Alexa
রোববার, ২৯ জানুয়ারি ২০২৩

সেকশন

epaper
 

ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের কিছু অপপ্রয়োগ হয়েছে, সবাই স্বীকার করে না: আইনমন্ত্রী 

আপডেট : ২২ অক্টোবর ২০২২, ১৯:৫৩

‘ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন বিতর্ক’ বিষয়ে ঢাকায় এক গোলটেবিল বৈঠকে কথা বলেন আইনমন্ত্রী। ছবি: সংগৃহীত ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের (ডিএসএ) কিছু অপপ্রয়োগ হয়েছে বলে স্বীকার করেছেন আইন, বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রী আনিসুল হক। আজ শনিবার এক অনুষ্ঠানে মন্ত্রী বলেন, ‘২০১৯ সালে করোনা শুরু হওয়ার পরে আমি দেখেছি, এর কিছু-কিছু অপপ্রয়োগ হচ্ছে। সবাই তো স্বীকার করে না!’

এডিটরস গিল্ড বাংলাদেশের আয়োজনে ‘ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন বিতর্ক’ বিষয়ে ঢাকায় এক গোলটেবিল বৈঠকে মন্ত্রী এ কথা বলেন। 

সরকারের পদক্ষেপ নেওয়ার ফলে আইনটির অপপ্রয়োগ অনেক কমেছে, এমন দাবি করে আইনমন্ত্রী বলেন, ‘সরকার অপপ্রয়োগ বন্ধ করার চেষ্টা করছে। এ আইন প্রয়োগের ক্ষেত্রে প্রশাসন যাতে বাড়াবাড়ি না করে সেটাও দেখা হবে।’ 

আনিসুল হক বলেন, ‘ডিএসএ বাক্‌স্বাধীনতা বা সংবাদমাধ্যমের স্বাধীনতা হরণ করার জন্য হয়নি। এটি জনস্বার্থেই করা হয়েছে। কেউ যদি মনে করেন, এই আইন সাংবাদিকদের টার্গেট করে করা হয়েছে, তা ঠিক নয়।’ 

আইনটির যৌক্তিকতা তুলে ধরতে মন্ত্রী বলেন, ‘বিশ্বে এখন ডিজিটালাইজেশন হচ্ছে। পেনাল কোডের ধারায় যে চুরির কথা বলা আছে, তাতে চোরের শারীরিক উপস্থিতির ব্যাপার ছিল। যে মুহূর্তে ডিজিটালি চুরি হওয়া শুরু করল, তখন এটাকে কি পেনাল কোডের ধারায় শাস্তিযোগ্য করা যাবে? পারবেন না। পেনাল কোডের অনেক ধারাতেই ডিজিটাল মাধ্যমে অবমাননার কথা নেই। যার জন্য এসব বিষয়কে এই আইনের আওতায় আনা হয়েছে।’ 

আইনের অপপ্রয়োগ নিয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খানের সঙ্গে আলোচনা হয়েছে উল্লেখ করে আইনমন্ত্রী জানান, এই আইনে মামলা করার সঙ্গে সঙ্গে সাংবাদিকদের আগেই গ্রেপ্তার করা হবে না। পাশাপাশি যে কেউ মামলা করুক না কেন, সেটাকে মামলা হিসেবে গ্রহণ করা হবে না—এ বিষয়ে দুই মন্ত্রী একমত হয়েছেন। 

একই সঙ্গে যে অভিযোগগুলো আসছে, তা ডিএসএর ধারায় পড়ে কি না, নাকি হয়রানি করা হচ্ছে, তা দেখার জন্য আইসিটি অ্যাক্টের একটি সেল আছে জানিয়ে মন্ত্রী বলেন, ‘সেলটিকে কার্যকর করে এই অভিযোগগুলো আমলে নিয়ে পরীক্ষা করে যখন আদালতে কিংবা থানায় পাঠানো হবে, তখনই অভিযোগটি মামলা হিসেবে রুজু করা হবে।’ 

মন্ত্রী জানান, সাইবার অপরাধ ট্রাইব্যুনালে প্রসিকিউশনকে বলে দেওয়া হয়েছে যেন প্রথমেই গ্রেপ্তারি পরোয়ানা দেওয়া না হয়, সমন জারি করা হয়। যাতে অভিযুক্ত ব্যক্তি আদালতে এসে তাঁর বক্তব্য উপস্থাপন করতে পারেন। 

আইনমন্ত্রী বলেন, ‘এই আইনের আওতাধীন অপরাধ অজামিনযোগ্য মানে এই না যে, আসামি কোনো দিন জামিন পাবেন না। অজামিনযোগ্য অর্থ আসামিকে পুলিশ থানা থেকে ছাড়তে পারবেন না। বিজ্ঞ আদালত বিবেচনা করবেন তাঁকে জামিন দেবেন কি দেবেন না।’ 

উপাত্ত সুরক্ষা আইন কারও উপাত্ত নিয়ন্ত্রণের জন্য করা হবে না নিশ্চয়তা দিয়ে মন্ত্রী বলে, ‘এটা করা হবে শুধুই উপাত্ত সুরক্ষার জন্য।’ 

অনুষ্ঠানে মূল প্রবন্ধে এডিটরস গিল্ডের যুগ্ম সম্পাদক সৈয়দ ইশতিয়াক রেজা বলেন, ‘দুই বছর আগে ডিএসএতে আটক সাংবাদিক মুশতাক আহমেদের মৃত্যু হয়। এরপর পত্রিকায় কার্টুন বন্ধ হয়ে গেছে। প্রায় উঠে গেছে অনুসন্ধানী সাংবাদিকতা।’ 

চলচ্চিত্র নির্মাতা নাসির উদ্দিন ইউসুফ বাচ্চু বলেন, ‘নাটকে অনেক সময় মুচির চরিত্র, পুলিশের চরিত্র ইত্যাদি দেখানো হয়। যদি পুলিশের চরিত্র একটু নেতিবাচকভাবে তুলে ধরা হয়, তাহলে মামলা দিয়ে দিচ্ছে।’ 

দৈনিক প্রথম আলোর যুগ্ম–সম্পাদক সোহরাব হাসান বলেন, ‘আইনের একটা উদ্দেশ্য হওয়ার কথা জনগণকে সুরক্ষা দেওয়া। তবে যে আইন জনগণের স্বাধীনতা বন্ধ করতে চায়, সেই আইন আর জনগণকে সুরক্ষা দিতে পারে না।’ 

আর্টিকেল-১৯–এর বাংলাদেশ ও দক্ষিণ এশিয়া অঞ্চলের পরিচালক ফারুক ফয়সাল বলেন, ‘ডিএসএ অনুযায়ী সাংবাদিকদের আটকের জন্য সরকারের অনুমতি লাগে না। জামিন অযোগ্য অনেক ধারা আছে। ডেটা অ্যাক্টসহ তিনটি আইন করার কথা এখন বলা হচ্ছে। এর আওতায় মানুষের সব তথ্য সরকার পাবে। নির্বাচনকে সামনে রেখেই এসব করা হচ্ছে বলে মনে করা হচ্ছে।’ 

তবে ডিএসএকে সময়োপযোগী আইন অভিহিত করে পুলিশের অতিরিক্ত মহাপরিদর্শক মো. হারুন অর রশীদ বলেন, ‘এ আইনের ধারা অনুযায়ী সাইবার বুলিংয়ের অভিযোগে ১৩ হাজার জনের অভিযোগ আমলে নেওয়া হয়েছে।’ 

একাত্তর টিভির প্রধান সম্পাদক মোজাম্মেল বাবুর সঞ্চালনায় এ আলোচনায় আরও অংশ নেন চলচ্চিত্র নির্মাতা কামার আহমেদ সায়মন।

মন্তব্য

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।
Show
 
    সব মন্তব্য

    ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

    এলাকার খবর

     
     

    বার কাউন্সিল সভায় বাগ্‌বিতণ্ডায় জড়ালেন বিএনপি-আওয়ামীপন্থী আইনজীবীরা

    রিজওয়ানা হাসানের গাড়িতে হামলার নিন্দা ৫২ নাগরিকের

    আফগানফেরত মুজাহিদ হাল ধরেছেন হুজির: পুলিশ

    আষাঢ়ে নয়

    যে পথ থেকে ফেরা যায় না

    বিদ্যুতের দাম প্রতি মাসে সমন্বয় করা হবে: নসরুল হামিদ

    ভূমির কারণেই সংখ্যালঘুরা বেশি নির্যাতিত হচ্ছে: কর্মশালায় বক্তারা

    ঝুঁকি নিয়ে বিশেষ ট্রেনের ছাদে উঠে সমাবেশে যাচ্ছেন নেতা-কর্মীরা 

    ক্ষমা করার সুফল পাবে তো আওয়ামী লীগ?

    এমন ঐক্য যদি সব ক্ষেত্রে হতো!

    সুচিত্রা সেনের মঞ্চনাটক

    সৌদিতে গিয়েই মেসিকে ছাড়িয়ে গেছেন রোনালদো

    দায়িত্বজ্ঞানহীনতা