Alexa
শুক্রবার, ২৭ জানুয়ারি ২০২৩

সেকশন

epaper
 

১ লাখ মামলায় ৪০ লাখ কর্মীকে আসামি, প্রধান বিচারপতির কাছে বিএনপিপন্থী আইনজীবীদের অভিযোগ

আপডেট : ০৭ ডিসেম্বর ২০২২, ১৬:২১

১ লাখ মামলায় ৪০ লাখ কর্মীকে আসামি, প্রধান বিচারপতির কাছে বিএনপিপন্থী আইনজীবীদের অভিযোগ সারা দেশে বিরোধী নেতা-কর্মীদের রাজনৈতিক মিথ্যা মামলায় জড়িয়ে হয়রানি করা হচ্ছে বলে অভিযোগ করেছে জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরাম। 

আজ সোমবার প্রধান বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকীর সঙ্গে সাক্ষাৎ করে এ বিষয়ে লিখিত অভিযোগ দেন তাঁরা। সংগঠনটির সভাপতি ও সাবেক অ্যাটর্নি জেনারেল এ জে মোহাম্মাদ আলী ছাড়াও সুপ্রিম কোর্ট বারের সাবেক সভাপতি জয়নুল আবেদীন, সংগঠনের মহাসচিব ব্যারিস্টার কায়সার কামাল, সুপ্রিম কোর্ট বারের সাবেক সম্পাদক বদরুদ্দোজা বাদল ও ব্যারিস্টার রুহুল কুদ্দুস কাজল এ সময় উপস্থিত ছিলেন। পরে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেন এ জে মোহাম্মাদ আলী। 

লিখিত অভিযোগে বলা হয়, এরই মধ্যে সারা দেশে প্রায় ৪০ লাখ বিরোধী কর্মীকে প্রায় ১ লাখ রাজনৈতিক মামলায় জড়ানো হয়েছে। এ ধরনের রাজনৈতিক মামলা রাজনৈতিক নিপীড়নের উৎকৃষ্ট উদাহরণ ছাড়া আর কিছুই নয়। রাজনৈতিক বিরোধীদের নিপীড়ন ও বিচার করার জন্য আইন প্রয়োগকারী সংস্থার দ্বারা বিচারব্যবস্থার এ ধরনের উদ্বেগজনক ব্যবহার, সংবিধানের মৌলিক অধিকারের লঙ্ঘন। 

প্রধান বিচারপতির কাছে দেওয়া লিখিত চিঠিতে বলা হয়, চলতি বছরের অক্টোবরে একটি বিদেশি সংস্থার মতে বাংলাদেশের বিচার বিভাগ ১২৭তম স্থান পেয়েছে। ২০২১ সালের প্রতিবেদনে ১৩৯টি দেশের মধ্যে বাংলাদেশ ছিল ১২৪তম স্থানে। 

এ ছাড়া ইউএসএআইডির বরাত দিয়ে বলা হয়, চলতি বছরের মার্চে তাদের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে—২০০৭ সালে শুরু হওয়া ক্ষমতার নতুন রূপের অবাস্তব সংস্কার, বিচার বিভাগের ওপর নির্বাহী বিভাগের নিয়ন্ত্রণ, উচ্চ আদালত ও অধস্তন আদালতে বিচারক নিয়োগে ক্রমবর্ধমান রাজনীতিকরণ বিচার বিভাগের স্বাধীনতা ও জবাবদিহিকে আরও খর্ব করেছে। এর ফলে বিচার বিভাগের প্রতি জনগণের আস্থা কমে গেছে। 

ওই লিখিত চিঠিতে বলা হয়, দেশের সচেতন নাগরিকদের সংগঠন হিসেবে জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরাম এসব ঘটনা উদ্বেগজনক বলে মনে করে। আন্তর্জাতিক সংস্থাগুলোর এই ধরনের অনুসন্ধান জনগণের মনে একটি যুক্তিসংগত আশঙ্কা তৈরি করেছে যে, সরকার চলমান গণতান্ত্রিক আন্দোলনকে দমন করার জন্য বিচার ব্যবস্থাকে প্রভাবিত করছে। 

প্রধান বিচারপতির কাছে বেশ কয়েকটি দাবিও তুলে ধরেছে জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরাম। এর মধ্যে রয়েছে—বিচার ব্যবস্থার প্রতি জনসাধারণের উপলব্ধি, বিশ্বাস ও আস্থা পুনরুদ্ধারের জন্য পদক্ষেপ গ্রহণ করা। ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের অধীনেসহ রাজনৈতিক মামলার এমনভাবে বিচার করা, যাতে বিচার বিভাগের ওপর জনগণের আস্থা ফিরে আসে। আন্তর্জাতিক সংস্থাগুলোর প্রকাশিত প্রতিবেদনগুলো আমলে নিয়ে বিচার বিভাগের ভাবমূর্তি পুনরুদ্ধারের জন্য যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ করা দরকার। 

মন্তব্য

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।
Show
 
    সব মন্তব্য

    ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

    পঠিতসর্বশেষ

    এলাকার খবর

     
     

    বিভাগীয় শহরে সমাবেশের আগে রাজধানীতে পদযাত্রা করবে বিএনপি

    ৪ ফেব্রুয়ারি বিভাগীয় শহরে সমাবেশের ঘোষণা বিএনপির

    খেলা তো এখনো শুরু করেনি: কাদের

    দানবীয় সরকারকে পরাজিত করে দেশে গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠা করব: মির্জা ফখরুল 

    ‘নির্বাচন এলেই বিএনপি-জামায়াত ও অতি বাম, অতি ডান সক্রিয় হয়ে ওঠে’

    সংসদ হচ্ছে ক্লাব অব আওয়ামী লীগ: মির্জা ফখরুল 

    মানব পাচার বেশি ভারত সীমান্তবর্তী এলাকায়: জাতিসংঘ

    গ্রামীণ পিঠা যান্ত্রিক শহরে

    তরুণীকে কুপ্রস্তাব: সেই প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তাকে বদলি

    ক্ষমতার অপপ্রয়োগ যেন না হয়: ডিসিদের প্রতি রাষ্ট্রপতির নির্দেশ

    ঢাকায় কসক্যাপের সভা অনুষ্ঠিত, আঞ্চলিক সহযোগিতা বৃদ্ধির আশা

    উপাচার্যের আশ্বাসে স্থগিত মৈত্রী হল প্রাধ্যক্ষের পদত্যাগের আন্দোলন