Alexa
শুক্রবার, ২৭ জানুয়ারি ২০২৩

সেকশন

epaper
 

কপ-২৭: ক্ষতিগ্রস্ত দরিদ্র দেশগুলোকে অর্থ দিতে রাজি ইইউ

আপডেট : ১৮ নভেম্বর ২০২২, ১৮:৪৭

মিসরে চলছে কপ–২৭ সম্মেলন। ছবি: ইউনিসেফের সৌজন্যে গত ৬ নভেম্বর মিসরের শারম আল শাইখে শুরু হয়েছে জাতিসংঘের জলবায়ু শীর্ষ সম্মেলন কপের ২৭তম আসর। আজ শুক্রবার সম্মেলন শেষ হওয়ার কথা থাকলেও তা এক দিন বাড়ানো হয়েছে। অর্থাৎ সম্মেলন আগামীকাল শনিবার শেষ হবে।

আজ শুক্রবার দরিদ্র দেশগুলোর জন্য ‘লস অ্যান্ড ড্যামেজ’ তহবিল দিতে সম্মত হয়েছে ইউরোপীয় ইউনিয়ন (ইইউ)।

ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম গার্ডিয়ানের এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়।

গার্ডিয়ানের প্রতিবেদনে বলা হয়, এবারের সম্মেলনে উন্নয়শীল দেশগুলোর অন্যতম দাবি ছিল ‘লস অ্যান্ড ড্যামেজ’ তহবিল। অবশেষে সে বিষয়ে সম্মত হয়েছে ইইউ। আজ অধিবেশন শুরুর দিকেই ইউরোপীয় ইউনিয়নের পক্ষে ‘লস অ্যান্ড ড্যামেজ’ তহবিলের প্রস্তাব তুলে ধরেন ইউরোপীয় কমিশনের ভাইস প্রেসিডেন্ট ফ্রান্স টিমারম্যানস। 

ধনী দেশগুলো ‘লস অ্যান্ড ড্যামেজ’ তহবিলের বিপক্ষে যুক্তি দিয়ে আসছিল। তাদের যুক্তি ছিল, এটি অনেক সময়সাপেক্ষ ব্যাপার। এটি আদৌ প্রয়োজন কি না এবং এটি কীভাবে বাস্তবায়ন হবে তা নিয়েও প্রশ্ন তোলেন তাঁরা। 

আজ সকালে ফ্রান্স টিমারম্যানস বলেন, ‘এবারের সম্মেলনে উন্নয়নশীল দেশগুলোর অন্যতম দাবি ছিল ‘‘লস অ্যান্ড ড্যামেজ’ তহবিল। ইউরোপীয় ইউনিয়ন তাঁদের দাবি শুনেছে। আমরা এই তহবিলের বিষয়ে অনিচ্ছুক ছিলাম। অনিচ্ছুক থাকার কারণ আমরা আমাদের অভিজ্ঞতা থেকে জানি একটি তহবিল প্রতিষ্ঠা সময়সাপেক্ষ বিষয় এবং এটি বাস্তবায়ন করা আরও সময়সাপেক্ষ বিষয়। আর বর্তমান তহবিল দিয়েই অগ্রসর হওয়া সম্ভব। কিন্তু “লস অ্যান্ড ড্যামেজ” তহবিলের সঙ্গে যেহেতু উন্নয়নশীল দেশগুলো (জি-৭৭) রয়েছে এবং তাঁদের দাবির পরিপ্রেক্ষিতে আমরা সম্মত হয়েছি। তবে যেকোনো তহবিলের বিষয়ে ‘‘স্পষ্ট শর্ত’’ যুক্ত করা হবে।’ 

উল্লেখ্য, ‘লস অ্যান্ড ড্যামেজ’ তহবিল হলো জলবায়ুর চরম বিপর্যয়ের ফলে ক্ষতিগ্রস্ত ভৌত ও সামাজিক অবকাঠামো বিনির্মাণ ও জলবায়ু সম্পর্কিত দুর্যোগের পর উদ্ধারে প্রয়োজনীয় অর্থ প্রদান। 

জলবায়ু পরিবর্তনের কারণে বিপদগ্রস্ত দেশগুলোকে ক্ষতিপূরণ দেওয়ার বিষয়টিকে সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিয়ে কপের এবারের আসরের স্লোগান ঠিক করা হয়েছে ‘বাস্তবায়নে সবার অংশগ্রহণ’। উন্নয়নশীল দেশগুলো এখন উন্নত দেশগুলোর কাছ থেকে নিশ্চিত ক্ষতিপূরণ চায়। কারণ জলবায়ু পরিবর্তনের জন্য ঐতিহাসিকভাবে মূলত উন্নত দেশগুলোই দায়ী। 

বার্তা সংস্থা রয়টার্সের প্রতিবেদন অনুসারে, গত বছর গ্লাসগোতে অনুষ্ঠিত কপ-২৬ সম্মেলনে জলবায়ু পরিবর্তনের কারণে দরিদ্র দেশগুলোকে ক্ষতিপূরণ দেওয়া সম্পর্কিত আলোচনার পথ বন্ধ করে দিয়েছিল ধনী দেশগুলো। এদিকে গত এক বছরে উন্নয়নশীল দেশগুলো জলবায়ু পরিবর্তনসংক্রান্ত নানা দুর্যোগের মুখোমুখি হয়েছে। এর মধ্যে পাকিস্তানের ভয়াবহ বন্যা এবং পূর্ব আফ্রিকায় তীব্র খরা উল্লেখযোগ্য ও ভীতিকর ঘটনা। বাংলাদেশের সিলেটেও চলতি বছর দুই দফা বন্যা এবং সর্বশেষ উপকূলীয় এলাকায় ঘূর্ণিঝড় সিত্রাংয়ের আঘাতে ত্রিশের বেশি প্রাণহানি, প্রচুর ঘরবাড়ি বিধ্বস্ত এবং ফসলের ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। 

মন্তব্য

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।
Show
 
    সব মন্তব্য

    ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

    পঠিতসর্বশেষ

    এলাকার খবর

     
     

    স্বাভাবিক অবস্থায় ফিরছে ওজোন স্তর: গবেষণা 

    জানেন কি

    বন–জঙ্গল নয়, পৃথিবীকে বেশির ভাগ অক্সিজেন দেয় সমুদ্র

    কুয়াশা কমলেও কয়েক দিন থাকবে কনকনে ঠান্ডা বাতাস

    এ বছরও চ্যালেঞ্জ জলবায়ু কূটনীতি, সঙ্গে লা নিনার প্রভাব

    আগামী ৩ দিন কয়েক জেলায় বৃষ্টির সম্ভাবনা, জেঁকে বসবে শীত

    এই শতাব্দী শেষে প্রতি ১০ প্রজাতির একটি বিলুপ্ত হতে পারে: গবেষণা

    তরুণীকে কুপ্রস্তাব: সেই প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তাকে বদলি

    ক্ষমতার অপপ্রয়োগ যেন না হয়: ডিসিদের প্রতি রাষ্ট্রপতির নির্দেশ

    ঢাকায় কসক্যাপের সভা অনুষ্ঠিত, আঞ্চলিক সহযোগিতা বৃদ্ধির আশা

    উপাচার্যের আশ্বাসে স্থগিত মৈত্রী হল প্রাধ্যক্ষের পদত্যাগের আন্দোলন 

    আন্তর্জাতিক অঙ্গনে যাত্রা শুরু করল ‘রুকাইয়াইসমাত ফ্যাশন ব্র্যান্ড’

    নরসিংদীতে বিএনপি নেতা খায়রুল কবীরের বাড়িতে অগ্নিসংযোগ