Alexa
রোববার, ০৫ ফেব্রুয়ারি ২০২৩

সেকশন

epaper
 

চেক জমা দিয়ে শেয়ার কেনা নিয়ে উৎকণ্ঠার অবসান

আপডেট : ০২ নভেম্বর ২০২২, ১২:১২

ফাইল ছবি পুঁজিবাজারের চলমান অস্থিরতার মধ্যে চেক জমা দিয়ে শেয়ার কেনা নিয়ে বিনিয়োগকারীদের উৎকণ্ঠা দূর করার উদ্যোগ নিয়েছে নিয়ন্ত্রক সংস্থা। এখন থেকে ব্রোকারেজ হাউজে চেক জমা দিলেই শেয়ার কেনার সুযোগ মিলবে। 

এক্ষেত্রে ব্রোকারেজ হাউজকে সেদিন বা পরের কর্মদিবসে চেক ব্যাংকে জমা দেয়াসহ চারটি শর্ত আরোপ করে গতকাল মঙ্গলবার নির্দেশনা জারি করেছে বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি)।

এর আগে ১১ অক্টোবর চেকের টাকা নগদায়নের আগে তা দিয়ে শেয়ার কেনা যাবে না বলে নির্দেশনা দেয় বিএসইসি। এর প্রভাবে পরদিন থেকেই পুঁজিবাজারে লেনদেন কমে যেতে থাকে; টানা পতন চলতে থাকে সূচকে। এর ফলে কয়েক দিন ধরে বিনিয়োগকারী ও ব্রোকারেজ হাউসের কর্মকর্তাদের মধ্যে উৎকণ্ঠা ছিল। নতুন নির্দেশনার ফলে তার অবসান হলো বলে মনে করছেন বাজার সংশ্লিষ্টরা। 

নতুন নির্দেশনা অনুযায়ী, বিনিয়োগকারীরা এখন থেকে চেক, পে-অর্ডার বা ডিমান্ড ড্রাফট জমা দিয়ে দিনে দিনেই শেয়ার কেনার সুযোগ পাবেন। কিন্তু কোনো বিনিয়োগকারীর চেক প্রত্যাখ্যাত হলে ব্রোকারেজ হাউস ও মার্চেন্ট ব্যাংককে দায় নিতে হবে।

বিএসইসির নির্দেশনায় বলা হয়, চেক, পে-অর্ডার বা ডিমান্ড ড্রাফট লেনদেন চলাকালীন সময় জমা দিয়ে ওই দিনই শেয়ার কেনার সুযোগ পাবেন। সেগুলো সংশ্লিষ্ট ব্রোকারেজ হাউজ ও মার্চেন্ট ব্যাংককে ওই দিনই জমা দিনই ব্যাংকে জমা দিতে হবে। তবে লেনদেন সময়ের পর জমা হওয়া চেক, পে-অর্ডার বা ডিমান্ড ড্রাফট পরের কার্যদিবসে জমা দিতে হবে।

যদি কোনো বিনিয়োগকারীর চেক, পে-অর্ডার বা ডিমান্ড ড্রাফট প্রত্যাখ্যাত হয়, সে ক্ষেত্রে যে পরিমাণ অর্থের ঘাটতি হবে, তা সংশ্লিষ্ট ব্রোকারেজ হাউস বা মার্চেন্ট ব্যাংককে সমন্বিত গ্রাহক হিসাবে জমা দিতে হবে। অর্থাৎ কোনো বিনিয়োগকারীর চেক প্রত্যাখ্যাত হলে তার প্রাথমিক দায় সংশ্লিষ্ট ব্রোকারেজ হাউস বা মার্চেন্ট ব্যাংকের। শর্ত পরিপালনে ব্যর্থ ব্রোকারেজ হাউজ বা মার্চেন্ট ব্যাংক আইপিও, পুনঃ আইপিও কোটা সুবিধা হারাবে।

আর যেসব বিনিয়োগকারীর চেক, পে-অর্ডার বা ডিমান্ড ড্রাফট প্রত্যাখ্যাত হবে, তারা পরের একবছর চেক, পে-অর্ডার বা ডিমান্ড ড্রাফটের মাধ্যমে লেনদেন করতে পারবেন না। ব্রোকারেজ হাউস ও মার্চেন্ট ব্যাংকগুলোর কাছ থেকে প্রতি মাসে চেক প্রত্যাখ্যাত হওয়ার তথ্য সংগ্রহ করবে নিয়ন্ত্রক সংস্থা। চেক প্রত্যাখ্যাত হওয়া বিনিয়োগকারীদের বিরুদ্ধে অন্যান্য সিকিউরিটিজ আইনেও ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

প্রতি মাসের ১০ তারিখের মধ্যে সব ব্রোকারেজ হাউস ও মার্চেন্ট ব্যাংককে বিনিয়োগকারীদের চেক, পে-অর্ডার ও ডিমান্ড ড্রাফট প্রত্যাখ্যাত হওয়ার তথ্য জমা দিতে নির্দেশনা দিয়েছে বিএসইসি। এসব সুযোগ দিলেও শেয়ার কেনাবেচার অর্থ জমার ক্ষেত্রে চেকের বদলে আরটিজিএস, বিএফটিএনসহ ব্যাংক খাতে প্রচলিত অন্যান্য লেনদেনব্যবস্থা ব্যবহারে উদ্বুদ্ধ করতে বলেছে বিএসইসি।

মন্তব্য

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।
Show
 
    সব মন্তব্য

    ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

    এলাকার খবর

     
     

    যে জালিয়াতির খবরে ৩ দিনেই ৩ লাখ কোটি রুপি হারাল আদানি

    সরকারি কোম্পানির শেয়ার বাজারে আনতে করণীয় নিয়ে বিআইসিএমের সেমিনার

    স্কয়ার ফার্মাসিউটিক্যালস্ দেবে ১০০% নগদ লভ্যাংশ

    ফ্লোর প্রাইস উঠল ১৬৯ সিকিউরিটিজের, সতর্ক বাজারসংশ্লিষ্টরা  

    নির্বাচনের বছরে পুঁজিবাজারে ব্যাংকের জন্য বিশেষ ছাড়

    লোকসানে ওয়ালটন

    ৫ ইউনিটের চেষ্টায় পাহাড়তলী বাজারের আগুন নিয়ন্ত্রণে

    ‘তুর কলিজায় এতবল আসে কোত্থেকে, সামনাসামনি আয়’

    শিবগঞ্জে ট্রাক-প্রাইভেট কারের মুখোমুখি সংঘর্ষ, ভাই-বোন নিহত

    ‘হিরোকে যারা জিরো বানাতে এসেছে, তারাই জিরো হয়েছে’

    আঙিনায় জোড়া বাঘ, বনরক্ষীদের শ্বাসরুদ্ধকর ২০ ঘণ্টা

    আগারগাঁওয়ের চাপ কমাতে ঢাকায় পাসপোর্ট অফিসের সীমানা পুনর্নির্ধারণ