Alexa
বৃহস্পতিবার, ০৯ ফেব্রুয়ারি ২০২৩

সেকশন

epaper
 

গেট আছে, ঘর আছে, নেই শুধু গেটম্যান ১০ বছরেও

আপডেট : ০৭ ডিসেম্বর ২০২২, ১৫:১৯

গেট আছে, ঘর আছে, নেই শুধু গেটম্যান ১০ বছরেও গেট আছে, ঘর আছে, কিন্তু ১০ বছরেও গেটম্যান দেওয়া হয়নি। ফলে প্রতিনিয়তই ঘটছে দুর্ঘটনা। গতকাল মঙ্গলবার আবারও প্রাণ হারায় চারজন। কুমিল্লার মনোহরগঞ্জ উপজেলার খিলার তুঘুরিয়া এলাকার রেলক্রসিংয়ে ট্রেন-অটোরিকশা সংঘর্ষে নিহত হন তাঁরা। স্থানীয়দের অভিযোগ, দিনের পর দিন প্রতিশ্রুতি পেলেও হয়নি কোনো সুরাহা।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, গতকাল সকাল ১০টায় লাকসাম-নোয়াখালী রেললাইনের মনোহরগঞ্জের খিলার তুঘুরিয়া এলাকায় সিএনজিচালিত অটোরিকশা রেল সড়ক পার হওয়ার সময় এ দুর্ঘটনা ঘটে। নোয়াখালী থেকে ছেড়ে আসা ঢাকাগামী নোয়াখালী এক্সপ্রেস সকাল ১০টার দিকে খিলার তুঘুরিয়া এলাকা অতিক্রম করার সময় রেলক্রসিংয়ে ট্রেনের ধাক্কায় অটোরিকশাটি দুমড়েমুচড়ে পার্শ্ববর্তী খাদে গিয়ে পড়ে। এতে ট্রেনে কাটা পড়ে ঘটনাস্থলেই তিনজন নিহত হন। আহত অবস্থায় হাতপাতালে নেওয়ার পর চালকও নিহত হন।

উপজেলার উত্তর হাওলা ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান এম এ হান্নান নিহতের বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, নিহতদের মধ্যে মাকছুদুর রহমান (৬৫), হাবিবুর রহমান (৩০), অটোরিকশাচালক হাবিব মিয়া (২৫) মনোহরগঞ্জের উত্তর হাওলা গ্রামের বাসিন্দা। এ ছাড়া মহিফুল বেগম (৩১) নাঙ্গলকোটের শাকতলা গ্রামের আফজালুর রহমানের স্ত্রী।

লাকসাম রেলওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জসিম উদ্দিন বলেন, ট্রেন-অটোরিকশা সংঘর্ষে তিনজন নিহত হয়েছেন। পরে হাসপাতালে আরেকজন নিহত হন। নিহতদের উদ্ধার করে স্বজনদের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

রেলক্রসিংয়ের বিষয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করে খিলার তুঘুরিয়া এলাকায় বাসিন্দা শাহাজান মিয়া বলেন, এখানে রেলক্রসিংয়ে গেট ও ঘর হয়েছে ১০ বছরের বেশি হয়েছে। রেল কর্মকর্তারা ও স্থানীয় জনপ্রতিনিধিরা কোনো দুর্ঘটনা হলে ঘটনাস্থলে আসেন, গেটম্যান দেওয়ার আশ্বাস দেন, পরে তা আর বাস্তবায়িত হয় না। ফলে প্রতিনিয়ত ছোট-বড় দুর্ঘটনা ঘটছেই।

আরেক বাসিন্দা আক্তার হোসেন বলেন, তিন উপজেলার বাসিন্দারা এ সড়ক দিয়ে বেশি চলাচল করে। গুরুত্বপূর্ণ একটি সড়কে সবকিছু থাকার পরও একজন গেটম্যান দেওয়া হয় না। গেটম্যানের জন্য করা ঘরে মাদকসেবীরা দিনরাত মাদক সেবন করেন।

উত্তর হাওলা ইউপি চেয়ারম্যান এম এ হান্নান বলেন, ‘এ রেলক্রসিংয়ে আগেও অনেক দুর্ঘটনা ঘটেছে। অনেক লোক মারা গেছেন। আজকেও (মঙ্গলবার) চারজন মারা গেছেন। এ বিষয়ে রেল কর্তৃপক্ষকে অনেকবার বলেছি। তারা গেট ও ঘর করে লোকবল নিয়োগ দিচ্ছে না। এ বিষয়ে দ্রুত প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়ার দাবি জানাচ্ছি।’

মনোহরগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) সাইফুল ইসলাম কমল বলেন, খিলার তুঘুরিয়া এলাকায় রেলক্রসিংয়ে চারজন নিহত হয়েছেন। এ ক্রসিংয়ে গেটম্যান না থাকার কারণে প্রায় সময় দুর্ঘটনা ঘটে বলে জেনেছেন। প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে বিষয়টি তাঁরা কর্তৃপক্ষকে জানাবেন।

রেলওয়ে পূর্বাঞ্চলের বিভাগীয় ব্যবস্থাপক জাহাঙ্গীর হোসেন বলেন, এ রেলক্রসিং অননুমোদিত। তা ছাড়া তাঁদের লোকবলসংকটের কারণে অনেক জায়গায় গেটম্যান দিতে পারছেন না। লোকবল নিয়োগ হলে এ সমস্যা থাকবে না। তা ছাড়া গতকাল দুর্ঘটনার বিষয়ে বিভাগীয় পরিবহন কর্মকর্তাকে আহ্বায়ক করে চার সদস্যবিশিষ্ট তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। 

মন্তব্য

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।
Show
 
    সব মন্তব্য

    ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

    এলাকার খবর

     
     

    উদ্যোগ ব্যক্তির, সুফল সবার

    কান্না থামেনি সেই মায়ের

    বালু তোলায় তীরে ভাঙন নদীতে যাচ্ছে ফসলি জমি

    প্রচার ও দক্ষতার অভাবে বাড়ছে না প্রবাসী শ্রমিক

    আজকের রাশিফল

    রাষ্ট্র ও রাষ্ট্রভাষা

    ঢাকায় বিএনপির পদযাত্রা স্থগিত

    ছাত্রলীগ নেতার বিরুদ্ধে অন্তঃসত্ত্বা ‘প্রেমিকার’ ধর্ষণ মামলা

    রিংকুসহ ২২ বাংলাদেশিকে আঙ্কারায় আনা হচ্ছে: কনসাল জেনারেল

    পা দিয়ে লিখে এইচএসসি পাস, হতে চান বিসিএস কর্মকর্তা

    ভূমিকম্প: তুরস্কে তীব্র ঠান্ডায় উদ্ধার ব্যাহত, বাড়ছে ক্ষোভ

    না.গঞ্জে রেস্তোরাঁয় ঢুকে গুলির ঘটনায় মালিকদের বিক্ষোভ