Alexa
শনিবার, ২৮ জানুয়ারি ২০২৩

সেকশন

epaper
 

সাম্বার তালে ব্রাজিল নাচে

ফুটবল বিশ্বকাপ

নেইমার ফিরতেই শৈল্পিক ব্রাজিল

আপডেট : ০৭ ডিসেম্বর ২০২২, ১১:৪৯

বিশ্বকাপ ইতিহাসে অনেকবার ব্রাজিলের সাম্বা দেখেছেন ফুটবল রোমান্টিকরা। গত পরশু আরেকবার সেটি যেন ফিরে এল নেইমার-ভিনিসিয়ুস-রাফিনহা-পাকেতাদের সৌজন্যে। কাতার বিশ্বকাপের শেষ ষোলোয় দক্ষিণ কোরিয়ার বিপক্ষে ব্রাজিলিয়ানরা প্রতিটি গোল উদ্‌যাপন করেছেন সাম্বার তালে তালে। ছবি: এএফপি বিশ্বকাপে ব্রাজিল দলে ফিট নেইমারকে কতটা প্রয়োজন, সেটা আর বলার অপেক্ষা রাখে না। শেষ ষোলোয় নেইমারের ফেরার ম্যাচে দক্ষিণ কোরিয়াকে ৪-১ গোলে গুঁড়িয়ে দিয়েছে সেলেসাওরা। স্কোরলাইনের চেয়ে বড় কথা, এই ম্যাচে খুঁজে পাওয়া গেছে ব্রাজিল ফুটবলের ঐতিহ্য ‘জোগো বোনিতো’ কিংবা পেলের ‘জিঙ্গা।’ আর তাতে সামনে থেকে নেতৃত্ব দিয়েছেন নেইমার। তিনি ফিরতেই সাম্বার তালে নাচছে শৈল্পিক ব্রাজিল।

সার্বিয়ার বিপক্ষে গোড়ালির চোটে ম্যাচের ৭৯ মিনিটে মাঠ ছাড়েন নেইমার। পিএসজি স্ট্রাইকারকে ছাড়াই গ্রুপ পর্বে সুইজারল্যান্ড ও ক্যামেরুনের বিপক্ষে খেলে ব্রাজিল।

এক ম্যাচে জয় আর একটি পরাজয়ের পর নেইমারের অনুপস্থিতি বেশি করে অনুভব করেছেন ব্রাজিল-সমর্থকেরা।

প্রাণভোমরা নেইমার ফিরতেই সেই প্রাণবন্ত ব্রাজিল। দক্ষিণ কোরিয়ার বিপক্ষে পেনাল্টি থেকে একটি গোল করলেন এবং ভিনিসিয়ুস জুনিয়রকে দিয়ে করিয়েছেন একটি গোলটি। শুধু মাঠের পারফরম্যান্সেই নয়, নেইমার যে পুরো দলকে উজ্জীবিত রাখছেন, তাঁর প্রতিটি কার্যক্রমেই পরিষ্কার। সতীর্থদের নিয়ে নাচছেন, হাসছেন। এমনকি গোল করে ছুটে যাচ্ছেন চোটে পড়ে ডাগআউটের বাইরে থাকা সতীর্থ অ্যালেক্স তেলেসের কাছে। দক্ষিণ কোরিয়ার বিপক্ষে জয়ের পর নিজেই উদ্যোগী হয়ে ব্যানার নিয়ে মাঠে নেমেছেন, শ্রদ্ধা-ভালোবাসায় কিংবদন্তি পেলেকেও যেন নিয়ে এসেছেন স্টেডিয়ামে।

নিজের নিয়মিত পজিশন ছেড়ে প্লে মেকার হিসেবে বিশ্বকাপে খেলছেন নেইমার। দলে তিতে পেয়েছেন বাড়তি একজন ফরোয়ার্ড। তিন ফরোয়ার্ডের সঙ্গে নেইমার—ব্রাজিলের আক্রমণের ধার এখানেই। অথচ এই নেইমারের কী দুঃসহ সময় গেল কটা দিন। সার্বিয়ার বিপক্ষে চোট পেয়ে সারা রাত কেঁদেছিলেন, সে কথাই তিনি বললেন কোরিয়া ম্যাচের পর, ‘নিশ্চিতভাবেই সে সময় (চোটের সময়) অনেক ভয়ে ছিলাম। ভালো খেলছিলাম, খুব ভালো একটি মৌসুম কাটছিল। এ সময় চোট মেনে নেওয়া খুব কঠিন। সারা রাত প্রচুর কেঁদেছি।’

দ্রুত চোট কাটিয়ে ফিরতে অনেক কিছুই করতে হয়েছে নেইমারকে। নাসার প্রযুক্তি ব্যবহার করে তৈরি বুট, ফিজিক্যাল থেরাপি, সুইমিং পুলের ঠান্ডা পানিতে জগিং, জিমে এবং মাঠে তাকে নানা ধরনের অনুশীলনের মধ্য দিয়ে যেতে হয়েছে। এর মধ্যে নেইমার ভাইরাসজনিত জ্বরেও আক্রান্ত হয়েছিলেন।

ছবি: এএফপি সব বাধা ড্রিবলিং করে নেইমার ফিরেছেন। ফিরেই করেছেন গোল। ব্রাজিলের হয়ে নেইমারের গোলসংখ্যা এখন ৭৬। আরেকটি গোল করলে ব্রাজিলের সর্বোচ্চ গোলদাতা পেলেকে স্পর্শ করবেন এই ফরোয়ার্ড। বিশ্বকাপে হলো তাঁর ৭ গোল।

আগামী শুক্রবার বিশ্বকাপের কোয়ার্টার ফাইনালে ব্রাজিলের প্রতিপক্ষ ক্রোয়েশিয়া। ফিট নেইমারের পুরো মনোযোগ শিরোপা জয়ের দিকে। বিশ্বকাপ শুরু আগে থেকেই ব্রাজিল খেলোয়াড়দের কণ্ঠে ‘হেক্সা’ (ষষ্ঠ শিরোপা) মিশন। কোরিয়ার বিপক্ষে জয়ের পর সেটি আরেকবার মনে করিয়ে দিলেন নেইমার, ‘আমরা অবশ্যই শিরোপার স্বপ্ন দেখছি। আর তিনটা ম্যাচ বাকি। আমরা শিরোপা জিততে খুবই মনোযোগী।’

নেইমার ফেরায় বদলে গিয়েছে তিতের আক্রমণভাগের শক্তি। তাঁর কণ্ঠে স্বাভাবিকভাবেই নেইমার-বন্দনা, ‘সে একজন টেকনিক্যাল খেলোয়াড় এবং নেতৃত্বের উদাহরণ। যখন একটি দল বল নিয়ে খেলোয়াড়ের খোঁজ করে, তখন তারা জানে, মাঠে তাদের কাছে একটি অস্ত্র আছে। যে পার্থক্য গড়ে দিতে পারে। নেইমারই আমাদের দলের কেন্দ্রে।’

মন্তব্য

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।
Show
 
    সব মন্তব্য

    ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

    এলাকার খবর

     
     

    ইসির সেই জয়নাল এখনো তৎপর

    কে হচ্ছেন নতুন রানি

    গোলরক্ষক বাবার স্ট্রাইকার ছেলে

    ফকিরাপুলের হোটেলগুলো ‘আদমের হাট’

    সায়েদ আলীর পরম মমতা

    শাহরুখ ফিরলেন রাজার মতোই

    মানসিক চাপ ডিম্বাণুর প্রস্ফুটন দাবিয়ে রাখে

    ‘বৌদ্ধ সন্ত্রাসের মুখ’: মিয়ানমারের ভিক্ষু উইরাথু ফের আলোচনায়