জুলাই থেকে পুনরায় তাঁকে পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত দায়িত্ব পালন করতে বলেছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। মেয়াদ শেষ হওয়ার পরও ইউজিসির নির্দেশনা অমান্য করে তাঁকে দায়িত্বে রাখায় শিক্ষকদের মধ্যে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে। একজনকে বারবার দায়িত্বে না রেখে নতুন কাউকে সুযোগ দেওয়ার পক্ষে মত দেন বিশ্ববিদ্যালয়ের একাধিক জ্যেষ্ঠ শিক্ষক।

উজ্জ্বল কুমার প্রধানকে ডিন হিসেবে নিয়োগেও রয়েছে জ্যেষ্ঠতার ক্রম না মানার অভিযোগ। গত ১৩ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত বিশ্ববিদ্যালয়ের ৭৯তম সিন্ডিকেট সভার অনুমোদনক্রমে বিজ্ঞান ও প্রকৌশল অনুষদের ডিন হিসেবে নিয়োগ পান অধ্যাপক উজ্জ্বল কুমার প্রধান। বিশ্ববিদ্যালয় আইন ২০০৬-এর ২২ (৫) ধারায় বলা হয়েছে, ‘ভাইস চ্যান্সেলর সিন্ডিকেটের অনুমোদনক্রমে প্রত্যেক অনুষদের জন্য বিভিন্ন বিভাগের অধ্যাপকদের মধ্য থেকে জ্যেষ্ঠতার ভিত্তিতে পালাক্রমে দুই বছর মেয়াদের জন্য ডিন নিয়োগ করবেন।’ কিন্তু এই অনুষদে জ্যেষ্ঠতার ক্রমানুসারে সপ্তম অবস্থানে ছিলেন অধ্যাপক উজ্জ্বল কুমার প্রধান।

এ বিষয়ে শিক্ষক সমিতির সভাপতি অধ্যাপক ড. শেখ সুজন আলী বলেন, ‘একজন ব্যক্তিকে একই সঙ্গে একাধিক দায়িত্ব না দিয়ে দায়িত্বগুলো যথাযথভাবে বণ্টন করা হলে তাতে বিশ্ববিদ্যালয়ে কাজের গতি বাড়বে বলে আমি মনে করি।’

এ বিষয়ে অধ্যাপক ড. উজ্জ্বল কুমার প্রধান বলেন, ‘উপাচার্য স্যার বিধির মধ্যে থেকেই আমাকে দায়িত্ব দিয়েছেন। এখানে কোনো বিধির লঙ্ঘন হয়েছে বলে আমি মনে করি না।’

উপাচার্য অধ্যাপক ড. সৌমিত্র শেখর বলেন, ‘এখানে সিন্ডিকেট যা ভালো মনে করে তাই করা হয়। ভিসি এককভাবে কিছু করেন না। ভিসি সিন্ডিকেটে বিষয়গুলো উপস্থাপন করেন, সিন্ডিকেট চাইলে অনেক কিছু বাতিল করতে পারে।’

মন্তব্য

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।
Show
 
    সব মন্তব্য

    ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

    এলাকার খবর

     
     

    ছাত্রলীগ নেতার বিরুদ্ধে অন্তঃসত্ত্বা ‘প্রেমিকার’ ধর্ষণ মামলা

    পা দিয়ে লিখে এইচএসসি পাস, হতে চান বিসিএস কর্মকর্তা

    না.গঞ্জে রেস্তোরাঁয় ঢুকে গুলির ঘটনায় মালিকদের বিক্ষোভ

    ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় বিচারপ্রার্থীরা অংশ নিচ্ছেন মামলার শুনানিতে

    ডেমরায় ফ্ল্যাট থেকে নারীর মরদেহ উদ্ধার

    যশোরে বিএনপি কর্মীদের সঙ্গে ধস্তাধস্তিতে ৪ পুলিশ আহত, আটক ৬ 

    সিএনজি চালিয়ে হাতে ফোসকা পড়েছে শ্যামল মাওলার

    দেবাশীষের বিজলী হচ্ছেন বুবলী

    মেলায় আছেন হ‌ুমায়ূনও

    ফারসি ভাষা শিখল কারা

    মাউশির প্রকল্প: কাজ শুরুর আগেই গচ্চা ১১৬ কোটি

    ঢাকায় বিএনপির পদযাত্রা স্থগিত