Alexa
রোববার, ২৯ জানুয়ারি ২০২৩

সেকশন

epaper
 

আমাদের শক্তি জনগণ, পেটোয়া বাহিনী লাগে না: শেখ হাসিনা 

আপডেট : ০৬ ডিসেম্বর ২০২২, ১৪:৫২

আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ছবি: পিআইডি  আওয়ামী লীগের সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, ‘আমাদের শক্তি জনগণ। আমাদের পেটোয়া বাহিনী লাগে না। ছাত্ররা শিক্ষা গ্রহণ করে উপযুক্ত নাগরিক হবে। ভবিষ্যতে দেশের দায়িত্বভার নেবে। দেশকে এগিয়ে নিয়ে যাবে।’ 

আজ মঙ্গলবার রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে ছাত্রলীগের ৩০তম জাতীয় সম্মেলনে তিনি এ কথা বলেন। 

শেখ হাসিনা বলেন, ‘বিএনপির কাজই হচ্ছে শিক্ষার পরিবেশ নষ্ট করা। নতুন-পুরোনো ছাত্রলীগের যে নেতা-কর্মীরা আছেন, তাঁদের নিশ্চয়ই মনে আছে, খালেদা জিয়া হুমকি দিয়েছিল, আওয়ামী লীগকে শিক্ষা দিতে ছাত্রদলই যথেষ্ট। ছাত্রদের হাতে অস্ত্র তুলে দিয়েছিল। এর বিপরীতে ছাত্রদের হাতে বই, খাতা, কলম তুলে দিয়েছিলাম।’ 

শেখ হাসিনা আরও বলেন, ‘শিক্ষার্থীদের হাতে কাগজ-কলম তুলে দিয়ে বলেছিলাম, তোমরা শিক্ষা শুধু নিজেরাই গ্রহণ করবে না, ছুটিতে যখন বাড়িতে যাবে, তখন কোনো মানুষ যদি নিরক্ষর থাকে, তাঁদের সাক্ষরজ্ঞান দেবে। ছাত্রলীগ সেটা করেছে। আমরা সব সময় দেশে শান্তিপূর্ণ পরিবেশ চাই। দেশের মানুষের যতটুকু অর্জন, সেটা হচ্ছে আওয়ামী লীগ, ছাত্রলীগসহ গণতান্ত্রিক পার্টির অর্জন।’ 

দীর্ঘ সাড়ে চার বছর পর ছাত্রলীগের সম্মেলন অনুষ্ঠিত হচ্ছে। ছবি: আলী হোসেন মিন্টু বিএনপি ক্ষমতায় এলেই আওয়ামী লীগের নেতা-কর্মীদের ওপর অত্যাচার ও নির্যাতন চালায় উল্লেখ করে শেখ হাসিনা বলেন, ‘শুধু ক্ষমতায় থাকলে না, ক্ষমতার বাইরে থাকলেও তাঁদের অগ্নি সন্ত্রাস ও অত্যাচার-নির্যাতনের কথা সবার জানা। ২০১৩ সালে আন্দোলনের নামে অগ্নিসন্ত্রাস করে প্রায় ৩ হাজার মানুষকে তারা অগ্নিদগ্ধ করে।’ 

করোনার সময় যখন বাবা-মা লাশ ফেলে চলে যেত, তখন ছাত্রলীগের ছেলেরা তাদের পাশে ছিল মন্তব্য করে আওয়ামী লীগের সভাপতি বলেন, ‘শুধু ছাত্রলীগ না, আমাদের দল, পুলিশ-প্রশাসন মাঠে ছিল। কিন্তু রাজনৈতিক দল হিসেবে ছাত্রলীগই করোনায় আক্রান্তদের পাশে দাঁড়িয়েছে। কাফন-দাফন, চিকিৎসার ব্যবস্থা, তাদের নিয়ে যাওয়া, অক্সিজেনের ব্যবস্থা করা—এটাই হলো মানবতার কাজ। ছাত্রলীগ জাতির পিতার হাতে গড়া সংগঠন, কাজেই ঠিকই তারা মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছে।’ 

দুঃসময়ে মানুষের পাশে থাকার জন্য ছাত্রলীগকে ধন্যবাদ ও অভিবাদন জানান শেখ হাসিনা। 

শেখ হাসিনা বলেন, ‘সিলেটে এমন এমন জায়গায় বন্যা হলো, মানুষ যেখানে গিয়ে কাউকে উদ্ধার করতে পারে না, আগে রাস্তাঘাট ছিল না, তখন সবার বাড়ির সামনে নৌকা ছিল। এখন আমরা এত উন্নয়ন করেছি, রাস্তাঘাট করেছি, এখন বাড়ির সামনে নৌকা রাখার প্রয়োজন নেই। আমি আমাদের নৌবাহিনী, সেনাবাহিনীর, কোস্টগার্ড ও প্রশাসনকে লাগিয়েছি, ছাত্রলীগকে নির্দেশনা দিয়েছি। আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, কৃষক লীগ, মহিলা আওয়ামী লীগসহ সবাই বন্যার সময় অগ্রণী ভূমিকা রেখেছে।’ 

এর আগে সকালে জাতীয় পতাকা, ছাত্রলীগের পতাকা উত্তোলন ও জাতীয় সংগীতের মাধ্যমে সম্মেলনের উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের সভাপতি শেখ হাসিনা।

আরো পড়ুন: 

মন্তব্য

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।
Show
 
    সব মন্তব্য

    ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

    এলাকার খবর

     
     

    রাজশাহীর জনসভা থেকে নৌকায় ভোট চাইবেন প্রধানমন্ত্রী: ওবায়দুল কাদের

    দেশের ৯৯ শতাংশ মানুষ আওয়ামী লীগের বিদায় চায়, দাবি ফখরুলের

    বিএনপি-জামায়াত অশুভ শক্তি, নির্বাচন চায় না: হানিফ

    বিএনপির এটা পদযাত্রা নয়, মরণযাত্রা: ওবায়দুল কাদের

    রাজধানীতে বিএনপির পদযাত্রা শুরু

    বিএনপির সঙ্গে আমরা খেলেই জিততে চাই: তথ্যমন্ত্রী

    পেদ্রিকে ‘পার্থক্য গড়া’ ফুটবলার বললেন জাভি 

    রুশ নিয়ন্ত্রিত অঞ্চলের হাসপাতালে ইউক্রেনের হামলা, নিহত ১৪ 

    গাজীপুরে পোশাককর্মীকে গলা কেটে হত্যা, স্বামী পলাতক

    অস্ট্রেলিয়ার বিস্ময়কর গোলাপি হ্রদ

    রায়পুরায় পিকআপ ভ্যান ও অটোরিকশার মুখোমুখি সংঘর্ষ, নিহত ১ 

    ভোটের মাঠে

    নৌকার দুর্গে নীরব বিএনপি