Alexa
শনিবার, ২৮ জানুয়ারি ২০২৩

সেকশন

epaper
 

উত্তরায় পুলিশ হেফাজতে এক ব্যক্তির মৃত্যুর অভিযোগ

আপডেট : ৩০ নভেম্বর ২০২২, ২৩:৫৮

হিরণের মরদেহ তোলা হচ্ছে পুলিশ ভ্যানে। ছবি: আজকের পত্রিকা রাজধানীর উত্তরা পূর্ব থানা-পুলিশ হাজতে হিরণ মিয়া (৫০) নামের এক আসামীর মারা গেছেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। আজ বুধবার বিকেল ৫টা ১০ মিনিটে থানা হাজতে ওই ব্যক্তি অসুস্থ হয়ে পড়েন। তাঁকে কুয়েত বাংলাদেশ মৈত্রী সরকারি হাসপাতালে নিলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

নিহত হিরণ মিয়া রাজধানীর খিলক্ষেতে নামাপাড়া এলাকার দর্জি বাড়ির ইসমাঈল দর্জির ছেলে। হিরণ নিকুঞ্জের ৫ নম্বর সড়কের তার বড় ভাইয়ের স্যামসাং শোরুমের ম্যানেজার হিসাবে কর্মরত ছিলেন।

হিরণের স্ত্রী আকলিমা আক্তার আজকের পত্রিকাকে বলেন, ‘রাজউক অফিসে দুপুর ২টার দিকে অনেক মারামারি হয়েছে বলে শুনছি। পরে পুলিশ তাঁকে ধরে নিয়ে থানায় গেছে। তারপর বিকেল ৫টার দিকে খবর পাই। খবর পেয়ে হাসপাতালে এসে দেখি হিরণ আর নাই।’

হিরণের স্বজনেরা অভিযোগ করে বলেন, ‘হিরণ উত্তরা ৬ নম্বর সেক্টরের রাজউক অফিসে প্লান পাস করতে গিয়েছিল। পরে সেখানে কিছু লোক তাঁকে মারধর করে আটকে রাখে। তারপর ৯৯৯ এ ফোন দিয়ে হিরণকে পুলিশে দেয়।’

এ বিষয়ে উত্তরা পূর্ব থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম আজকের পত্রিকাকে বলেন, ‘মারামারির ঘটনায় হিরণকে সাড়ে ৪টার দিকে আটক করে থানার হাজতে রাখা হয়েছে। আমিনুল ইসলাম নামে একজন তাঁর (হিরণ) বিরুদ্ধে একটি মারামারি মামলার জন্য অভিযোগ দিচ্ছিলেন। এরমধ্যে হিরণ হাসতে হাসতে অসুস্থ হয়ে যান। পরে তাঁকে দ্রুত উদ্ধার করে বাংলাদেশ মৈত্রী সরকারী হাসপাতালে নিলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।’

ওসি বলেন, ‘আমরা খোঁজ নিয়ে জানতে পেরেছি হিরণের পরিবারের পাঁচজন এমন হঠাৎ করে মারা গেছে।’

অপরদিকে বিমানবন্দর জোনের সহকারী পুলিশ কমিশনার (এসি) মো. সাইফুল ইসলাম সাইফ আজকের পত্রিকাকে বলেন, ‘উত্তরা পূর্ব থানায় জাতীয় জরুরী সেবা ৯৯৯ থেকে একটি কল আসে। তখন আমরা জানতে পারি, রাজউক অফিসে দুই গ্রুপের মধ্যে মারামারি হচ্ছে। পরে হিরণকে পুলিশ আটক করে থানায় নিয়ে আসে। সেই সঙ্গে আমিনুল নামের এক ব্যক্তি তার বিরুদ্ধে অভিযোগ দেন। যার কারণে হিরণকে হাজতে রাখা হয়েছিল। পরে হটাৎ করে অসুস্থ হয়ে হিরণ মারা যান।’

এসি সাইফ বলেন, ‘জানা গেছে, আরাফাত নামের একজন হিরণকে ফোন করে রাজউক অফিসে নিয়ে এসেছিল। আরাফাতের সঙ্গে আমিনুলের মনমালিন্য হয়েছিল তাই। পরে আরাফাত ঘটনাস্থল থেকে পালিয়ে গেছে।’

উত্তরা বিভাগের উপ-পুলিশ কমিশনার (ডিসি) মোহাম্মদ মোর্শেদ আলম আজকের পত্রিকাকে বলেন, ‘নিহতের মরদেহ একজন ম্যাজিস্ট্রেটের উপস্থিতিতে সুরতাল করা হবে। পরে ময়নাতদন্তের জন্য শহীদ সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হবে। এ ঘটনায় একটি অপমৃত্যু মামলা করা হবে।’

মন্তব্য

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।
Show
 
    সব মন্তব্য

    ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

    এলাকার খবর

     
     

    বাড়ি থেকে বের হওয়ার পরদিন মিলল বৃদ্ধের গলাকাটা লাশ

    দুই দিন পর আখাউড়া স্থলবন্দর দিয়ে আবার আমদানি-রপ্তানি শুরু

    ঝালকাঠিতে কাভার্ড ভ্যানের চাপায় ২ মোটরসাইকেল আরোহী নিহত

    ময়মনসিংহে ছাত্রলীগ-যুবলীগের গোলাগুলি, গুলিবিদ্ধ ২

    তেজগাঁওয়ে সড়কে ফেলে রাখা নারীর স্বজনদের খোঁজ মেলেনি

    ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রীর বাসায় তাবলিগের দুই পক্ষের বৈঠক

    অসাবধানতায় বাড়ে স্ট্রোকের ঝুঁকি

    বাড়ি থেকে বের হওয়ার পরদিন মিলল বৃদ্ধের গলাকাটা লাশ

    ডাচ ডিফেন্ডারের গোলেই ম্যাচ হেরেছে আর্সেনাল

    মানসিক চাপ ডিম্বাণুর প্রস্ফুটন দাবিয়ে রাখে

    ‘বৌদ্ধ সন্ত্রাসের মুখ’: মিয়ানমারের ভিক্ষু উইরাথু ফের আলোচনায়