Alexa
রোববার, ২৯ জানুয়ারি ২০২৩

সেকশন

epaper
 

সোহান ফিরতেই জয়ে ফিরল রংপুর

আপডেট : ২৩ জানুয়ারি ২০২৩, ১৭:২৫

এবারের বিপিএলে দ্বিতীয় ফিফটি করেছেন শোয়েব মালিক। ছবি: সৌজন্য নুরুল হাসান সোহানের নেতৃত্বে শুরুতে তিন ম্যাচে দুই জয় পেয়েছিল রংপুর রাইডার্স। সাইড স্ট্রেইনের চোটে পরের দুই ম্যাচ খেলতে পারেননি এই উইকেটরক্ষক-ব্যাটার। খুলনা টাইগার্স ও ফরচুন বরিশালের বিপক্ষে রংপুরকে নেতৃত্ব দেন শোয়েব মালিক। কিন্তু ওই দুই ম্যাচেই হেরেছেন তাঁরা। 

আজ নিজেদের ষষ্ঠ ম্যাচে আবারও নেতৃত্বে ফিরছেন সোহান। সোহান ফেরার ম্যাচে জয়ে ফিরেছে রংপুরও। মিরপুর শেরেবাংলা ক্রিকেট স্টেডিয়ামে চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্সকে ৫৫ রানে হারিয়েছে রংপুর। ৬ ম্যাচে ৩টি করে জয় ও হারে ৬ পয়েন্ট নিয়ে শেষ চারে জায়গা করার দৌড়ে থাকল তারা। 

টস জিতে চট্টগ্রামের অধিনায়ক শুভাগত হোম রংপুরকে আগে ব্যাটিংয়ের আমন্ত্রণ জানান। মালিকের ফিফটি ও আজমতউল্লাহ ওমরজাইয়ের ঝোড়ো ইনিংসে ৬ উইকেটে ১৭৯ রান সংগ্রহ করে রংপুর। জবাবে ১৬.৩ ওভারে ১২৪ রানে অলআউট হয়ে যায় চট্টগ্রাম। 

১৮০ রানের লক্ষ্যে ব্যাটিংয়ে নেমে ১১ রানেই তিন টপ অর্ডারের উইকেট হারায় চট্টগ্রাম। দুই ওপেনার উসমান খান ও খাজা নাফেকে ড্রেসিংরুমে ফেরান স্পিনার রাকিবুল হাসান। ওয়ানডাউনে নামা তৌফিক খান তুষারকে রানের খাতা খোলার আগেই ফেরান আফগান অলরাউন্ডার আজমতউল্লাহ। 

চতুর্থ উইকেটে শুভাগত ও দারউইশ রাসুলি চট্টগ্রামকে চাপমুক্ত করেন। ৪০ বলে ৬৬ রানের জুটি গড়ে খাদের কিনারা থেকে দলকে জয়ের স্বপ্ন দেখান তাঁরা। রাসুলিকে ফিরিয়ে এ জুটি ভাঙেন রংপুরের পেসার হারিস রউফ। ২১ রান করেছেন আফগান ব্যাটার। এরপরে ৩ ছক্কা ও ১ চারে ২৪ রানের ছোটখাটো ঝোড়ো ইনিংস খেলে আউট হন জিয়াউর রহমান। 

সতীর্থদের আসা-যাওয়ার মাঝে শুভাগত তুলে নেন এই বিপিএলে নিজের প্রথম ফিফটি। ৩১ বলে ৫২ রানের দারুণ এক ইনিংস খেলে হারিস রউফের শিকার হন তিনি। ইনিংসে ছিল ৪টি করে চার-ছয়। 

ফিল্ডিং করলেও ব্যাটিং করেননি চট্টগ্রামের ব্যাটার আফিফ হোসেন। দলীয় সূত্রে জানা গেছে, জ্বরের কারণে তিনি ব্যাটিংয়ে নামেননি। 

রংপুরের হয়ে হারিস রউফ ৩.৩ ওভারে ১৭ রান দিয়ে নিয়েছেন ৩ উইকেট। রাকিবুল ৪ ওভারে ২৪ রান নেন ২ উইকেট। 

এর আগে মালিকের ৪৭ বলে ৭৫ এবং এবং আজমতউল্লাহর ২৪ বলে ৪২ রানের ইনিংসে ১৭৯ রান করে রংপুর। দুজনে চতুর্থ উইকেটে ৫৩ বলে ১০৫ রানে জুটি গড়েন। মালিকের ইনিংসে ছিল ৫টি করে চার-ছয়। আজমতউল্লাহ মেরেছেন ৪টি ছয় ও একটি চার। 

চট্টগ্রামের হয়ে মেহেদী হাসান রানা ৪ ওভারে ৩৯ রান দিয়ে নিয়েছেন ৩ উইকেট। ৩ ওভারে ১৩ রান দিয়ে শুভাগত হোম নেন ২ উইকেট। 

মন্তব্য

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।
Show
 
    সব মন্তব্য

    ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

    এলাকার খবর

     
     

    সিলেটে ‘অশান্ত’ শান্ত, খেসারত দিল চট্টগ্রাম

    তাসকিনকে অনুসরণ করতে বললেন নাসির 

    কাভানিসহ নিষিদ্ধ ৪ উরুগুয়ে ফুটবলার

    শ্বাসরুদ্ধকর ম্যাচে তামিমদের হারালেন লিটনরা

    অস্ট্রেলিয়ান ওপেনের নতুন রানি সাবালেঙ্কা

    সানিয়ার অর্জনে গর্বিত শোয়েব মালিক

    এবং বই-এর পঞ্চম বর্ষপূর্তিতে আনন্দ সম্মিলন

    উপশাখা ব্যবসার উন্নয়নে ইসলামী ব্যাংকের সম্মেলন 

    রেমিট্যান্স গায়েব করেছিলেন তারেকের সাবেক পিএস: সিআইডির দাবি

    সরকারই ভোজ্যতেল ও চিনি আমদানিতে নামছে

    ৮৩ হাজার কর্মী নেবে ইতালি, সুযোগ পাবেন বাংলাদেশিরাও

    বার কাউন্সিল সভায় বাগ্‌বিতণ্ডায় জড়ালেন বিএনপি-আওয়ামীপন্থী আইনজীবীরা