Alexa
রোববার, ০৫ ফেব্রুয়ারি ২০২৩

সেকশন

epaper
 

ভারতে ধর্মীয় ইস্যুতে ক্লাসে শিক্ষক–ছাত্রের তর্কের ভিডিও ভাইরাল

আপডেট : ২৯ নভেম্বর ২০২২, ১৮:৩১

ছাত্রকে সন্ত্রাসীর নামে ডাকা নিয়ে উত্তপ্ত শ্রেণিকক্ষ। ছবি: টুইটার ভারতের কর্ণাটক রাজ্যের একটি কলেজে ক্লাস চলাকালীন শিক্ষক ও এক ছাত্রের মধ্যকার তুমুল তর্ক–বিতর্ক সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে।

এনডিটিভির প্রতিবেদন থেকে জানা যায়, গত সপ্তাহে ক্লাসে একজন মুসলিম ছাত্রকে ‘সন্ত্রাসী’–এর সঙ্গে তুলনা করেন ওই শিক্ষক। এরপরই মূলত তর্ক শুরু হয়। এ ঘটনায় ওই শিক্ষককে সাময়িক বরখাস্ত করেছে কর্তৃপক্ষ। তদন্তে একটি কমিটিও গঠন করা হয়েছে। 

গত শুক্রবার ঘটনাটি ঘটেছে রাজ্যের উদিপির মনিপাল ইনস্টিটিউট অব টেকনোলজিতে। শিক্ষক ওই ছাত্রটির নাম জিজ্ঞেস করেন। মুসলিম নাম শুনেই তিনি বলেন, ‘ওহ, তুমি কাসাবের মতো!’ এই ‘কাসাব’ হচ্ছে ‘আজমল কাসাব’, ২০০৮ সালের ২৬ নভেম্বর মুম্বাই হামলার পরে একমাত্র জীবিত বন্দী। পাকিস্তানি এ সন্ত্রাসবাদীকে ২০১২ সালে ফাঁসিতে ঝুলিয়ে মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করা হয়।

সামাজিক মাধ্যমে ব্যাপকভাবে শেয়ার হওয়া ভিডিওতে দেখা যায়, ছাত্রটি অধ্যাপকের মুখোমুখি হয়ে তর্ক করছেন। একজন সন্ত্রাসীর সঙ্গে তুলনা করে তাঁর ধর্মকে অবমাননা করা হয়েছে বলে অভিযোগ করেন ওই ছাত্র।

ভিডিওতে ছাত্রটিকে বলতে শোনা যায়, ‘২৬ / ১১ কোনো হাস্যকর ঘটনা নয়। এই দেশে মুসলমান হওয়া এবং প্রতিদিন এই সবের মুখোমুখি হওয়াটা মজার ব্যাপার নয়, স্যার! আপনি আমার ধর্ম নিয়ে তামাশা করতে পারেন না, তাও এমন অবমাননাকরভাবে। এটা মজার কিছু নয় স্যার, এটা ওরকম নয়!’

তখন শিক্ষক ‘তুমি আমার ছেলের মতো...’, এই বলে ছাত্রটিকে শান্ত করার চেষ্টা করেন। প্রতিউত্তরে ছাত্রটি বলেন, ‘আপনি কি আপনার ছেলের সঙ্গে এভাবে কথা বলবেন? তাকে সন্ত্রাসীর নামে ডাকবেন?’ 

যখন শিক্ষক প্রতিউত্তরে ‘না’ বলেন, তখন ছাত্রটি বলেন, ‘তাহলে এত লোকের সামনে আপনি কীভাবে আমাকে এভাবে ডাকতে পারেন? আপনি একজন পেশাদার, আপনি শিক্ষকতা করছেন। দুঃখিত, আপনি কীভাবে চিন্তা করেন বা কীভাবে চিত্রিত করেন তা এই পরিস্থিতি বদলাচ্ছে না।’ 

শিক্ষককে তখন নম্র হয়ে ক্ষমা চাইতে শোনা যায়। ছাত্র–শিক্ষকের মধ্যে তখন এভাবে উত্তপ্ত বাক্য বিনিময় চলছিল তখন অন্য শিক্ষার্থীদের নীরব দর্শক হিসেবে দেখা যায়। 

ভিডিওটি ভাইরাল হওয়ার পর প্রতিষ্ঠানটি ওই শিক্ষককে সাময়িক বরখাস্ত করে তদন্তের নির্দেশ দিয়েছে। ওই ছাত্রকে কাউন্সেলিংও দেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছে প্রতিষ্ঠানটি। 

এদিকে এ ঘটনা নিয়ে আরেক বিতর্ক উসকে দিয়েছেন বিজেপি শাসিত রাজ্যের শিক্ষামন্ত্রী বিসি নাগেশ। তিনি বলেছেন এটি ‘বড় কোনো সমস্যা নয়’। মন্ত্রী নাগেশ সাংবাদিকদের বলেন, ‘প্রায় সবাই “রাবণ” বা “শকুনি”-এর মতো শব্দ ব্যবহার করে। এমনকি অ্যাসেম্বলিতেও আমরা অনেকবার এই ধরনের কথা বলেছি। এটা কোনো ইস্যু হয়ে ওঠেনি। 

মন্ত্রী আরও বলেন, ‘কেউ কাসাবের কথা বললে এটা একটা ইস্যু হয়ে দাঁড়ায় কেন?’

মন্তব্য

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।
Show
 
    সব মন্তব্য

    ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

    এলাকার খবর

     
     

    ৩ মাসের শিশুকে ৫১ বার গরম রডের সেঁক, অবশেষে মৃত্যু 

    বাল্যবিবাহের অভিযোগে আসামে ১৮০০ পুরুষ গ্রেপ্তার

    আদানির শেয়ার ডুবছে, লোকসভায় তোলপাড়ও চলছে  

    আদানির সঙ্গে বাংলাদেশের চুক্তি সংশোধন প্রশ্নে ভারত বলল— সরকার জড়িত নয়

    আদানি হারালেন ১০ হাজার কোটি ডলার, তৃতীয় শীর্ষ ধনী এখন ১৬তম

    ইন্দিরা ও রাজীব গান্ধী হত্যাকাণ্ডকে ‘দুর্ঘটনা’ বললেন বিজেপি মন্ত্রী

    ৫ ইউনিটের চেষ্টায় পাহাড়তলী বাজারের আগুন নিয়ন্ত্রণে

    ‘তুর কলিজায় এতবল আসে কোত্থেকে, সামনাসামনি আয়’

    শিবগঞ্জে ট্রাক-প্রাইভেট কারের মুখোমুখি সংঘর্ষ, ভাই-বোন নিহত

    ‘হিরোকে যারা জিরো বানাতে এসেছে, তারাই জিরো হয়েছে’

    আঙিনায় জোড়া বাঘ, বনরক্ষীদের শ্বাসরুদ্ধকর ২০ ঘণ্টা

    আগারগাঁওয়ের চাপ কমাতে ঢাকায় পাসপোর্ট অফিসের সীমানা পুনর্নির্ধারণ